০৯:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্টার্টআপ হাবে পরিণত হয়েছে

ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্টার্টআপ হাবে পরিণত হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। গত ২৮ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার, আইআইটি কানপুরের ৫৪ তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এই ঘোষণা দেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, “স্বাধীনতার ৭৫ তম বর্ষে আমাদের কাছে ৭৫ টি ইউনিকর্ন রয়েছে ও ৫০ হাজার স্টার্ট আপ সংস্থা রয়েছে ৷ গত ছয় মাসে ১০ হাজার স্টার্ট আপ তৈরি হয়েছে ৷ ভারত এখন সারা বিশ্বে স্টার্ট আপের ক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ৷ আইআইটির পড়ুয়াদের সাহায্যেই এটা সম্ভব হয়েছে।”

এসময়, আইআইটি কানপুরের কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন মোদী। সারা বিশ্বে স্বীকৃতি পাওয়া ৫জি প্রযুক্তি যে কানপুর আইআইটির আবিষ্কার, সেটাও মনে করিয়ে দেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী ৷ ভারতের স্বাধীনতার শতবর্ষের দিকে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে বর্তমান সময়ের পড়ুয়াদের অনেক বড় অবদান থাকবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি৷

কানপুর আইআইটির মঞ্চ থেকে প্রযুক্তির অগ্রগতি নিয়ে একাধিক বার্তা দেন মোদী। তিনি বলেন, “এই দশকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রযুক্তি নিজের দাপট আরও বাড়িয়ে চলবে। সেদিক থেকে প্রযুক্তি বিনা জীবন কার্যত অসম্ভব।” একই সঙ্গে মানবতার জয়গানও করেন মোদী। বলেন, “প্রযুক্তিকে জয় করুন, তবে রোবট হয়ে যাবেন না।”

মোদী বলেন, “গত ৭ বছরে, শিক্ষার্থীদের সাহায্য করার জন্য কেন্দ্রের দ্বারা বেশ কয়েকটি প্রোগ্রাম চালু করা হয়েছে। জাতীয় শিক্ষা নীতির সাহায্যে তরুণদের আরও দক্ষতার সঙ্গে বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে।”

আলোচনাকালে কিছুটা আক্ষেপের সুরে মোদী বলেন, “স্বাধীনতার ২৫ বছরের মধ্যেই অনেক কিছু হয়ে যাওয়া উচিত ছিল ৷ কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ভাবে তা হয়নি৷ তাই এখন দু মিনিটও সময় নষ্ট করা উচিত নয়৷”

আত্মনির্ভর ভারত গড়ার আহ্বান তিনি আরও একবার জানিয়েছেন ওই সমাবর্তনের মঞ্চ থেকে৷ অনুষ্ঠানে একটি ব্লকচেইন নির্ভর ডিজিটাল ডিগ্রির উদ্বোধন করেছেন মোদী৷ খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্টার্টআপ হাবে পরিণত হয়েছে

প্রকাশ: ০৫:৩৩:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১

ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্টার্টআপ হাবে পরিণত হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। গত ২৮ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার, আইআইটি কানপুরের ৫৪ তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এই ঘোষণা দেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, “স্বাধীনতার ৭৫ তম বর্ষে আমাদের কাছে ৭৫ টি ইউনিকর্ন রয়েছে ও ৫০ হাজার স্টার্ট আপ সংস্থা রয়েছে ৷ গত ছয় মাসে ১০ হাজার স্টার্ট আপ তৈরি হয়েছে ৷ ভারত এখন সারা বিশ্বে স্টার্ট আপের ক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ৷ আইআইটির পড়ুয়াদের সাহায্যেই এটা সম্ভব হয়েছে।”

এসময়, আইআইটি কানপুরের কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন মোদী। সারা বিশ্বে স্বীকৃতি পাওয়া ৫জি প্রযুক্তি যে কানপুর আইআইটির আবিষ্কার, সেটাও মনে করিয়ে দেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী ৷ ভারতের স্বাধীনতার শতবর্ষের দিকে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে বর্তমান সময়ের পড়ুয়াদের অনেক বড় অবদান থাকবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি৷

কানপুর আইআইটির মঞ্চ থেকে প্রযুক্তির অগ্রগতি নিয়ে একাধিক বার্তা দেন মোদী। তিনি বলেন, “এই দশকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রযুক্তি নিজের দাপট আরও বাড়িয়ে চলবে। সেদিক থেকে প্রযুক্তি বিনা জীবন কার্যত অসম্ভব।” একই সঙ্গে মানবতার জয়গানও করেন মোদী। বলেন, “প্রযুক্তিকে জয় করুন, তবে রোবট হয়ে যাবেন না।”

মোদী বলেন, “গত ৭ বছরে, শিক্ষার্থীদের সাহায্য করার জন্য কেন্দ্রের দ্বারা বেশ কয়েকটি প্রোগ্রাম চালু করা হয়েছে। জাতীয় শিক্ষা নীতির সাহায্যে তরুণদের আরও দক্ষতার সঙ্গে বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে।”

আলোচনাকালে কিছুটা আক্ষেপের সুরে মোদী বলেন, “স্বাধীনতার ২৫ বছরের মধ্যেই অনেক কিছু হয়ে যাওয়া উচিত ছিল ৷ কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ভাবে তা হয়নি৷ তাই এখন দু মিনিটও সময় নষ্ট করা উচিত নয়৷”

আত্মনির্ভর ভারত গড়ার আহ্বান তিনি আরও একবার জানিয়েছেন ওই সমাবর্তনের মঞ্চ থেকে৷ অনুষ্ঠানে একটি ব্লকচেইন নির্ভর ডিজিটাল ডিগ্রির উদ্বোধন করেছেন মোদী৷ খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক