০৫:১৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারীদের জন্য নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে ভারত

ডেল্টার পর এবার নয়া আতঙ্কের নাম ‘ওমিক্রন’। ভারতে করোনার নতুন সংক্রমণ ঠেকাতে তৎপর প্রশাসন। এবার আন্তর্জাতিক বিমান সফরে নয়া নির্দেশিকা জারি করলো ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। জানানো হয়েছে, আন্তর্জাতিক বিমানে দেশে ঢোকার আগে যাত্রীকে বিগত ১৪ দিনের যাতায়াতের বিস্তারিত এবং আরটি-পিসিআর এর নেগেটিভ রিপোর্ট আপলোড করতে হবে এয়ার-সুবিধা পোর্টালে। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হচ্ছে এই নতুন নিয়ম।

 

‘Countries at-risk’ অর্থাৎ সংক্রমণের নিরিখে ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলো থেকে আসা যাত্রীদের ক্ষেত্রে থাকছে বেশকিছু বিধি-নিষেধ। ফ্লাইট গাইডেন্স শীর্ষক এই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এয়ারপোর্টে পৌঁছনোর পর সংশ্লিষ্ট যাত্রীদের কোভিড টেস্ট করাতে হবে এবং রিপোর্ট না মেলা পর্যন্ত এয়ারপোর্টেই অপেক্ষা করতে হবে।

 

কেন্দ্রের তরফে বলা হয়েছে, এবার ওই যাত্রীদের রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তাঁদের ৭ দিনের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হবে। এর পর অষ্টম দিনে ফের টেস্ট। এই রিপোর্টও নেগেটিভ হলে পরের ৭ দিন নিজের ওপর নজর রাখতে হবে। এই ধাপ পার করে তবেই স্বাভাবিক ঘোরাফেরায় অনুমতি পাবেন সংশ্লিষ্ট যাত্রী।

 

ক্রিস্টমাস থেকে নিউইয়ার, বিশ্বজুড়ে উত্‍সবের মরশুম আসার আগেই ফের চোখ রাঙাতে শুরু করেছে করোনার নতুন সংক্রমণ! ওমিক্রন নিয়ে ইতিমধ্যেই একাধিক নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র। সমস্ত রাজ্য-কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে চিঠি দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব।

 

সংক্রমণ ঠেকাতে নিয়ন্ত্রণবিধি আরও কঠোরভাবে পালনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে নজরদারি বাড়াতে নির্দেশ কেন্দ্রেরও। ভ্যাকসিনেশন আরও বাড়াতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছে মোদী সরকার। ব্যাঙ্গালোরে দুই দক্ষিণ আফ্রিকা ফেরত যাত্রীর দেহে করোনার হদিশ মেলে। পরীক্ষায় আক্রান্তদের শরীরে মিলেছে ডেল্টা ভাইরাস। ইতিমধ্যেই দুই আক্রান্তকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। উল্লেখ্য, তামিলনাড়ুতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৭৩৬ জন। ৯ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে।

 

জনগণ যদি লকডাউন না চান সে ক্ষেত্রে সমস্ত কোভিড বিধিনিষেধ কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে, রবিবার স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে একটি বৈঠকের পরে এমনটাই জানিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। পাশাপাশি রাজ্যে আগত সমস্ত আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারীদের উপর নজর রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে নভেম্বরের শেষ দিকে ফের করোনার সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে চীনে। আমেরিকাতেও ফের হু হু করে বাড়ছে দৈনিক সংক্রমণ। ফের লকডাউনের পথে হাঁটতে চলেছে অস্ট্রিয়া, জার্মানি।

সবার প্রথমে ‘ওমিক্রন’-এর সংক্রমণের হদিশ পাওয়া গেছে দক্ষিণ আফ্রিকায়। তারপর কয়েক দিনের মধ্যেই বৎসোয়ানা, হংকং, ইজরায়েল, বেলজিয়াম ও ব্রিটেনে মিলেছে এই ভাইরাসের নতুন প্রজাতির হদিশ।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে ‘ওমিক্রন’ ভ্যারিয়েন্ট। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের থেকে ওমিক্রন অনেক বেশি সংক্রামক। এর জেরে সংক্রমণের আরেকটি ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে।

সূত্রের খবর, ১৬ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় যেখানে করোনা ভাইরাসের নতুন প্রজাতি ‘ওমিক্রন’ -এ সংক্রমিতের সংখ্যা ছিল ৩০০-র কাছাকাছি, ২৫ নভেম্বর তা বেড়ে দাঁড়ায় ১ হাজার ২০০-তে!

ইতিমধ্যেই বিশ্বের নানা দেশে ছড়াতে শুরু করেছে করোনার এই নতুন প্রজাতির ভাইরাস। জার্মানির সংবাদ সংস্থা DPA জানাচ্ছে, ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা দুই পর্যটকের শরীরে প্রাথমিকভাবে ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণের হদিশ মিলেছে। দুজনেরই নমুনা জেনোমিক সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, বাংলাদেশে এখনো করোনাভাইরাসের নতুন ধরণ ওমিক্রন শনাক্ত হয়নি। এরপরও দেশটিকে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করে ভ্রমণে অতিরিক্ত কড়াকড়ি আরোপ করেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। এমনকি পূর্ণডোজ টিকা নেওয়া ভ্রমণকারীদের জন্য যে ছাড় দেওয়া হচ্ছিল, সেটিও বাতিল করা হয়েছে। গত রোববার (২৮ নভেম্বর) নতুন এসব নির্দেশনা জারি করেছে ভারত সরকার।

দীর্ঘ ২০ মাসেরও বেশি সময় পর গত ২৬ নভেম্বর আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক ফ্লাইট ফের শুরুর ঘোষণা দিয়েছিল ভারতীয় প্রশাসন। আগামী ১৫ ডিসেম্বর থেকে এসব ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক হওয়ার কথা ছিল। বর্তমানে দ্বিপাক্ষিক এয়ার বাবল চুক্তির আওতায় বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশের সঙ্গে সীমিত সংখ্যক ফ্লাইট চালু রয়েছে ভারতের।

‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশ কারা? চলতি মাসের শুরুর দিকে ওমিক্রন প্রথম শনাক্ত হয় দক্ষিণ আফ্রিকায়। এরপর তা ছড়িয়ে পড়েছে আরও কয়েকটি দেশে। ওমিক্রন ধরা পড়া দেশগুলোর পাশাপাশি আরও কয়েকটি দেশকে আন্তর্জাতিক ভ্রমণের ক্ষেত্রে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে ভারত।

ভারত সরকারের নির্দেশনা অনুসারে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশের তালিকায় রয়েছে, যুক্তরাজ্য, গোটা ইউরোপ এবং আরও ১১টি দেশ বা অঞ্চল; সেগুলো হলো- বাংলাদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা, ব্রাজিল, বতসোয়ানা, চীন, মরিশাস, নিউজিল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে, সিঙ্গাপুর, হংকং ও ইসরায়েল। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারীদের জন্য নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে ভারত

প্রকাশ: ০৭:৩৬:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১

ডেল্টার পর এবার নয়া আতঙ্কের নাম ‘ওমিক্রন’। ভারতে করোনার নতুন সংক্রমণ ঠেকাতে তৎপর প্রশাসন। এবার আন্তর্জাতিক বিমান সফরে নয়া নির্দেশিকা জারি করলো ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। জানানো হয়েছে, আন্তর্জাতিক বিমানে দেশে ঢোকার আগে যাত্রীকে বিগত ১৪ দিনের যাতায়াতের বিস্তারিত এবং আরটি-পিসিআর এর নেগেটিভ রিপোর্ট আপলোড করতে হবে এয়ার-সুবিধা পোর্টালে। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হচ্ছে এই নতুন নিয়ম।

 

‘Countries at-risk’ অর্থাৎ সংক্রমণের নিরিখে ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলো থেকে আসা যাত্রীদের ক্ষেত্রে থাকছে বেশকিছু বিধি-নিষেধ। ফ্লাইট গাইডেন্স শীর্ষক এই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এয়ারপোর্টে পৌঁছনোর পর সংশ্লিষ্ট যাত্রীদের কোভিড টেস্ট করাতে হবে এবং রিপোর্ট না মেলা পর্যন্ত এয়ারপোর্টেই অপেক্ষা করতে হবে।

 

কেন্দ্রের তরফে বলা হয়েছে, এবার ওই যাত্রীদের রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তাঁদের ৭ দিনের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হবে। এর পর অষ্টম দিনে ফের টেস্ট। এই রিপোর্টও নেগেটিভ হলে পরের ৭ দিন নিজের ওপর নজর রাখতে হবে। এই ধাপ পার করে তবেই স্বাভাবিক ঘোরাফেরায় অনুমতি পাবেন সংশ্লিষ্ট যাত্রী।

 

ক্রিস্টমাস থেকে নিউইয়ার, বিশ্বজুড়ে উত্‍সবের মরশুম আসার আগেই ফের চোখ রাঙাতে শুরু করেছে করোনার নতুন সংক্রমণ! ওমিক্রন নিয়ে ইতিমধ্যেই একাধিক নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র। সমস্ত রাজ্য-কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে চিঠি দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব।

 

সংক্রমণ ঠেকাতে নিয়ন্ত্রণবিধি আরও কঠোরভাবে পালনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে নজরদারি বাড়াতে নির্দেশ কেন্দ্রেরও। ভ্যাকসিনেশন আরও বাড়াতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছে মোদী সরকার। ব্যাঙ্গালোরে দুই দক্ষিণ আফ্রিকা ফেরত যাত্রীর দেহে করোনার হদিশ মেলে। পরীক্ষায় আক্রান্তদের শরীরে মিলেছে ডেল্টা ভাইরাস। ইতিমধ্যেই দুই আক্রান্তকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। উল্লেখ্য, তামিলনাড়ুতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৭৩৬ জন। ৯ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে।

 

জনগণ যদি লকডাউন না চান সে ক্ষেত্রে সমস্ত কোভিড বিধিনিষেধ কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে, রবিবার স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে একটি বৈঠকের পরে এমনটাই জানিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। পাশাপাশি রাজ্যে আগত সমস্ত আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারীদের উপর নজর রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে নভেম্বরের শেষ দিকে ফের করোনার সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে চীনে। আমেরিকাতেও ফের হু হু করে বাড়ছে দৈনিক সংক্রমণ। ফের লকডাউনের পথে হাঁটতে চলেছে অস্ট্রিয়া, জার্মানি।

সবার প্রথমে ‘ওমিক্রন’-এর সংক্রমণের হদিশ পাওয়া গেছে দক্ষিণ আফ্রিকায়। তারপর কয়েক দিনের মধ্যেই বৎসোয়ানা, হংকং, ইজরায়েল, বেলজিয়াম ও ব্রিটেনে মিলেছে এই ভাইরাসের নতুন প্রজাতির হদিশ।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে ‘ওমিক্রন’ ভ্যারিয়েন্ট। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের থেকে ওমিক্রন অনেক বেশি সংক্রামক। এর জেরে সংক্রমণের আরেকটি ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে।

সূত্রের খবর, ১৬ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় যেখানে করোনা ভাইরাসের নতুন প্রজাতি ‘ওমিক্রন’ -এ সংক্রমিতের সংখ্যা ছিল ৩০০-র কাছাকাছি, ২৫ নভেম্বর তা বেড়ে দাঁড়ায় ১ হাজার ২০০-তে!

ইতিমধ্যেই বিশ্বের নানা দেশে ছড়াতে শুরু করেছে করোনার এই নতুন প্রজাতির ভাইরাস। জার্মানির সংবাদ সংস্থা DPA জানাচ্ছে, ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা দুই পর্যটকের শরীরে প্রাথমিকভাবে ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণের হদিশ মিলেছে। দুজনেরই নমুনা জেনোমিক সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, বাংলাদেশে এখনো করোনাভাইরাসের নতুন ধরণ ওমিক্রন শনাক্ত হয়নি। এরপরও দেশটিকে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করে ভ্রমণে অতিরিক্ত কড়াকড়ি আরোপ করেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। এমনকি পূর্ণডোজ টিকা নেওয়া ভ্রমণকারীদের জন্য যে ছাড় দেওয়া হচ্ছিল, সেটিও বাতিল করা হয়েছে। গত রোববার (২৮ নভেম্বর) নতুন এসব নির্দেশনা জারি করেছে ভারত সরকার।

দীর্ঘ ২০ মাসেরও বেশি সময় পর গত ২৬ নভেম্বর আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক ফ্লাইট ফের শুরুর ঘোষণা দিয়েছিল ভারতীয় প্রশাসন। আগামী ১৫ ডিসেম্বর থেকে এসব ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক হওয়ার কথা ছিল। বর্তমানে দ্বিপাক্ষিক এয়ার বাবল চুক্তির আওতায় বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশের সঙ্গে সীমিত সংখ্যক ফ্লাইট চালু রয়েছে ভারতের।

‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশ কারা? চলতি মাসের শুরুর দিকে ওমিক্রন প্রথম শনাক্ত হয় দক্ষিণ আফ্রিকায়। এরপর তা ছড়িয়ে পড়েছে আরও কয়েকটি দেশে। ওমিক্রন ধরা পড়া দেশগুলোর পাশাপাশি আরও কয়েকটি দেশকে আন্তর্জাতিক ভ্রমণের ক্ষেত্রে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে ভারত।

ভারত সরকারের নির্দেশনা অনুসারে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশের তালিকায় রয়েছে, যুক্তরাজ্য, গোটা ইউরোপ এবং আরও ১১টি দেশ বা অঞ্চল; সেগুলো হলো- বাংলাদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা, ব্রাজিল, বতসোয়ানা, চীন, মরিশাস, নিউজিল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে, সিঙ্গাপুর, হংকং ও ইসরায়েল। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক