০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সাথে জয়শঙ্করের সাক্ষাৎ

শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি গোটাবায়া রাজাপাকসে এবং প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। ২৮ মার্চ, সোমবার,  দ্বীপরাষ্ট্রটির সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের বিভিন্ন ইস্যুতে দেশটির শীর্ষ নেতৃত্বের সাথে মতবিনিময় করেন মোদী মন্ত্রীসভার গুরুত্বপূর্ণ এই সদস্য।

পরবর্তীতে বেশ কয়েকটি টুইটের মাধ্যমে তথ্যটি নিশ্চিত করেন জয়শঙ্কর নিজেই। উল্লেখ্য, আগামীকাল বিমসটেকের আসন্ন ৫ম শীর্ষ সম্মেলনের প্রস্তুতি সভায় যোগ দিতে লঙ্কান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিএল পেইরিসের আমন্ত্রণে তিনদিনের সফরে কলম্বো গিয়েছেন ভারতীয় পরররাষ্ট্রমন্ত্রী।

নিজের টুইটার একাউন্টে এক পোস্টে জয়শংকর লিখেছেন, “লঙ্কান রাষ্ট্রপতি গোটাবায়া রাজাপাক্ষের সাথে সাক্ষাৎ করতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিভিন্ন ইস্যু সহ সার্বিক সহযোগিতা ও বোঝাপড়া নিয়ে আমাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে।”

অপর এক টুইটবার্তায় লঙ্কান প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের সাথে দেখা করার বিষয়েও লিখেছেন জয়শঙ্কর। সেখানে তিনি বলেন, “অত্যন্ত সুন্দর স্বাগত জানানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসেকে ধন্যবাদ। বৌদ্ধ সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য সমর্থনে চুক্তি স্বাক্ষর, জয়পুর ফুট ফিটিং করতে জাফনায় চলমান শিবির পরিদর্শন সহ নানা ইস্যুতে আমাদের আলোচনা হয়েছে।”

একই দিনে জাফনা সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধনও করেছেন জয়শঙ্কর। এর আগে লঙ্কান অর্থমন্ত্রী বাসিল রাজাপাকসের সাথেও সাক্ষাৎ করেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পাশাপাশি কলম্বোতে এইচসিএল টেকনোলজিস অফিস ডেভেলপমেন্ট সেন্টারও পরিদর্শন করেছেন তিনি। একই সঙ্গে, শ্রীলঙ্কার ডাউনটাউন কলম্বোতে লঙ্কা ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনও পরিদর্শন করেন এই নেতা।

উল্লেখ্য, মহামারীর শুরু থেকেই অদ্যবধি শ্রীলঙ্কায় নানাবিধ সহযোগিতা পাঠিয়েছে ভারত। এর সর্বশেষ উদাহরণ লক্ষাধিক র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট কিটের চালান। গতবছর এপ্রিল-মে মাসেও শ্রীলঙ্কায় প্রায় ২৬ টন প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী উপহার পাঠিয়েছিলো ভারত।

তাছাড়া, লঙ্কান রাষ্ট্রপতি গোটবায়া রাজাপাক্ষের জরুরী ত্রাণ পাঠানোর ব্যক্তিগত অনুরোধের প্রতিক্রিয়ায় গত আগস্টে বিপুল পরিমাণ লিকুইড মেডিকেল অক্সিজেন পাঠায় মোদী সরকার। পাশাপাশি আর্থিক মন্দায় থাকা শ্রীলঙ্কার সহযোগিতায় প্রায় ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিময়ের সুযোগও দেয় ভারত।

একই সঙ্গে, গত ২ ফেব্রুয়ারী, পেট্রোলিয়াম পণ্য ক্রয়ের জন্য ৫০০ মিলিয়ন ডলারের ক্রেডিট লাইন চুক্তি করেছে ভারতের রপ্তানী আমদানী ব্যাংক এবং শ্রীলঙ্কান সরকার। সর্বোপরি, লঙ্কান অর্থনীতির চাকা ফিরিয়ে আনতে প্রায় ৯০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহযোগিতায় এগিয়ে আসে ভারত। গতবছর ডিসেম্বরে লঙ্কান অর্থমন্ত্রী বাসিল রাজাপাক্ষের ভারত সফরের সময়ই এ বিষয়ে সামঞ্জস্যপূর্ণ আলোচনার সূত্রপাত হয়েছিলো।

এছাড়াও, ভারত এবং শ্রীলংকার মধ্যে গভীর দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিদ্যমান যা বিভিন্ন বহুপাক্ষিক ফোরামেও দেখা যায়। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সাথে জয়শঙ্করের সাক্ষাৎ

প্রকাশ: ০৬:৪৬:৩৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৮ মার্চ ২০২২

শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি গোটাবায়া রাজাপাকসে এবং প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। ২৮ মার্চ, সোমবার,  দ্বীপরাষ্ট্রটির সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের বিভিন্ন ইস্যুতে দেশটির শীর্ষ নেতৃত্বের সাথে মতবিনিময় করেন মোদী মন্ত্রীসভার গুরুত্বপূর্ণ এই সদস্য।

পরবর্তীতে বেশ কয়েকটি টুইটের মাধ্যমে তথ্যটি নিশ্চিত করেন জয়শঙ্কর নিজেই। উল্লেখ্য, আগামীকাল বিমসটেকের আসন্ন ৫ম শীর্ষ সম্মেলনের প্রস্তুতি সভায় যোগ দিতে লঙ্কান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিএল পেইরিসের আমন্ত্রণে তিনদিনের সফরে কলম্বো গিয়েছেন ভারতীয় পরররাষ্ট্রমন্ত্রী।

নিজের টুইটার একাউন্টে এক পোস্টে জয়শংকর লিখেছেন, “লঙ্কান রাষ্ট্রপতি গোটাবায়া রাজাপাক্ষের সাথে সাক্ষাৎ করতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিভিন্ন ইস্যু সহ সার্বিক সহযোগিতা ও বোঝাপড়া নিয়ে আমাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে।”

অপর এক টুইটবার্তায় লঙ্কান প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের সাথে দেখা করার বিষয়েও লিখেছেন জয়শঙ্কর। সেখানে তিনি বলেন, “অত্যন্ত সুন্দর স্বাগত জানানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসেকে ধন্যবাদ। বৌদ্ধ সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য সমর্থনে চুক্তি স্বাক্ষর, জয়পুর ফুট ফিটিং করতে জাফনায় চলমান শিবির পরিদর্শন সহ নানা ইস্যুতে আমাদের আলোচনা হয়েছে।”

একই দিনে জাফনা সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধনও করেছেন জয়শঙ্কর। এর আগে লঙ্কান অর্থমন্ত্রী বাসিল রাজাপাকসের সাথেও সাক্ষাৎ করেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পাশাপাশি কলম্বোতে এইচসিএল টেকনোলজিস অফিস ডেভেলপমেন্ট সেন্টারও পরিদর্শন করেছেন তিনি। একই সঙ্গে, শ্রীলঙ্কার ডাউনটাউন কলম্বোতে লঙ্কা ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনও পরিদর্শন করেন এই নেতা।

উল্লেখ্য, মহামারীর শুরু থেকেই অদ্যবধি শ্রীলঙ্কায় নানাবিধ সহযোগিতা পাঠিয়েছে ভারত। এর সর্বশেষ উদাহরণ লক্ষাধিক র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট কিটের চালান। গতবছর এপ্রিল-মে মাসেও শ্রীলঙ্কায় প্রায় ২৬ টন প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী উপহার পাঠিয়েছিলো ভারত।

তাছাড়া, লঙ্কান রাষ্ট্রপতি গোটবায়া রাজাপাক্ষের জরুরী ত্রাণ পাঠানোর ব্যক্তিগত অনুরোধের প্রতিক্রিয়ায় গত আগস্টে বিপুল পরিমাণ লিকুইড মেডিকেল অক্সিজেন পাঠায় মোদী সরকার। পাশাপাশি আর্থিক মন্দায় থাকা শ্রীলঙ্কার সহযোগিতায় প্রায় ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিময়ের সুযোগও দেয় ভারত।

একই সঙ্গে, গত ২ ফেব্রুয়ারী, পেট্রোলিয়াম পণ্য ক্রয়ের জন্য ৫০০ মিলিয়ন ডলারের ক্রেডিট লাইন চুক্তি করেছে ভারতের রপ্তানী আমদানী ব্যাংক এবং শ্রীলঙ্কান সরকার। সর্বোপরি, লঙ্কান অর্থনীতির চাকা ফিরিয়ে আনতে প্রায় ৯০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহযোগিতায় এগিয়ে আসে ভারত। গতবছর ডিসেম্বরে লঙ্কান অর্থমন্ত্রী বাসিল রাজাপাক্ষের ভারত সফরের সময়ই এ বিষয়ে সামঞ্জস্যপূর্ণ আলোচনার সূত্রপাত হয়েছিলো।

এছাড়াও, ভারত এবং শ্রীলংকার মধ্যে গভীর দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিদ্যমান যা বিভিন্ন বহুপাক্ষিক ফোরামেও দেখা যায়। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক