০৩:৩৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শেষ হলো ভারত-যুক্তরাজ্য মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির প্রথম দফা আলোচনা

মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির (এফটিএ) লক্ষ্যে প্রথম দফা আলোচনা শেষ করেছে যুক্তরাজ্য এবং ভারত। চলতি বছরের শুরুর দিকে আনুষ্ঠানিকভাবে আলোচনা শুরু করে দেশ দুটো। এরপর প্রায় দু সপ্তাহ ধরে চলে মতবিনিময়। উক্ত সময়কালে প্রায় ৩২ টি পৃথক সেশনে একত্রিত হয় উভয় দেশের বাণিজ্য ও প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা। আলোচনা শেষে এক যৌথ বিবৃতির মাধ্যমে সম্পূর্ণ অগ্রগতি তুলে ধরা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, আলোচনাকালে পণ্যের বাণিজ্য, আর্থিক পরিষেবা এবং টেলিযোগাযোগ সহ পরিষেবাগুলোতে বাণিজ্য, বিনিয়োগ, বৌদ্ধিক সম্পত্তি, শুল্ক ও বাণিজ্য সুবিধা, স্যানিটারি ও ফাইটোস্যানিটারি ব্যবস্থা, বাণিজ্যের প্রযুক্তিগত বাধা, প্রতিযোগিতা স্বচ্ছতা, বাণিজ্য ও উন্নয়ন, ভৌগলিক সূচক এবং ডিজিটাল প্রযুক্তি, লিঙ্গ, সরকারী সংগ্রহ, এসএমই সহ প্রায় ২৬ টি ক্ষেত্র নিয়ে মতবিনিময় করা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “বিশ্বের পঞ্চম ও ষষ্ঠ বৃহত্তম অর্থনীতির মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য এক বিস্তৃত চুক্তি স্বাক্ষর করতে এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ইতিবাচক অগ্রগতি সাধিত হয়েছে।”

করোনা মহামারীর চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও আলোচনাটি সফলভাবে শেষ করতে পারায় উভয় পক্ষই নিজেদের সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। আগামী ০৭ থেকে ১৮ মার্চ পর্যন্ত বারো দিন ব্যাপী দ্বিতীয় দফা আলোচনা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০২২ সালের শেষ নাগাদ মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির আলোচনা শেষ করার জন্য কাজ করে চলেছে ভারত ও যুক্তরাজ্যের প্রতিনিধিগণ। গতবছর ভারত ও যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীদের যৌথভাবে ঘোষণা করা রোডম্যাপ-২০৩০ এর আওতায় এসব কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

শেষ হলো ভারত-যুক্তরাজ্য মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির প্রথম দফা আলোচনা

প্রকাশ: ০৭:৪১:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২

মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির (এফটিএ) লক্ষ্যে প্রথম দফা আলোচনা শেষ করেছে যুক্তরাজ্য এবং ভারত। চলতি বছরের শুরুর দিকে আনুষ্ঠানিকভাবে আলোচনা শুরু করে দেশ দুটো। এরপর প্রায় দু সপ্তাহ ধরে চলে মতবিনিময়। উক্ত সময়কালে প্রায় ৩২ টি পৃথক সেশনে একত্রিত হয় উভয় দেশের বাণিজ্য ও প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা। আলোচনা শেষে এক যৌথ বিবৃতির মাধ্যমে সম্পূর্ণ অগ্রগতি তুলে ধরা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, আলোচনাকালে পণ্যের বাণিজ্য, আর্থিক পরিষেবা এবং টেলিযোগাযোগ সহ পরিষেবাগুলোতে বাণিজ্য, বিনিয়োগ, বৌদ্ধিক সম্পত্তি, শুল্ক ও বাণিজ্য সুবিধা, স্যানিটারি ও ফাইটোস্যানিটারি ব্যবস্থা, বাণিজ্যের প্রযুক্তিগত বাধা, প্রতিযোগিতা স্বচ্ছতা, বাণিজ্য ও উন্নয়ন, ভৌগলিক সূচক এবং ডিজিটাল প্রযুক্তি, লিঙ্গ, সরকারী সংগ্রহ, এসএমই সহ প্রায় ২৬ টি ক্ষেত্র নিয়ে মতবিনিময় করা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “বিশ্বের পঞ্চম ও ষষ্ঠ বৃহত্তম অর্থনীতির মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য এক বিস্তৃত চুক্তি স্বাক্ষর করতে এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ইতিবাচক অগ্রগতি সাধিত হয়েছে।”

করোনা মহামারীর চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও আলোচনাটি সফলভাবে শেষ করতে পারায় উভয় পক্ষই নিজেদের সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। আগামী ০৭ থেকে ১৮ মার্চ পর্যন্ত বারো দিন ব্যাপী দ্বিতীয় দফা আলোচনা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০২২ সালের শেষ নাগাদ মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির আলোচনা শেষ করার জন্য কাজ করে চলেছে ভারত ও যুক্তরাজ্যের প্রতিনিধিগণ। গতবছর ভারত ও যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীদের যৌথভাবে ঘোষণা করা রোডম্যাপ-২০৩০ এর আওতায় এসব কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক