০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রযুক্তির উদ্ভাবন ও বিকাশে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ভারত-ইসরায়েলের

স্টার্টআপ এবং এমএসএমইতে উদ্ভাবন এবং গবেষণা ত্বরান্বিত ও উন্নয়নের জন্য, একই সঙ্গে প্রযুক্তির দ্বৈত ব্যবহার ও বিকাশে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি করেছে ইসরায়েল ও ভারত।
ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ০৯ নভেম্বর, মঙ্গলবার, নয়াদিল্লিতে প্রতিরক্ষা বিভাগের সচিব, গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের সচিব এবং ডিআরডিওর চেয়ারম্যান ডঃ জি সতীশ রেড্ডি এবং ইসরায়েলের ডিডিআর অ্যান্ড ডি-এর প্রধান বিজি (অব.) ড. ড্যানিয়েল গোল্ডের উপস্থিতিতে চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হয়।
জানা গিয়েছে, চুক্তিটির অধীনে  ড্রোন, রোবোটিক্স, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, কোয়ান্টাম প্রযুক্তি, ফটোনিক্স, বায়ো-সেন্সিং, ব্রেন-মেশিন ইন্টারফেস, শক্তি সঞ্চয় এবং এর মতো ক্ষেত্রে পরবর্তী প্রজন্মের প্রযুক্তি ও পণ্যকে সামনে আনতে উভয় দেশের স্টার্টআপ এবং শিল্প একসঙ্গে কাজ করবে।
তাছাড়া, পণ্য এবং প্রযুক্তি উভয় দেশের অনন্য প্রয়োজনীয়তা পূরণের জন্য কাস্টমাইজ করা হবে বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।
বিবৃতি অনুসারে, উন্নয়ন প্রচেষ্টা যৌথভাবে ভারতের DRDO এবং ইসরায়েলের DDR&D দ্বারা অর্থায়ন করা হবে।
দ্বিপক্ষীয় চুক্তির অধীনে বিকশিত প্রযুক্তিগুলো উভয় রাষ্ট্রই নিজেদের আভ্যন্তরীণ অ্যাপ্লিকেশনের জন্য ব্যবহার করতে পারবে।
উল্লেখ্য, প্রতিরক্ষা খাতে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে ভারত এবং ইসরায়েলের। গত এক দশকে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে ইসরায়েলের কাছ থেকে ব্যাপক অস্ত্র ক্রয় করেছে ভারত।
গত মাসে তেল আবিবে ভারত-ইসরায়েলের দ্বিপাক্ষিক প্রতিরক্ষা সহযোগিতার বিষয়ে অনুষ্ঠিত ১৫ তম জেডব্লিউজি বৈঠকে সহযোগিতার নতুন ক্ষেত্র চিহ্নিত করার জন্য একটি ১০ বছর মেয়াদী বিস্তৃত রোডম্যাপ তৈরির উদ্দেশ্যে একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করতে সম্মত হয়েছে দু পক্ষ।

তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

প্রযুক্তির উদ্ভাবন ও বিকাশে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ভারত-ইসরায়েলের

প্রকাশ: ০৪:০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ নভেম্বর ২০২১
স্টার্টআপ এবং এমএসএমইতে উদ্ভাবন এবং গবেষণা ত্বরান্বিত ও উন্নয়নের জন্য, একই সঙ্গে প্রযুক্তির দ্বৈত ব্যবহার ও বিকাশে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি করেছে ইসরায়েল ও ভারত।
ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ০৯ নভেম্বর, মঙ্গলবার, নয়াদিল্লিতে প্রতিরক্ষা বিভাগের সচিব, গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের সচিব এবং ডিআরডিওর চেয়ারম্যান ডঃ জি সতীশ রেড্ডি এবং ইসরায়েলের ডিডিআর অ্যান্ড ডি-এর প্রধান বিজি (অব.) ড. ড্যানিয়েল গোল্ডের উপস্থিতিতে চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হয়।
জানা গিয়েছে, চুক্তিটির অধীনে  ড্রোন, রোবোটিক্স, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, কোয়ান্টাম প্রযুক্তি, ফটোনিক্স, বায়ো-সেন্সিং, ব্রেন-মেশিন ইন্টারফেস, শক্তি সঞ্চয় এবং এর মতো ক্ষেত্রে পরবর্তী প্রজন্মের প্রযুক্তি ও পণ্যকে সামনে আনতে উভয় দেশের স্টার্টআপ এবং শিল্প একসঙ্গে কাজ করবে।
তাছাড়া, পণ্য এবং প্রযুক্তি উভয় দেশের অনন্য প্রয়োজনীয়তা পূরণের জন্য কাস্টমাইজ করা হবে বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।
বিবৃতি অনুসারে, উন্নয়ন প্রচেষ্টা যৌথভাবে ভারতের DRDO এবং ইসরায়েলের DDR&D দ্বারা অর্থায়ন করা হবে।
দ্বিপক্ষীয় চুক্তির অধীনে বিকশিত প্রযুক্তিগুলো উভয় রাষ্ট্রই নিজেদের আভ্যন্তরীণ অ্যাপ্লিকেশনের জন্য ব্যবহার করতে পারবে।
উল্লেখ্য, প্রতিরক্ষা খাতে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে ভারত এবং ইসরায়েলের। গত এক দশকে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে ইসরায়েলের কাছ থেকে ব্যাপক অস্ত্র ক্রয় করেছে ভারত।
গত মাসে তেল আবিবে ভারত-ইসরায়েলের দ্বিপাক্ষিক প্রতিরক্ষা সহযোগিতার বিষয়ে অনুষ্ঠিত ১৫ তম জেডব্লিউজি বৈঠকে সহযোগিতার নতুন ক্ষেত্র চিহ্নিত করার জন্য একটি ১০ বছর মেয়াদী বিস্তৃত রোডম্যাপ তৈরির উদ্দেশ্যে একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করতে সম্মত হয়েছে দু পক্ষ।

তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক