০৪:২৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির সাথে মোদীর ফোনালাপ

রুশ হানায় পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপ হচ্ছে ইউক্রেনে। রাজধানী কিয়েভের একাধিক জায়গায় বোমাবর্ষণ করেছে রাশিয়া। একটি শহরও কব্জা করে নিয়েছে পুতিনের বাহিনী। এমতাবস্থায়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে ফোনে কথা বললেন ইউক্রেনের প্রসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কি। ২৬ ফেব্রুয়ারী, শনিবার, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে জাতিসংঘে ভারতের অবস্থানের প্রশংসা করেন জেলেনেস্কি।

পাশাপাশি ইউক্রেনের জনগণের প্রতি মোদীর রাজনৈতিক সমর্থনের জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানান ইউক্রেনের প্রসিডেন্ট। এনিয়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, দেশের পরিস্থিতি প্রধানমন্ত্রী মোদীকে জানিয়েছেন জেলেনেস্কি। ইউক্রেনের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মোদী নিজেও।

একই সঙ্গে, যুদ্ধ ছেড়ে দু দেশকে আলোচনার টেবিলে বসার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী। ইউক্রেনে অবস্থানরত ভারতীয় পড়ুয়াদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়েও কথা স্মরণ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের দাবি, ইউক্রেনের মোট আটশো জায়গায় হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। দেশের মোট ১৪টি বিমানঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, ১৯ কামান্ড পোস্ট, ২৪ এস-৩০০ বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ও ৪৮ রেডার স্টেশন দখলে নিয়েছে রাশিয়া।

এছাড়া, ইউক্রেনে খাবারের আকাল তীব্র হচ্ছে। বহু জায়গায় জল, বিদ্যুৎ নেই। ন্যাটো ইউক্রেনের পাশে থাকলেও তারা এখনও পর্যন্ত বড় কোনও পদক্ষেপ নিতে পারেনি।

এদিকে, ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর দাবি, ইতিমধ্যেই তারা ৩ হাজার ৫০০ রুশ সেনাকে হত্যা করেছে। বন্দি করেছে ২০০ সেনাকে। পাশাপাশি ১৪টি রুশ যুদ্ধবিমান, ৮ কপ্টার, ১০২টি ট্যাঙ্ক ধ্বংস করেছে।

অন্যদিকে, ইউক্রেন অভিযান মাত্র ২ সপ্তাহেই শেষ করে ফেলতে চান পুতিন। ক্রেমলিন সূত্রে এমনটাই দাবি করেছে এক ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম। শনিবার ইউক্রেনের রকাজধানী কিয়েভে ঢুকেছে রুশ সেনা। স্থানীয় বাসিন্দাদের ঘরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে জেলেনস্কি সরকার। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির সাথে মোদীর ফোনালাপ

প্রকাশ: ০৫:১৭:৪১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২

রুশ হানায় পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপ হচ্ছে ইউক্রেনে। রাজধানী কিয়েভের একাধিক জায়গায় বোমাবর্ষণ করেছে রাশিয়া। একটি শহরও কব্জা করে নিয়েছে পুতিনের বাহিনী। এমতাবস্থায়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে ফোনে কথা বললেন ইউক্রেনের প্রসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কি। ২৬ ফেব্রুয়ারী, শনিবার, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে জাতিসংঘে ভারতের অবস্থানের প্রশংসা করেন জেলেনেস্কি।

পাশাপাশি ইউক্রেনের জনগণের প্রতি মোদীর রাজনৈতিক সমর্থনের জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানান ইউক্রেনের প্রসিডেন্ট। এনিয়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, দেশের পরিস্থিতি প্রধানমন্ত্রী মোদীকে জানিয়েছেন জেলেনেস্কি। ইউক্রেনের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মোদী নিজেও।

একই সঙ্গে, যুদ্ধ ছেড়ে দু দেশকে আলোচনার টেবিলে বসার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী। ইউক্রেনে অবস্থানরত ভারতীয় পড়ুয়াদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়েও কথা স্মরণ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের দাবি, ইউক্রেনের মোট আটশো জায়গায় হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। দেশের মোট ১৪টি বিমানঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, ১৯ কামান্ড পোস্ট, ২৪ এস-৩০০ বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ও ৪৮ রেডার স্টেশন দখলে নিয়েছে রাশিয়া।

এছাড়া, ইউক্রেনে খাবারের আকাল তীব্র হচ্ছে। বহু জায়গায় জল, বিদ্যুৎ নেই। ন্যাটো ইউক্রেনের পাশে থাকলেও তারা এখনও পর্যন্ত বড় কোনও পদক্ষেপ নিতে পারেনি।

এদিকে, ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর দাবি, ইতিমধ্যেই তারা ৩ হাজার ৫০০ রুশ সেনাকে হত্যা করেছে। বন্দি করেছে ২০০ সেনাকে। পাশাপাশি ১৪টি রুশ যুদ্ধবিমান, ৮ কপ্টার, ১০২টি ট্যাঙ্ক ধ্বংস করেছে।

অন্যদিকে, ইউক্রেন অভিযান মাত্র ২ সপ্তাহেই শেষ করে ফেলতে চান পুতিন। ক্রেমলিন সূত্রে এমনটাই দাবি করেছে এক ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম। শনিবার ইউক্রেনের রকাজধানী কিয়েভে ঢুকেছে রুশ সেনা। স্থানীয় বাসিন্দাদের ঘরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে জেলেনস্কি সরকার। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক