০৪:৩৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেন থেকে নাগরিকদের ফেরাতে তৎপর ভারত

বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরে ইউক্রেনে সম্ভাব্য রুশ হামলাকে কেন্দ্র করে বিশ্বজুড়ে ক্রমশ বাড়ছে উত্তেজনা! এমতাবস্থায়, পূর্ব ইউরোপের দেশটি থেকে নিজেদের নাগরিকদের সরিয়ে নিচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্র। একই পথে পা বাড়িয়েছে ভারতও।

সরকারীভাবে দেয়া ঘোষণায়, ভারতীয়দেরকে অযথা ইউক্রেন না যাবার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। গত ১৫ ফেব্রুয়ারী, মঙ্গলবার, এক বিবৃতির মাধ্যমে পরামর্শটি জারি করে কিয়েভে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাস। একই সঙ্গে, ইউক্রেনে অবস্থানরত ভারতীয় ছাত্রদের সাময়িকভাবে ইউক্রেন ত্যাগের পরামর্শও দেয়া হয়।

কিন্তু, বিমানের অপ্রতুলতার কারণে অনেকেই দেশে ফিরতে চেয়েও ফিরতে পারছেন না৷ কেননা, ইউক্রেন থেকে ভারতে ফেরার বিমান হাতেগোণা৷ ইউক্রেন থেকে ভারত অবধি যে কয়টি বিমান সংস্থার উড়ান বর্তমানে চলছে, সেগুলোর টিকিটের দামও এখন আকাশছোঁয়া৷

এই পরিস্থিতিতে অনেকেই ইউক্রেনে থাকার সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছেন৷ আবার টিকিট না পেয়ে আতঙ্কে ভুগতে শুরু করেছেন বহু পড়ুয়া৷ কিন্তু আতঙ্কিত না হয়ে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বিমানের টিকিট কেটে ভারতে ফেরার নির্দেশ দিলো কিয়েভের ভারতীয় দূতাবাস৷

ভারতীয় দূতাবাসের জারি করা নতুন নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এই মুহূর্তে ইউক্রেনিয়ান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স, এয়ার আরবিয়া, ফ্লাই দুবাই, কাতার এয়ারলাইন্সের বিমান ইউক্রেন থেকে ওঠা-নামা করছে৷ সেগুলোর কোনও একটির টিকিট কেটে ভারতে ফেরার বন্দোবস্ত করুক পড়ুয়ারা৷

চাহিদার কথা মাথায় রেখে আগামী দিনে ইউক্রেনিয়ান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স, এয়ার ইন্ডিয়া ইত্যাদি বিমান চলাচলের সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনাও রয়েছে সরকারের৷ সে সংক্রান্ত তথ্য ভারতীয় দূতাবাসের তরফে যথা সময়ে জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

এছাড়া, আটকে পড়া ভারতীয়দের সহায়তায় পররাষ্ট্র দপ্তরের তরফে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে৷ ২৪ ঘণ্টাই কন্ট্রোল রুম খোলা থাকবে৷ হেল্পলাইনে ফোন করে ভারতীয়রা সহায়তা চাইতে পারবেন৷

উল্লেখ্য, ইউক্রেনে বসবাসকারী ভারতীয়দের সংখ্যা নেহাত কম নয়৷ ভারত থেকে অনেকেই ইউক্রেনে পড়াশোনা করতে যান৷ অন্তত ১৮ হাজার ভারতীয় পড়ুয়া সেখানে আছেন৷ অধিকাংশই মেডিক্যাল বিষয়ে পড়াশোনা করতে যান৷ এছাড়া কর্মসূত্রে বহু ভারতীয় সেখানে থাকেন৷ খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

ইউক্রেন থেকে নাগরিকদের ফেরাতে তৎপর ভারত

প্রকাশ: ০৪:০৮:৫১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২২

বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরে ইউক্রেনে সম্ভাব্য রুশ হামলাকে কেন্দ্র করে বিশ্বজুড়ে ক্রমশ বাড়ছে উত্তেজনা! এমতাবস্থায়, পূর্ব ইউরোপের দেশটি থেকে নিজেদের নাগরিকদের সরিয়ে নিচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্র। একই পথে পা বাড়িয়েছে ভারতও।

সরকারীভাবে দেয়া ঘোষণায়, ভারতীয়দেরকে অযথা ইউক্রেন না যাবার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। গত ১৫ ফেব্রুয়ারী, মঙ্গলবার, এক বিবৃতির মাধ্যমে পরামর্শটি জারি করে কিয়েভে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাস। একই সঙ্গে, ইউক্রেনে অবস্থানরত ভারতীয় ছাত্রদের সাময়িকভাবে ইউক্রেন ত্যাগের পরামর্শও দেয়া হয়।

কিন্তু, বিমানের অপ্রতুলতার কারণে অনেকেই দেশে ফিরতে চেয়েও ফিরতে পারছেন না৷ কেননা, ইউক্রেন থেকে ভারতে ফেরার বিমান হাতেগোণা৷ ইউক্রেন থেকে ভারত অবধি যে কয়টি বিমান সংস্থার উড়ান বর্তমানে চলছে, সেগুলোর টিকিটের দামও এখন আকাশছোঁয়া৷

এই পরিস্থিতিতে অনেকেই ইউক্রেনে থাকার সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছেন৷ আবার টিকিট না পেয়ে আতঙ্কে ভুগতে শুরু করেছেন বহু পড়ুয়া৷ কিন্তু আতঙ্কিত না হয়ে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বিমানের টিকিট কেটে ভারতে ফেরার নির্দেশ দিলো কিয়েভের ভারতীয় দূতাবাস৷

ভারতীয় দূতাবাসের জারি করা নতুন নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এই মুহূর্তে ইউক্রেনিয়ান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স, এয়ার আরবিয়া, ফ্লাই দুবাই, কাতার এয়ারলাইন্সের বিমান ইউক্রেন থেকে ওঠা-নামা করছে৷ সেগুলোর কোনও একটির টিকিট কেটে ভারতে ফেরার বন্দোবস্ত করুক পড়ুয়ারা৷

চাহিদার কথা মাথায় রেখে আগামী দিনে ইউক্রেনিয়ান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স, এয়ার ইন্ডিয়া ইত্যাদি বিমান চলাচলের সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনাও রয়েছে সরকারের৷ সে সংক্রান্ত তথ্য ভারতীয় দূতাবাসের তরফে যথা সময়ে জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

এছাড়া, আটকে পড়া ভারতীয়দের সহায়তায় পররাষ্ট্র দপ্তরের তরফে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে৷ ২৪ ঘণ্টাই কন্ট্রোল রুম খোলা থাকবে৷ হেল্পলাইনে ফোন করে ভারতীয়রা সহায়তা চাইতে পারবেন৷

উল্লেখ্য, ইউক্রেনে বসবাসকারী ভারতীয়দের সংখ্যা নেহাত কম নয়৷ ভারত থেকে অনেকেই ইউক্রেনে পড়াশোনা করতে যান৷ অন্তত ১৮ হাজার ভারতীয় পড়ুয়া সেখানে আছেন৷ অধিকাংশই মেডিক্যাল বিষয়ে পড়াশোনা করতে যান৷ এছাড়া কর্মসূত্রে বহু ভারতীয় সেখানে থাকেন৷ খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক