০৩:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

করোনাকালে পাশে থাকায় ভারতকে মালদ্বীপের ‘ধন্যবাদ’

মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে অদ্যবধি টিকা এবং চিকিৎসা সরঞ্জামাদি উপহার দেয়া সহ সকল গুরুত্বপূর্ণ কাজে মালদ্বীপের পাশে থাকায় ভারতের নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মুহাম্মদ সোলিহ। বিগত দু বছরে মালদ্বীপের পাশে পরম মিত্র হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য ভারতের নিকট এই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

গত ১৩ মার্চ, রবিবার, জনসাধারণের উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষণে রাষ্ট্রপতি সোলিহ বলেছেন, “গত ০২ বছরে ভারত অনেক খাতে উদারভাবে আমাদের সহায়তা করেছে। আমাদেরকে সবচেয়ে বেশি অনুদানও দিয়েছে তারা। ভারত আমাদের অর্থনীতি পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করার জন্য ভ্যাকসিনের $২৫০ মিলিয়ন মূল্যের আর্থিক বন্ড কিনেছে। আমরা ভারত থেকে স্বাস্থ্য পরিষেবা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় অনেক সরঞ্জাম পেয়েছি।”

তিনি আরও বলেন, “করোনাকালীন সময়েও পর্যটকদের অব্যহত ভ্রমণ নিশ্চিতকল্পে একটি ভ্রমণ করিডোরও স্থাপন করা হয় ভারতের সঙ্গে। জরুরী অবস্থা থাকা সত্ত্বেও এক্ষেত্রে ভারত সরকার আমাদের প্রভূত সাহায্য করেছে।”

নিজ ভাষণে মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি বলেন, “ভারত মালদ্বীপবাসীদের জরুরী স্বাস্থ্যসেবার অ্যাক্সেস সহজ করেছে। ভারতীয়দেরকে আমাদের দেশে ভ্রমণ করার অনুমতি দিয়েছে। এই বিশেষাধিকারটি মালদ্বীপ ছাড়া অন্য কোনো দেশের জন্য দেওয়া হয়নি। আমরা সেজন্য নয়াদিল্লীর নিকট কৃতজ্ঞ।”

ভারত ছাড়াও মালদ্বীপকে সমর্থনের জন্য জাপান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সংযুক্ত আরব আমিরাত, চীন, বাংলাদেশ এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিকট (ডব্লিউএইচও) কৃতজ্ঞতা জানান সোলিহ।

উল্লেখ্য, মালদ্বীপে এখনও অবধি প্রায় ৩ লাখ ৭১ হাজার ৪৩৯ জন ব্যক্তি সম্পূর্ণ রূপে টিকা গ্রহণ করেছেন, যা মালদ্বীপের যোগ্য জনসংখ্যার প্রায় ৯০ শতাংশ। এর মাঝে ভারত দেশটিকে প্রায় ২ লাখ ডোজ কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন উপহার হিসেবে প্রদান করে। তাছাড়া, স্বল্পমূল্যে আরও এক লাখ ডোজ টীকা ভারত মালদ্বীপকে পাঠায়।

প্রসঙ্গত, ভারতের প্রতিবেশী প্রথম নীতির আওতায় সবচেয়ে গুরুত্ব দেয়া হয় মালদ্বীপকে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

করোনাকালে পাশে থাকায় ভারতকে মালদ্বীপের ‘ধন্যবাদ’

প্রকাশ: ০২:৫২:৩২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ মার্চ ২০২২

মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে অদ্যবধি টিকা এবং চিকিৎসা সরঞ্জামাদি উপহার দেয়া সহ সকল গুরুত্বপূর্ণ কাজে মালদ্বীপের পাশে থাকায় ভারতের নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মুহাম্মদ সোলিহ। বিগত দু বছরে মালদ্বীপের পাশে পরম মিত্র হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য ভারতের নিকট এই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

গত ১৩ মার্চ, রবিবার, জনসাধারণের উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষণে রাষ্ট্রপতি সোলিহ বলেছেন, “গত ০২ বছরে ভারত অনেক খাতে উদারভাবে আমাদের সহায়তা করেছে। আমাদেরকে সবচেয়ে বেশি অনুদানও দিয়েছে তারা। ভারত আমাদের অর্থনীতি পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করার জন্য ভ্যাকসিনের $২৫০ মিলিয়ন মূল্যের আর্থিক বন্ড কিনেছে। আমরা ভারত থেকে স্বাস্থ্য পরিষেবা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় অনেক সরঞ্জাম পেয়েছি।”

তিনি আরও বলেন, “করোনাকালীন সময়েও পর্যটকদের অব্যহত ভ্রমণ নিশ্চিতকল্পে একটি ভ্রমণ করিডোরও স্থাপন করা হয় ভারতের সঙ্গে। জরুরী অবস্থা থাকা সত্ত্বেও এক্ষেত্রে ভারত সরকার আমাদের প্রভূত সাহায্য করেছে।”

নিজ ভাষণে মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি বলেন, “ভারত মালদ্বীপবাসীদের জরুরী স্বাস্থ্যসেবার অ্যাক্সেস সহজ করেছে। ভারতীয়দেরকে আমাদের দেশে ভ্রমণ করার অনুমতি দিয়েছে। এই বিশেষাধিকারটি মালদ্বীপ ছাড়া অন্য কোনো দেশের জন্য দেওয়া হয়নি। আমরা সেজন্য নয়াদিল্লীর নিকট কৃতজ্ঞ।”

ভারত ছাড়াও মালদ্বীপকে সমর্থনের জন্য জাপান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সংযুক্ত আরব আমিরাত, চীন, বাংলাদেশ এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিকট (ডব্লিউএইচও) কৃতজ্ঞতা জানান সোলিহ।

উল্লেখ্য, মালদ্বীপে এখনও অবধি প্রায় ৩ লাখ ৭১ হাজার ৪৩৯ জন ব্যক্তি সম্পূর্ণ রূপে টিকা গ্রহণ করেছেন, যা মালদ্বীপের যোগ্য জনসংখ্যার প্রায় ৯০ শতাংশ। এর মাঝে ভারত দেশটিকে প্রায় ২ লাখ ডোজ কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন উপহার হিসেবে প্রদান করে। তাছাড়া, স্বল্পমূল্যে আরও এক লাখ ডোজ টীকা ভারত মালদ্বীপকে পাঠায়।

প্রসঙ্গত, ভারতের প্রতিবেশী প্রথম নীতির আওতায় সবচেয়ে গুরুত্ব দেয়া হয় মালদ্বীপকে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক