০৯:০৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেন ফেরতদের জন্য ভ্রমণ নির্দেশিকা সংশোধন ভারতের

রুশ আগ্রাসনের প্রেক্ষিতে বাধ্য হয়ে ইউক্রেন ছাড়তে হচ্ছে সেখানে অবস্থানরত ভারতীয়দের। এক্ষেত্রে ভুক্তভোগীদের সাহায্য করতে মরিয়া চেষ্টা করছে ভারত সরকার। প্রায় দু হাজারের বেশি ভারতীয়কে ইতোমধ্যে ইউক্রেন থেকে নিরাপদ অবস্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে এবং তাঁদের অনেকেই ভারতে ফিরে এসেছেন। এমতাবস্থায়, আন্তর্জাতিক ভ্রমণ বিধিতে সংশোধনী আনলো নরেন্দ্র মোদীর সরকার।

২৮ ফেব্রুয়ারী, সোমবার, ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়য়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রণালয়ের সম্মিলিত বৈঠকের পর ভারতের আন্তর্জাতিক ভ্রমণ পরামর্শ সংশোধন বিধি সংশোধন করা হয়েছে।

পরবর্তীতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মানবিক কারণ বিবেচনায় ইউক্রেন থেকে ফেরত আসা ভারতীয়দের জন্য কিছু ছাড়পত্রের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সেগুলো যথাক্রমে,

*বর্তমানে ভারতে প্রবেশের জন্য পূর্ব হতে কিছু বাধ্যতামূলক নথি দাখিল করতে হয়। তন্মধ্যে রয়েছে, প্রি-বোর্ডিং নেগেটিভ আরটি-পিসিআর পরীক্ষার রিপোর্ট, সম্পূর্ণ টিকাযুক্ত শংসাপত্র সহ প্রভৃতি কাগজাদি। ইউক্রেন ফেরতদের জন্য এটি দাখিল করা বাধ্যতামূলক নয় বলে জানানো হয়েছে। ভারতে প্রবেশের পর এসব পরীক্ষা করানো যাবে।

*আগত ভারতীয়দের কাউকেই আইসোলেশনে থাকতে হবেনা বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এক্ষেত্রে তাদেরকে প্রয়োজনীয় সতর্ক বিধি অনুসরণ করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

*তাছাড়া, যদি কোনো আগমনকারী ভারতে আসার ১৪ দিন পরও করোনা পজিটিভ থাকেন, তাহলে তাঁকে প্রয়োজনীয় ক্লিনিক্যাল ট্রীটমেণ্ট নিতে হবে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের দাবি, ইউক্রেনের মোট আটশো জায়গায় হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। দেশের মোট ১৪টি বিমানঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, ১৯ কামান্ড পোস্ট, ২৪ এস-৩০০ বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ও ৪৮ রেডার স্টেশন দখলে নিয়েছে রাশিয়া।

এছাড়া, ইউক্রেনে খাবারের আকাল তীব্র হচ্ছে। বহু জায়গায় জল, বিদ্যুৎ নেই। ন্যাটো ইউক্রেনের পাশে থাকলেও তারা এখনও পর্যন্ত বড় কোনও পদক্ষেপ নিতে পারেনি।

এদিকে, ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর দাবি, ইতিমধ্যেই তারা ৩ হাজার ৫০০ রুশ সেনাকে হত্যা করেছে। বন্দি করেছে ২০০ সেনাকে। পাশাপাশি ১৪টি রুশ যুদ্ধবিমান, ৮ কপ্টার, ১০২টি ট্যাঙ্ক ধ্বংস করেছে।

অন্যদিকে, ইউক্রেন অভিযান মাত্র ২ সপ্তাহেই শেষ করে ফেলতে চান পুতিন। ক্রেমলিন সূত্রে এমনটাই দাবি করেছে এক ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম। শনিবার ইউক্রেনের রকাজধানী কিয়েভে ঢুকেছে রুশ সেনা। স্থানীয় বাসিন্দাদের ঘরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে জেলেনস্কি সরকার।

এমতাবস্থায়, সেখানে আটকে পড়া প্রায় ১৬ হাজার ভারতীয় পড়ুয়া ও প্রবাসী নাগরিকদের ফিরিয়ে আনার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে ভারত সরকার। এজন্য অপারেশন গঙ্গা নামে একটি কর্মসূচিও চালু করেছে দিল্লী। ২৪ ঘন্টা সেবা দিচ্ছে কিয়েভে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাস। খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম ও হেল্পলাইন। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

ইউক্রেন ফেরতদের জন্য ভ্রমণ নির্দেশিকা সংশোধন ভারতের

প্রকাশ: ০১:২২:১২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ মার্চ ২০২২

রুশ আগ্রাসনের প্রেক্ষিতে বাধ্য হয়ে ইউক্রেন ছাড়তে হচ্ছে সেখানে অবস্থানরত ভারতীয়দের। এক্ষেত্রে ভুক্তভোগীদের সাহায্য করতে মরিয়া চেষ্টা করছে ভারত সরকার। প্রায় দু হাজারের বেশি ভারতীয়কে ইতোমধ্যে ইউক্রেন থেকে নিরাপদ অবস্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে এবং তাঁদের অনেকেই ভারতে ফিরে এসেছেন। এমতাবস্থায়, আন্তর্জাতিক ভ্রমণ বিধিতে সংশোধনী আনলো নরেন্দ্র মোদীর সরকার।

২৮ ফেব্রুয়ারী, সোমবার, ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়য়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রণালয়ের সম্মিলিত বৈঠকের পর ভারতের আন্তর্জাতিক ভ্রমণ পরামর্শ সংশোধন বিধি সংশোধন করা হয়েছে।

পরবর্তীতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মানবিক কারণ বিবেচনায় ইউক্রেন থেকে ফেরত আসা ভারতীয়দের জন্য কিছু ছাড়পত্রের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সেগুলো যথাক্রমে,

*বর্তমানে ভারতে প্রবেশের জন্য পূর্ব হতে কিছু বাধ্যতামূলক নথি দাখিল করতে হয়। তন্মধ্যে রয়েছে, প্রি-বোর্ডিং নেগেটিভ আরটি-পিসিআর পরীক্ষার রিপোর্ট, সম্পূর্ণ টিকাযুক্ত শংসাপত্র সহ প্রভৃতি কাগজাদি। ইউক্রেন ফেরতদের জন্য এটি দাখিল করা বাধ্যতামূলক নয় বলে জানানো হয়েছে। ভারতে প্রবেশের পর এসব পরীক্ষা করানো যাবে।

*আগত ভারতীয়দের কাউকেই আইসোলেশনে থাকতে হবেনা বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এক্ষেত্রে তাদেরকে প্রয়োজনীয় সতর্ক বিধি অনুসরণ করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

*তাছাড়া, যদি কোনো আগমনকারী ভারতে আসার ১৪ দিন পরও করোনা পজিটিভ থাকেন, তাহলে তাঁকে প্রয়োজনীয় ক্লিনিক্যাল ট্রীটমেণ্ট নিতে হবে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের দাবি, ইউক্রেনের মোট আটশো জায়গায় হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। দেশের মোট ১৪টি বিমানঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, ১৯ কামান্ড পোস্ট, ২৪ এস-৩০০ বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ও ৪৮ রেডার স্টেশন দখলে নিয়েছে রাশিয়া।

এছাড়া, ইউক্রেনে খাবারের আকাল তীব্র হচ্ছে। বহু জায়গায় জল, বিদ্যুৎ নেই। ন্যাটো ইউক্রেনের পাশে থাকলেও তারা এখনও পর্যন্ত বড় কোনও পদক্ষেপ নিতে পারেনি।

এদিকে, ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর দাবি, ইতিমধ্যেই তারা ৩ হাজার ৫০০ রুশ সেনাকে হত্যা করেছে। বন্দি করেছে ২০০ সেনাকে। পাশাপাশি ১৪টি রুশ যুদ্ধবিমান, ৮ কপ্টার, ১০২টি ট্যাঙ্ক ধ্বংস করেছে।

অন্যদিকে, ইউক্রেন অভিযান মাত্র ২ সপ্তাহেই শেষ করে ফেলতে চান পুতিন। ক্রেমলিন সূত্রে এমনটাই দাবি করেছে এক ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম। শনিবার ইউক্রেনের রকাজধানী কিয়েভে ঢুকেছে রুশ সেনা। স্থানীয় বাসিন্দাদের ঘরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে জেলেনস্কি সরকার।

এমতাবস্থায়, সেখানে আটকে পড়া প্রায় ১৬ হাজার ভারতীয় পড়ুয়া ও প্রবাসী নাগরিকদের ফিরিয়ে আনার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে ভারত সরকার। এজন্য অপারেশন গঙ্গা নামে একটি কর্মসূচিও চালু করেছে দিল্লী। ২৪ ঘন্টা সেবা দিচ্ছে কিয়েভে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাস। খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম ও হেল্পলাইন। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক