০৩:৫৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানের তেরি মন্দির পরিদর্শনে ভারতের ১৬০ তীর্থযাত্রী

পাকিস্তানের শতাব্দী প্রাচীন তেরি মন্দির পরিদর্শনে যাচ্ছেন ১৬০ ভারতীয় তীর্থযাত্রী। ০১ জানুয়ারী, ২০২২, নতুন বছরের প্রথমদিনেই ওয়াঘা-আটারি সীমান্ত দিয়ে পাকিস্তানে প্রবেশ করবেন তারা।
পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের করক জেলার তেরি গ্রামের এই প্রাচীন শ্রী সন্ত পরমহংসজি মন্দিরটি সাম্প্রতিক সময়ে নানা কারণে ছিলো আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। গত ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে মন্দিরটিতে ভাংচুর করে পাকিস্তানের কট্টরপন্থী ইসলামী সংগঠন জমিয়ত উলামা ইসলাম – ফজল। এরপর দেশটির বিচারপতির নির্দেশে পুনরায় মন্দিরটির নির্মাণ ও সংস্কার করা হয়।
গত ৩০ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার, পাকিস্তানের বিখ্যাত ডন পত্রিকা জানায়, পাকিস্তানের হিন্দু কাউন্সিল কর্তৃক ভারত, যুক্তরাষ্ট্র এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে মোট ২৫০ জন হিন্দুকে মন্দির পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানানো হিয়েছিলো। পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের সহযোগিতায় প্রোগ্রামটি আয়োজন করছিলো তারা।
এদিকে, পাকিস্তানের এমন অনুষ্ঠান পরিকল্পনার সমালোচনা জানায় ভারত। নয়াদিল্লীর ভাষ্যমতে, পাকিস্তান একটি অস্বচ্ছ উপায়ে মন্দির পরিদর্শনের জন্য ভারত থেকে গুটিকয়েক লোককে আমন্ত্রণ করছিলো।
ভারতের প্রতিবাদের পরই আমন্ত্রিত তীর্থযাত্রীদের নির্বাচিত করার ভার ভারতীয় সংগঠকদের হাতে ন্যস্ত করা হয়।
উল্লেখ্য, বরাবরের মতোই তীর্থযাত্রীদের সমস্ত খরচা ভারত সরকার বহন করবে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক
ট্যাগ:

পাকিস্তানের তেরি মন্দির পরিদর্শনে ভারতের ১৬০ তীর্থযাত্রী

প্রকাশ: ০৫:৩২:৩৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১ জানুয়ারী ২০২২
পাকিস্তানের শতাব্দী প্রাচীন তেরি মন্দির পরিদর্শনে যাচ্ছেন ১৬০ ভারতীয় তীর্থযাত্রী। ০১ জানুয়ারী, ২০২২, নতুন বছরের প্রথমদিনেই ওয়াঘা-আটারি সীমান্ত দিয়ে পাকিস্তানে প্রবেশ করবেন তারা।
পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের করক জেলার তেরি গ্রামের এই প্রাচীন শ্রী সন্ত পরমহংসজি মন্দিরটি সাম্প্রতিক সময়ে নানা কারণে ছিলো আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। গত ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে মন্দিরটিতে ভাংচুর করে পাকিস্তানের কট্টরপন্থী ইসলামী সংগঠন জমিয়ত উলামা ইসলাম – ফজল। এরপর দেশটির বিচারপতির নির্দেশে পুনরায় মন্দিরটির নির্মাণ ও সংস্কার করা হয়।
গত ৩০ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার, পাকিস্তানের বিখ্যাত ডন পত্রিকা জানায়, পাকিস্তানের হিন্দু কাউন্সিল কর্তৃক ভারত, যুক্তরাষ্ট্র এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে মোট ২৫০ জন হিন্দুকে মন্দির পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানানো হিয়েছিলো। পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের সহযোগিতায় প্রোগ্রামটি আয়োজন করছিলো তারা।
এদিকে, পাকিস্তানের এমন অনুষ্ঠান পরিকল্পনার সমালোচনা জানায় ভারত। নয়াদিল্লীর ভাষ্যমতে, পাকিস্তান একটি অস্বচ্ছ উপায়ে মন্দির পরিদর্শনের জন্য ভারত থেকে গুটিকয়েক লোককে আমন্ত্রণ করছিলো।
ভারতের প্রতিবাদের পরই আমন্ত্রিত তীর্থযাত্রীদের নির্বাচিত করার ভার ভারতীয় সংগঠকদের হাতে ন্যস্ত করা হয়।
উল্লেখ্য, বরাবরের মতোই তীর্থযাত্রীদের সমস্ত খরচা ভারত সরকার বহন করবে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক