০১:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খালিস্তানি পোস্টারে কুটনীতিকদের হুমকি, কড়া বার্তা ভারতের

ভারতীয় কূটনীতিকদের বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়া পোস্টার ‘অগ্রহণযোগ্য’। কানাডা এবং ব্রিটেনে খালিস্তানি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কর্মকাণ্ড নিয়ে, বৃহস্পতিবার এমনটাই বলেছেন বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র, অরিন্দম বাগচি। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র বলেছেন, “আমরা এর নিন্দা করছি। কানাডা সরকারের সঙ্গে আমরা এই বিষয়ে কথা বলেছি। সংবাদমাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর মন্তব্যও শুনেছি। সমস্যাটি মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিয়ে নয়। এটা হিংসা, বিচ্ছিন্নতাবাদের প্রচার এবং সন্ত্রাসবাদকে বৈধতা দেওয়ার জন্য মত প্রকাশের স্বাধীনতার অপব্যবহার”।

তিনি আরও জানান, সন্ত্রাসবাদীদের কোনও অবস্থাতেই কোনও জায়গা দেওয়া উচিত নয়। অরিন্দম বাগচি বলেন, “মত প্রকাশের স্বাধীনতার নামে, সন্ত্রাসবাদীদের জায়গা করে দেওয়া উচিত নয়। আমরা আন্তরিকভাবে এই সমস্যার সমাধান চাইছি।”

বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র আরও জানিয়েছেন, ভারতীয় কূটনীতিকদের হুমকি দেওয়া খালিস্তানি পোস্টারগুলির বিষয়ে চারটি দেশের সরকার দৃঢ় পদক্ষেপ করেছে। কিছু কিছু জায়গায়, অবিলম্বে পদক্ষেপ করা হয়েছে। অন্যান্য দেশেও এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। মার্কিন প্রশাসন অবিলম্বে এই ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। ভারতীয় কূটনীতিকদের হুমকি দেওয়ার প্রচেষ্টাকে তারা ‘অপরাধ’ বলেছে।

খালিস্তানি পোস্টারগুলিতে কানাটার অটোয়ার ভারতীয় হাইকমিশনার সঞ্জয় কুমার ভার্মা এবং টরন্টোর কনসাল জেনারেল অপূর্ব শ্রীবাস্তবকে, খালিস্তান টাইগার ফোর্সের প্রধান হরদীপ সিং নিজরের হত্যাকারী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের ছবিও দেওয়া হয়েছে সেই পোস্টারে। এই নিয়ে ক্ষোভ দেখা গিয়েছে গোটা ভারতে।

এর আগে কানাডাতেই, অপারেশন ব্লু স্টারের ৩৯তম বার্ষিকীতে, খালিস্তানিরা প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর হত্যার বিষয়ে একটি ট্যাবলো প্রদর্শন করেছিল। ওই ট্যাবলোতে ইন্দিরা গান্ধীর পোশাকে লেগে ছিল রক্ত। দুই শিখ দেহরক্ষীর মডেল তৈরি করা হয়েছিল, যারা ইন্দিরা গান্ধীর দিকে বন্দুক উঁচিয়ে ছিলেন। সঙ্গে ছিল একটি পোস্টার, লেখা ছিল ‘শ্রী দরবার সাহেবের উপর হামলার প্রতিশোধ’। মাস খানের আগের ওই ঘটনার পর, এবার কুটনীতিকদের নিশানা করে এই পোস্টার দেওয়া হয়েছে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

খালিস্তানি পোস্টারে কুটনীতিকদের হুমকি, কড়া বার্তা ভারতের

প্রকাশ: ০৬:৪৩:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই ২০২৩

ভারতীয় কূটনীতিকদের বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়া পোস্টার ‘অগ্রহণযোগ্য’। কানাডা এবং ব্রিটেনে খালিস্তানি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কর্মকাণ্ড নিয়ে, বৃহস্পতিবার এমনটাই বলেছেন বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র, অরিন্দম বাগচি। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র বলেছেন, “আমরা এর নিন্দা করছি। কানাডা সরকারের সঙ্গে আমরা এই বিষয়ে কথা বলেছি। সংবাদমাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর মন্তব্যও শুনেছি। সমস্যাটি মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিয়ে নয়। এটা হিংসা, বিচ্ছিন্নতাবাদের প্রচার এবং সন্ত্রাসবাদকে বৈধতা দেওয়ার জন্য মত প্রকাশের স্বাধীনতার অপব্যবহার”।

তিনি আরও জানান, সন্ত্রাসবাদীদের কোনও অবস্থাতেই কোনও জায়গা দেওয়া উচিত নয়। অরিন্দম বাগচি বলেন, “মত প্রকাশের স্বাধীনতার নামে, সন্ত্রাসবাদীদের জায়গা করে দেওয়া উচিত নয়। আমরা আন্তরিকভাবে এই সমস্যার সমাধান চাইছি।”

বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র আরও জানিয়েছেন, ভারতীয় কূটনীতিকদের হুমকি দেওয়া খালিস্তানি পোস্টারগুলির বিষয়ে চারটি দেশের সরকার দৃঢ় পদক্ষেপ করেছে। কিছু কিছু জায়গায়, অবিলম্বে পদক্ষেপ করা হয়েছে। অন্যান্য দেশেও এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। মার্কিন প্রশাসন অবিলম্বে এই ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। ভারতীয় কূটনীতিকদের হুমকি দেওয়ার প্রচেষ্টাকে তারা ‘অপরাধ’ বলেছে।

খালিস্তানি পোস্টারগুলিতে কানাটার অটোয়ার ভারতীয় হাইকমিশনার সঞ্জয় কুমার ভার্মা এবং টরন্টোর কনসাল জেনারেল অপূর্ব শ্রীবাস্তবকে, খালিস্তান টাইগার ফোর্সের প্রধান হরদীপ সিং নিজরের হত্যাকারী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের ছবিও দেওয়া হয়েছে সেই পোস্টারে। এই নিয়ে ক্ষোভ দেখা গিয়েছে গোটা ভারতে।

এর আগে কানাডাতেই, অপারেশন ব্লু স্টারের ৩৯তম বার্ষিকীতে, খালিস্তানিরা প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর হত্যার বিষয়ে একটি ট্যাবলো প্রদর্শন করেছিল। ওই ট্যাবলোতে ইন্দিরা গান্ধীর পোশাকে লেগে ছিল রক্ত। দুই শিখ দেহরক্ষীর মডেল তৈরি করা হয়েছিল, যারা ইন্দিরা গান্ধীর দিকে বন্দুক উঁচিয়ে ছিলেন। সঙ্গে ছিল একটি পোস্টার, লেখা ছিল ‘শ্রী দরবার সাহেবের উপর হামলার প্রতিশোধ’। মাস খানের আগের ওই ঘটনার পর, এবার কুটনীতিকদের নিশানা করে এই পোস্টার দেওয়া হয়েছে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক