০৯:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রকৃতি ও মানুষকে রক্ষার বৈশ্বিক জোটে যোগ দিয়েছে ভারত

প্রকৃতি ও মানুষের কল্যাণার্থে তথা বাস্তুতন্ত্র রক্ষার বৃহৎ স্বার্থে বৈশ্বিক জোট ‘হাই এম্বিশন কোয়ালিশন’ (এইচএসি) -এর সদস্য হয়েছে ভারত। গ্রুপটির বর্তমান সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে প্রায় ৭০ টিরও বেশি দেশ। গ্রুপটির প্রধান লক্ষ্য উচ্চাভিলাষী ৩০x৩০ কর্মসূচী সংরক্ষণে বিশ্বব্যাপী সচেতনতা তৈরী ও উদ্যোগ গ্রহণ।

০৭ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার, ফ্রান্স ও ভারত সরকারের মধ্যে হওয়া একটি অনুষ্ঠানে উক্ত জোটে যোগ দানের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয় নয়াদিল্লী। এসময়, এইচএসি চুক্তিতে স্বাক্ষর করা একটি কপি ভারতে নিযুক্ত ফরাসী রাষ্ট্রদূত ইমানুয়েল লেনাইন এর কাছে তুলে দেন ভারতীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব রামেশ্বর প্রসাদ গুপ্ত।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের শুরুতে যাত্রা আরম্ভ করে এইচএসি জোটটি। জানুয়ারী মাসে প্যারিসে অনুষ্ঠিত ‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিট’ অনুষ্ঠান থেকে শুরু হওয়া এই জোটের প্রধানতম লক্ষ্য ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বের অন্তত ৩০ শতাংশ স্থল ও ৩০ শতাংশ সমুদ্র ভাগের জায়গা সুরক্ষিত করার জন্য একটি আন্তর্জাতিক চুক্তি স্বাক্ষর। এ প্রক্রিয়ায় যেকোনো প্রকারের দূষণ ও দখল মুক্ত থাকবে ৩০ শতাংশ স্থল ও জল ভাগ।

ইউরোপ, আমেরিকা, আফ্রিকা ও এশিয়া সহ পৃথিবীর প্রায় সব মহাদেশ থেকেই অংশগ্রহণ রয়েছে এইচএসি জোটে। তবে ব্রিকস ভূক্ত সদস্য দেশগুলোর মধ্যে প্রথম রাষ্ট্র হিসেবে এইচএসি -তে যোগ দিলো ভারত।

ভারতীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, চীনের আয়োজন করতে চলা এক উচ্চ স্তরের জীববৈচিত্র্য সংশ্লিষ্ট বৈঠকের ঠিক আগ মুহূর্তে এইচএসি জোটে যোগদানের ঘোষণা দিয়েছে ভারত।

অনুষ্ঠানটি শেষে এক বিবৃতিতে ভারতে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূত ইমানুয়েল লেনাইন বলেন, “কোপ-২৬ এর প্রাক্বালে এইচএসিতে ভারতের যোগদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং গেমচেঞ্জার।”

অন্যদিকে, ভারতীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব রামেশ্বর প্রসাদ গুপ্ত বলেন, “বৈশ্বিক জীববৈচিত্র্য রক্ষার্থে ভারত সব ধরণের সহায়তা নিশ্চিত করবে।”

তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

প্রকৃতি ও মানুষকে রক্ষার বৈশ্বিক জোটে যোগ দিয়েছে ভারত

প্রকাশ: ১১:৫৭:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১১ অক্টোবর ২০২১

প্রকৃতি ও মানুষের কল্যাণার্থে তথা বাস্তুতন্ত্র রক্ষার বৃহৎ স্বার্থে বৈশ্বিক জোট ‘হাই এম্বিশন কোয়ালিশন’ (এইচএসি) -এর সদস্য হয়েছে ভারত। গ্রুপটির বর্তমান সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে প্রায় ৭০ টিরও বেশি দেশ। গ্রুপটির প্রধান লক্ষ্য উচ্চাভিলাষী ৩০x৩০ কর্মসূচী সংরক্ষণে বিশ্বব্যাপী সচেতনতা তৈরী ও উদ্যোগ গ্রহণ।

০৭ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার, ফ্রান্স ও ভারত সরকারের মধ্যে হওয়া একটি অনুষ্ঠানে উক্ত জোটে যোগ দানের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয় নয়াদিল্লী। এসময়, এইচএসি চুক্তিতে স্বাক্ষর করা একটি কপি ভারতে নিযুক্ত ফরাসী রাষ্ট্রদূত ইমানুয়েল লেনাইন এর কাছে তুলে দেন ভারতীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব রামেশ্বর প্রসাদ গুপ্ত।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের শুরুতে যাত্রা আরম্ভ করে এইচএসি জোটটি। জানুয়ারী মাসে প্যারিসে অনুষ্ঠিত ‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিট’ অনুষ্ঠান থেকে শুরু হওয়া এই জোটের প্রধানতম লক্ষ্য ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বের অন্তত ৩০ শতাংশ স্থল ও ৩০ শতাংশ সমুদ্র ভাগের জায়গা সুরক্ষিত করার জন্য একটি আন্তর্জাতিক চুক্তি স্বাক্ষর। এ প্রক্রিয়ায় যেকোনো প্রকারের দূষণ ও দখল মুক্ত থাকবে ৩০ শতাংশ স্থল ও জল ভাগ।

ইউরোপ, আমেরিকা, আফ্রিকা ও এশিয়া সহ পৃথিবীর প্রায় সব মহাদেশ থেকেই অংশগ্রহণ রয়েছে এইচএসি জোটে। তবে ব্রিকস ভূক্ত সদস্য দেশগুলোর মধ্যে প্রথম রাষ্ট্র হিসেবে এইচএসি -তে যোগ দিলো ভারত।

ভারতীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, চীনের আয়োজন করতে চলা এক উচ্চ স্তরের জীববৈচিত্র্য সংশ্লিষ্ট বৈঠকের ঠিক আগ মুহূর্তে এইচএসি জোটে যোগদানের ঘোষণা দিয়েছে ভারত।

অনুষ্ঠানটি শেষে এক বিবৃতিতে ভারতে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূত ইমানুয়েল লেনাইন বলেন, “কোপ-২৬ এর প্রাক্বালে এইচএসিতে ভারতের যোগদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং গেমচেঞ্জার।”

অন্যদিকে, ভারতীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব রামেশ্বর প্রসাদ গুপ্ত বলেন, “বৈশ্বিক জীববৈচিত্র্য রক্ষার্থে ভারত সব ধরণের সহায়তা নিশ্চিত করবে।”

তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক