০৯:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জি-২০ ফোরামে দ্রুত টিকাকরণের দাবি ভারতের

ইন্দোনেশিয়ার সভাপতিত্বে প্রথম জি-২০ অর্থমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় ব্যঙ্কের গভর্নরদের বৈঠকে অংশ নিয়েছে ভারত। ১৭ ফেব্রুয়ারী, বৃহস্পতিবার, ভার্চুয়াল মাধ্যমে গঠনমূলক এই আলোচনায় যোগ দেন ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থ ও কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। বৈঠকে মহামারী পরবর্তী অর্থনীতির রূপান্তরমূলক ও ন্যায়সঙ্গত পুনরুদ্ধারে সম্ভাব্য পদক্ষেপ নিয়ে মতবিনিময় করেন বক্তাগণ।

জানা গিয়েছে, উক্ত বৈঠকে বর্তমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ঝুঁকি এবং স্বাস্থ্য চ্যালেঞ্জ, কোভিড-১৯ মহামারী থেকে পুনরুদ্ধারে সম্ভাব্য নীতি, আন্তর্জাতিক কর, টেকসই অর্থ এবং আর্থিক খাতের সমস্যা সহ বিস্তৃত বিষয়াদিতে আলোচনা হয়েছে।

বৈঠকে বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন এবং মুদ্রাস্ফীতি, সরবরাহ ব্যাহত এবং ভাইরাসের নতুন রূপ সহ বিভিন্ন ঝুঁকি সম্পর্কে কথা বলেছেন ভারতীয় অর্থমন্ত্রী। পাশাপাশি এসব পরিস্থিতির পুনরুদ্ধারে সহায়তা করার জন্য ভ্যাকসিনের দ্রুত এবং ন্যায়সঙ্গত বিতরণের আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি। .

একই সঙ্গে বৈশ্বিক সকল সমস্যার দ্রুত সমাধানে একটি দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণের প্রস্তাবও দিয়েছেন মোদী মন্ত্রীসভার গুরুত্বপূর্ণ এই মন্ত্রী। এসময়, মহামারী সঙ্কট কাটাতে ভারতের নীতিগত প্রস্তুতি সম্পর্কেও কথা বলেছেন নির্মলা।

ভারতের অভ্যন্তরীণ নীতিসমূহ ক্রেডিট গ্যারান্টি, সরাসরি স্থানান্তর, খাদ্য গ্যারান্টি, অর্থনৈতিক উদ্দীপনা প্যাকেজ এবং কাঠামোগত সংস্কারকে ত্বরান্বিত করার মতো পদক্ষেপের মাধ্যমে নাগরিকদের সমর্থন করার উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে বলে জানান তিনি।

নিজ বক্তব্যের শেষাংশে জি-২০ জয়েন্ট ফাইন্যান্স এবং হেলথ টাস্ক ফোর্স গঠনের উপর জোর দেন নির্মলা সীতারামন।

খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

জি-২০ ফোরামে দ্রুত টিকাকরণের দাবি ভারতের

প্রকাশ: ০৪:১৪:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২

ইন্দোনেশিয়ার সভাপতিত্বে প্রথম জি-২০ অর্থমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় ব্যঙ্কের গভর্নরদের বৈঠকে অংশ নিয়েছে ভারত। ১৭ ফেব্রুয়ারী, বৃহস্পতিবার, ভার্চুয়াল মাধ্যমে গঠনমূলক এই আলোচনায় যোগ দেন ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থ ও কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। বৈঠকে মহামারী পরবর্তী অর্থনীতির রূপান্তরমূলক ও ন্যায়সঙ্গত পুনরুদ্ধারে সম্ভাব্য পদক্ষেপ নিয়ে মতবিনিময় করেন বক্তাগণ।

জানা গিয়েছে, উক্ত বৈঠকে বর্তমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ঝুঁকি এবং স্বাস্থ্য চ্যালেঞ্জ, কোভিড-১৯ মহামারী থেকে পুনরুদ্ধারে সম্ভাব্য নীতি, আন্তর্জাতিক কর, টেকসই অর্থ এবং আর্থিক খাতের সমস্যা সহ বিস্তৃত বিষয়াদিতে আলোচনা হয়েছে।

বৈঠকে বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন এবং মুদ্রাস্ফীতি, সরবরাহ ব্যাহত এবং ভাইরাসের নতুন রূপ সহ বিভিন্ন ঝুঁকি সম্পর্কে কথা বলেছেন ভারতীয় অর্থমন্ত্রী। পাশাপাশি এসব পরিস্থিতির পুনরুদ্ধারে সহায়তা করার জন্য ভ্যাকসিনের দ্রুত এবং ন্যায়সঙ্গত বিতরণের আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি। .

একই সঙ্গে বৈশ্বিক সকল সমস্যার দ্রুত সমাধানে একটি দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণের প্রস্তাবও দিয়েছেন মোদী মন্ত্রীসভার গুরুত্বপূর্ণ এই মন্ত্রী। এসময়, মহামারী সঙ্কট কাটাতে ভারতের নীতিগত প্রস্তুতি সম্পর্কেও কথা বলেছেন নির্মলা।

ভারতের অভ্যন্তরীণ নীতিসমূহ ক্রেডিট গ্যারান্টি, সরাসরি স্থানান্তর, খাদ্য গ্যারান্টি, অর্থনৈতিক উদ্দীপনা প্যাকেজ এবং কাঠামোগত সংস্কারকে ত্বরান্বিত করার মতো পদক্ষেপের মাধ্যমে নাগরিকদের সমর্থন করার উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে বলে জানান তিনি।

নিজ বক্তব্যের শেষাংশে জি-২০ জয়েন্ট ফাইন্যান্স এবং হেলথ টাস্ক ফোর্স গঠনের উপর জোর দেন নির্মলা সীতারামন।

খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক