১১:৫৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

০৯ মাসে ৩৫% বৃদ্ধি পেয়েছে ভারতের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানি

মহামারী পরবর্তী সময়ে ক্রমশ ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ভারতের অর্থনীতি, যার প্রভাব দেখা যাচ্ছে দেশটির বিদ্যমান বাজারের সর্বত্র। এরই ধারাবাহিকতায় ভারতের চলতি অর্থবছরের বিগত নয় মাসে ৩৫% বৃদ্ধি পেয়েছে ভারতের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানি লব্ধ আয়। গত এপ্রিল-ডিসেম্বর নাগাদ প্রায় ৬ বিলিয়ন ডলার সমপরিমাণ অর্থের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানী করেছে দেশটি। যেখানে, বিগত ২০২০-২১ অর্থবছরে উক্ত সময়ে এই আয় ছিলো সাড়ে চার বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

গত ৩০ জানুয়ারী, রবিবার, তথ্যটি নিশ্চিত করে একটি বার্তা দেয় ভারতের শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। প্রকাশিত নোটে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মহামারীর প্রভাব থাকা সত্ত্বেও চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানী লব্ধ আয় বিগত ২০১৭-১৮ অর্থবছরে অর্জিত সর্বকালের সর্বোচ্চ আয় ছাড়িয়ে যেতে প্রস্তুত। উল্লেখ্য, সেবার প্রায় ৭.০২ বিলিয়ন ডলারের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানী করেছিলো ভারত।

জানা গিয়েছে, গত এপ্রিল-ডিসেম্বরে হওয়া রেকর্ড পরিমাণ রপ্তানীর ক্ষেত্রে শীর্ষ গন্তব্য ছিলো ৪৪.৫% যুক্তরাষ্ট্রে, ১৫.৩% চীনে, জাপানে ৬.২%, ভিয়েতনামে ৪% এবং থাইল্যান্ডে প্রায় ৩%। মূলত হিমায়িত মাছ ও চিংড়ি রপ্তানী ছিলো পছন্দের শীর্ষে।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কর্তৃক ২০২০ সালের মে মাসে চালু করা প্রধানমন্ত্রী ‘মৎস্য সম্পদ যোজনা’ থেকে আগামী বছরগুলোতে ১ লক্ষ কোটি টাকার মত্স্য রপ্তানি, অতিরিক্ত ৭০ লক্ষ টন মাছ উৎপাদন এবং ৫৫ লক্ষ কর্মসংস্থানের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। এটি নীল অর্থনীতি বাঁড়াতে ভারতের অন্যতম বৃহৎ বড় বিনিয়োগ। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

০৯ মাসে ৩৫% বৃদ্ধি পেয়েছে ভারতের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানি

প্রকাশ: ০৮:৫০:৩১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২২

মহামারী পরবর্তী সময়ে ক্রমশ ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ভারতের অর্থনীতি, যার প্রভাব দেখা যাচ্ছে দেশটির বিদ্যমান বাজারের সর্বত্র। এরই ধারাবাহিকতায় ভারতের চলতি অর্থবছরের বিগত নয় মাসে ৩৫% বৃদ্ধি পেয়েছে ভারতের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানি লব্ধ আয়। গত এপ্রিল-ডিসেম্বর নাগাদ প্রায় ৬ বিলিয়ন ডলার সমপরিমাণ অর্থের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানী করেছে দেশটি। যেখানে, বিগত ২০২০-২১ অর্থবছরে উক্ত সময়ে এই আয় ছিলো সাড়ে চার বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

গত ৩০ জানুয়ারী, রবিবার, তথ্যটি নিশ্চিত করে একটি বার্তা দেয় ভারতের শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। প্রকাশিত নোটে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মহামারীর প্রভাব থাকা সত্ত্বেও চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানী লব্ধ আয় বিগত ২০১৭-১৮ অর্থবছরে অর্জিত সর্বকালের সর্বোচ্চ আয় ছাড়িয়ে যেতে প্রস্তুত। উল্লেখ্য, সেবার প্রায় ৭.০২ বিলিয়ন ডলারের সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানী করেছিলো ভারত।

জানা গিয়েছে, গত এপ্রিল-ডিসেম্বরে হওয়া রেকর্ড পরিমাণ রপ্তানীর ক্ষেত্রে শীর্ষ গন্তব্য ছিলো ৪৪.৫% যুক্তরাষ্ট্রে, ১৫.৩% চীনে, জাপানে ৬.২%, ভিয়েতনামে ৪% এবং থাইল্যান্ডে প্রায় ৩%। মূলত হিমায়িত মাছ ও চিংড়ি রপ্তানী ছিলো পছন্দের শীর্ষে।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কর্তৃক ২০২০ সালের মে মাসে চালু করা প্রধানমন্ত্রী ‘মৎস্য সম্পদ যোজনা’ থেকে আগামী বছরগুলোতে ১ লক্ষ কোটি টাকার মত্স্য রপ্তানি, অতিরিক্ত ৭০ লক্ষ টন মাছ উৎপাদন এবং ৫৫ লক্ষ কর্মসংস্থানের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। এটি নীল অর্থনীতি বাঁড়াতে ভারতের অন্যতম বৃহৎ বড় বিনিয়োগ। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক