০৮:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগস্টে চাঁদে পাড়ি দিবে ভারতের ‘চন্দ্রযান-৩’

সফল হয়নি ভারতের চন্দ্রযান-২ অভিযান। তখন থেকেই চন্দ্রযান-৩ নিয়ে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়েছিলো জনমানসে। কিন্তু করোনা আবহে বারবার বাধা পেয়েছে নতুন অভিযানের পরিকল্পনা। অবশেষে সমস্ত বাধাবিপত্তি পেরিয়ে চলতি বছরের আগস্টে চাঁদের উদ্দেশ্যে রওনা দিতে প্রস্তুত চন্দ্রযান-৩। ০৩ ফেব্রুয়ারী, বৃহস্পতিবার, এক লিখিত প্রশ্নের উত্তরে লোকসভায় একথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং।

চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে কী রয়েছে, তা জানতেই মূলত চন্দ্রযান-২ অভিযান করেছিল ইসরো। কিন্তু, সফল হয়নি সেই অভিযান। চাঁদের পিঠে নামার পরই ইসরোর সঙ্গে চন্দ্রযানের যোগাযোগ ছিন্ন হয়ে গিয়েছিলো। আর সেই ব্যর্থতার পর থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছিলো চন্দ্রযান ৩-এর প্রস্তুতি। অবশেষে সফল সমাপ্তি পেতে চলেছে গোটা উদ্যোগটি।

ভারতের কেন্দ্রীয় মহাকাশ বিভাগ জানাচ্ছে, চন্দ্রযান-৩ এর সমস্ত পরীক্ষা নিরীক্ষা প্রায় সম্পূর্ণ। ২০২২ সালের আগস্টেই উৎক্ষেপণ করা হবে চন্দ্রযান-৩। কেনো এই অভিযানে এত বিলম্ব হচ্ছে, এমন প্রশ্নের উত্তরে ভারতের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ড. জিতেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, “কেবল এই অভিযানই নয়, আরও বেশ কিছু পরিকল্পনা বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে অতিমারী আবহে। তবে এবার ইসরো সেই পরিকল্পনাগুলো সফল করতে প্রস্তুত। চলতি বছরে ৮টি লঞ্চ ভেহিকল মিশন, ৭টি মহাকাশযান মিশন এবং ৪টি প্রযুক্তি প্রদর্শনকারী মিশনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে রেখেছে ইসরো।”

কেমন হবে চন্দ্রযান-৩ অভিযান? এ বিষয়ে আগেই বিশদ জানিয়েছিলেন ভারতের বিজ্ঞানীরা। ইসরো জানিয়েছে, নতুন চন্দ্রযানে ল্যান্ডার, রোভার থাকবে। তবে অরবিটার থাকবে না। আগামী বছর চাঁদের মেরুতে অবতরণের উদ্দেশ্যে এটি পাঠানো হবে। যেমনটা হয়েছিল চন্দ্রযান-২ এর ক্ষেত্রে। তবে সেই চেষ্টা তেমন সফল হয়নি। ২০১৯এর ২২ জুলাই চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণের সময় গতির সমস্যা ল্যান্ডার বিক্রম ভেঙে পড়ে। যদিও অরবিটারটি অক্ষত থাকায় তা এখনও সক্রিয়ভাবে কাজ করে চলেছে।

তবে ইসরো ব্যস্ত ‘মিশন গগনযান’ নিয়েও। এটাই প্রথম ভারতের মানব মহাকাশ অভিযান। এই মিশনটিকেও সফল করে তুলতে পারলে ভারত যে মহাকাশ গবেষণায় অনেকটা এগিয়ে যেতে পারবে, তা নিশ্চিত। মহাকাশ রেসে রাশিয়া-আমেরিকার সঙ্গে সম্প্রতি টক্কর নিতে শুরু করেছে চীনও। ফলত, ভারতও দ্রুত নিজেদের মহাকাশ রেসে প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছে। চন্দ্রযান-৩ এবং গগনযানের সাফল্যের কামনা পূর্বক আশায় বুক বাঁধছে ইসরো। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

আগস্টে চাঁদে পাড়ি দিবে ভারতের ‘চন্দ্রযান-৩’

প্রকাশ: ০২:২৮:১৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২

সফল হয়নি ভারতের চন্দ্রযান-২ অভিযান। তখন থেকেই চন্দ্রযান-৩ নিয়ে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়েছিলো জনমানসে। কিন্তু করোনা আবহে বারবার বাধা পেয়েছে নতুন অভিযানের পরিকল্পনা। অবশেষে সমস্ত বাধাবিপত্তি পেরিয়ে চলতি বছরের আগস্টে চাঁদের উদ্দেশ্যে রওনা দিতে প্রস্তুত চন্দ্রযান-৩। ০৩ ফেব্রুয়ারী, বৃহস্পতিবার, এক লিখিত প্রশ্নের উত্তরে লোকসভায় একথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং।

চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে কী রয়েছে, তা জানতেই মূলত চন্দ্রযান-২ অভিযান করেছিল ইসরো। কিন্তু, সফল হয়নি সেই অভিযান। চাঁদের পিঠে নামার পরই ইসরোর সঙ্গে চন্দ্রযানের যোগাযোগ ছিন্ন হয়ে গিয়েছিলো। আর সেই ব্যর্থতার পর থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছিলো চন্দ্রযান ৩-এর প্রস্তুতি। অবশেষে সফল সমাপ্তি পেতে চলেছে গোটা উদ্যোগটি।

ভারতের কেন্দ্রীয় মহাকাশ বিভাগ জানাচ্ছে, চন্দ্রযান-৩ এর সমস্ত পরীক্ষা নিরীক্ষা প্রায় সম্পূর্ণ। ২০২২ সালের আগস্টেই উৎক্ষেপণ করা হবে চন্দ্রযান-৩। কেনো এই অভিযানে এত বিলম্ব হচ্ছে, এমন প্রশ্নের উত্তরে ভারতের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ড. জিতেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, “কেবল এই অভিযানই নয়, আরও বেশ কিছু পরিকল্পনা বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে অতিমারী আবহে। তবে এবার ইসরো সেই পরিকল্পনাগুলো সফল করতে প্রস্তুত। চলতি বছরে ৮টি লঞ্চ ভেহিকল মিশন, ৭টি মহাকাশযান মিশন এবং ৪টি প্রযুক্তি প্রদর্শনকারী মিশনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে রেখেছে ইসরো।”

কেমন হবে চন্দ্রযান-৩ অভিযান? এ বিষয়ে আগেই বিশদ জানিয়েছিলেন ভারতের বিজ্ঞানীরা। ইসরো জানিয়েছে, নতুন চন্দ্রযানে ল্যান্ডার, রোভার থাকবে। তবে অরবিটার থাকবে না। আগামী বছর চাঁদের মেরুতে অবতরণের উদ্দেশ্যে এটি পাঠানো হবে। যেমনটা হয়েছিল চন্দ্রযান-২ এর ক্ষেত্রে। তবে সেই চেষ্টা তেমন সফল হয়নি। ২০১৯এর ২২ জুলাই চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণের সময় গতির সমস্যা ল্যান্ডার বিক্রম ভেঙে পড়ে। যদিও অরবিটারটি অক্ষত থাকায় তা এখনও সক্রিয়ভাবে কাজ করে চলেছে।

তবে ইসরো ব্যস্ত ‘মিশন গগনযান’ নিয়েও। এটাই প্রথম ভারতের মানব মহাকাশ অভিযান। এই মিশনটিকেও সফল করে তুলতে পারলে ভারত যে মহাকাশ গবেষণায় অনেকটা এগিয়ে যেতে পারবে, তা নিশ্চিত। মহাকাশ রেসে রাশিয়া-আমেরিকার সঙ্গে সম্প্রতি টক্কর নিতে শুরু করেছে চীনও। ফলত, ভারতও দ্রুত নিজেদের মহাকাশ রেসে প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছে। চন্দ্রযান-৩ এবং গগনযানের সাফল্যের কামনা পূর্বক আশায় বুক বাঁধছে ইসরো। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক