০৯:১০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মহাত্মা গান্ধীর নামে হবে মরিশাসের মেট্রো স্টেশন

মরিশাসের একটি মেট্রো স্টেশন মহাত্মা গান্ধীর নামে হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী প্রবিন্দ জগনাথ। মরিশাসের মেট্রো এক্সপ্রেস প্রকল্পে ভারতের অনবরত সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা হিসেবে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

গত ২০ জানুয়ারী, বৃহস্পতিবার, ভার্চুয়াল বৈঠকে উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে বিস্তর আলোচনায় বসেন ভারত ও মরিশাসের প্রধানমন্ত্রী। সেখানেই এসব কথা জানান প্রবিন্দ জগনাথ।

জগনাথ বলেন, “ভারতের আর্থিক সহায়তা ছাড়া এই মেট্রো প্রকল্প এত দ্রুত কখনও রূপায়িত হতো না। এটা স্বীকার করতে আমাদের কোনও দ্বিধা নেই। ভারতের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা জানাতে আমরা আমাদের একটি প্রধান মেট্রো স্টেশনের নাম মহাত্মা গান্ধী স্টেশন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

এদিন আলোচনাকালে যৌথভাবে মরিশাসে ৪৫ মিলিয়ন ডলারের সামাজিক আবাস প্রকল্প, ৫০০ মিলিয়ন ডলারের ভারতীয় সহায়তায় সোলার প্ল্যান্ট, সিভিল সার্ভিস কলেজ তৈরির প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও মরিশাসের প্রধানমন্ত্রী প্রবিন্দ জগনাথ।

ভারত ও মরিশাসের মধ্যে প্রাণবন্ত উন্নয়নমূলক অংশীদারিত্বের অঙ্গ হিসেবে এই প্রকল্প রূপায়িত হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর। মরিশাসে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় প্রাঙ্গনে সে দেশের ক্যাবিনেট মন্ত্রী ও উচ্চপদস্থ সরকারি আধিকারিকদের উপস্থিতিতে এই কর্মসূচি আয়োজিত হয়।

দু দেশের মধ্যে নানা উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে এদিন। দু দেশের মধ্যে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক ও ভারত মহাসাগর ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিবিড় মেলবন্ধন রয়েছে দু দেশের মধ্যে। এদিন সেকথাও তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

মরিশাসে কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদী মিত্র দেশগুলোর সার্বভৌমত্বের প্রতি সম্মান ও তাদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক ক্ষেত্রে ভারতের সাহায্যের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, “এই দেশগুলোর সাধারণ মানুষের কল্যাণ ও দক্ষতা বৃদ্ধিতে ভারত সবরকম সাহায্য দিয়ে থাকে।”

দেশ গঠনে সিভিল সার্ভিস কলেজের গুরুত্বের কথা স্বীকার করে প্রধানমন্ত্রী ‘মিশন কর্মযোগী’ সংক্রান্ত জ্ঞান আদান-প্রদানের প্রস্তাব দেন। তিনি এক সূর্য, এক বিশ্ব, এক গ্রীড উদ্যোগের কথা স্মরণ করে ২০১৮-র অক্টোবরে আন্তর্জাতিক সৌর জোটের প্রথম অধিবেশনের প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন। এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, “আট মেগাওয়াট ক্ষমতা বিশিষ্ট সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রটি জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যা মোকাবিলায় এবং ১৩ হাজার টন কার্বন ডাই অক্সাইড নির্গমন কমাতে মরিশাসকে সাহায্য করবে।”

মোদী জানিয়েছেন, “২০১৫ সালে মরিশাস সফরের সময় সাগর প্রকল্পের ব্যাপারে আমাদের কথাবার্তা হয়েছিল। SAGAR অর্থে Security and Growth for all in the region।”

মোদী জানিয়েছেন আগামী দিনে ফরেনসিক সায়েন্স ল্যাব, মরিশাস পুলিশ একাডেমি সহ বিভিন্ন প্রকল্পে মরিশাসের পাশে থাকবে ভারত।

প্রসঙ্গত, ভারত সরকার ২০১৬-র মে মাসে মরিশাসে পাঁচটি প্রকল্প রূপায়নের জন্য বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের অঙ্গ হিসেবে ৩৫৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আর্থিক অনুদান দেয়। এই পাঁচটি প্রকল্প হল – মেট্রো এক্সপ্রেস প্রোজেক্ট, সুপ্রিমকোর্টের ভবন, নতুন ইএনটি হাসপাতাল, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের জন্য ডিজিটাল ট্যাবলেট সরবরাহ এবং সামাজিক আবাসন ইউনিট। আজ সামাজিক আবাসন ইউনিটের সূচনার ফলে বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের অঙ্গ হিসেবে গৃহীত সবকটি কর্মসূচির রূপায়ন বাস্তবায়িত হল।

উল্লেখ্য, ভারত ও মরিশাসের মধ্যে অভিন্ন ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক ও ভাষাগত সম্পর্ক রয়েছে। আর এগুলো সবই দুই দেশের বিশেষ উন্নয়নমূলক অংশীদারিত্বে প্রতিফলিত হয়। একই ভাবে মরিশাস ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে ভারতের গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়নমূলক অংশীদার দেশ। আজকের এই অনুষ্ঠান সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস, সবকা প্রয়াসের মানসিকতার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত, যা এই দুই দেশের মধ্যে সফল ও কালোত্তীর্ণ অংশীদারিত্বের আরও একটি মাইলফলক বলে জানিয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

মহাত্মা গান্ধীর নামে হবে মরিশাসের মেট্রো স্টেশন

প্রকাশ: ০৩:৩৭:১১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২

মরিশাসের একটি মেট্রো স্টেশন মহাত্মা গান্ধীর নামে হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী প্রবিন্দ জগনাথ। মরিশাসের মেট্রো এক্সপ্রেস প্রকল্পে ভারতের অনবরত সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা হিসেবে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

গত ২০ জানুয়ারী, বৃহস্পতিবার, ভার্চুয়াল বৈঠকে উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে বিস্তর আলোচনায় বসেন ভারত ও মরিশাসের প্রধানমন্ত্রী। সেখানেই এসব কথা জানান প্রবিন্দ জগনাথ।

জগনাথ বলেন, “ভারতের আর্থিক সহায়তা ছাড়া এই মেট্রো প্রকল্প এত দ্রুত কখনও রূপায়িত হতো না। এটা স্বীকার করতে আমাদের কোনও দ্বিধা নেই। ভারতের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা জানাতে আমরা আমাদের একটি প্রধান মেট্রো স্টেশনের নাম মহাত্মা গান্ধী স্টেশন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

এদিন আলোচনাকালে যৌথভাবে মরিশাসে ৪৫ মিলিয়ন ডলারের সামাজিক আবাস প্রকল্প, ৫০০ মিলিয়ন ডলারের ভারতীয় সহায়তায় সোলার প্ল্যান্ট, সিভিল সার্ভিস কলেজ তৈরির প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও মরিশাসের প্রধানমন্ত্রী প্রবিন্দ জগনাথ।

ভারত ও মরিশাসের মধ্যে প্রাণবন্ত উন্নয়নমূলক অংশীদারিত্বের অঙ্গ হিসেবে এই প্রকল্প রূপায়িত হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর। মরিশাসে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় প্রাঙ্গনে সে দেশের ক্যাবিনেট মন্ত্রী ও উচ্চপদস্থ সরকারি আধিকারিকদের উপস্থিতিতে এই কর্মসূচি আয়োজিত হয়।

দু দেশের মধ্যে নানা উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে এদিন। দু দেশের মধ্যে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক ও ভারত মহাসাগর ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিবিড় মেলবন্ধন রয়েছে দু দেশের মধ্যে। এদিন সেকথাও তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

মরিশাসে কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদী মিত্র দেশগুলোর সার্বভৌমত্বের প্রতি সম্মান ও তাদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক ক্ষেত্রে ভারতের সাহায্যের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, “এই দেশগুলোর সাধারণ মানুষের কল্যাণ ও দক্ষতা বৃদ্ধিতে ভারত সবরকম সাহায্য দিয়ে থাকে।”

দেশ গঠনে সিভিল সার্ভিস কলেজের গুরুত্বের কথা স্বীকার করে প্রধানমন্ত্রী ‘মিশন কর্মযোগী’ সংক্রান্ত জ্ঞান আদান-প্রদানের প্রস্তাব দেন। তিনি এক সূর্য, এক বিশ্ব, এক গ্রীড উদ্যোগের কথা স্মরণ করে ২০১৮-র অক্টোবরে আন্তর্জাতিক সৌর জোটের প্রথম অধিবেশনের প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন। এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, “আট মেগাওয়াট ক্ষমতা বিশিষ্ট সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রটি জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যা মোকাবিলায় এবং ১৩ হাজার টন কার্বন ডাই অক্সাইড নির্গমন কমাতে মরিশাসকে সাহায্য করবে।”

মোদী জানিয়েছেন, “২০১৫ সালে মরিশাস সফরের সময় সাগর প্রকল্পের ব্যাপারে আমাদের কথাবার্তা হয়েছিল। SAGAR অর্থে Security and Growth for all in the region।”

মোদী জানিয়েছেন আগামী দিনে ফরেনসিক সায়েন্স ল্যাব, মরিশাস পুলিশ একাডেমি সহ বিভিন্ন প্রকল্পে মরিশাসের পাশে থাকবে ভারত।

প্রসঙ্গত, ভারত সরকার ২০১৬-র মে মাসে মরিশাসে পাঁচটি প্রকল্প রূপায়নের জন্য বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের অঙ্গ হিসেবে ৩৫৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আর্থিক অনুদান দেয়। এই পাঁচটি প্রকল্প হল – মেট্রো এক্সপ্রেস প্রোজেক্ট, সুপ্রিমকোর্টের ভবন, নতুন ইএনটি হাসপাতাল, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের জন্য ডিজিটাল ট্যাবলেট সরবরাহ এবং সামাজিক আবাসন ইউনিট। আজ সামাজিক আবাসন ইউনিটের সূচনার ফলে বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের অঙ্গ হিসেবে গৃহীত সবকটি কর্মসূচির রূপায়ন বাস্তবায়িত হল।

উল্লেখ্য, ভারত ও মরিশাসের মধ্যে অভিন্ন ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক ও ভাষাগত সম্পর্ক রয়েছে। আর এগুলো সবই দুই দেশের বিশেষ উন্নয়নমূলক অংশীদারিত্বে প্রতিফলিত হয়। একই ভাবে মরিশাস ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে ভারতের গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়নমূলক অংশীদার দেশ। আজকের এই অনুষ্ঠান সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস, সবকা প্রয়াসের মানসিকতার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত, যা এই দুই দেশের মধ্যে সফল ও কালোত্তীর্ণ অংশীদারিত্বের আরও একটি মাইলফলক বলে জানিয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক