০৪:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সিরাজগঞ্জে অন্যরকম গণিত উৎসব

আব্দুল মান্নানঃ শোকাবহ আগষ্টের (২ আগষ্ট) শুরুতে ক্ষুদে গণিতবিদদের পদচারণায় মুখরিত হয় সিরাজগঞ্জের একডালা (বাহির) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। ‘If you want to know the earth, start solving the math’ – স্লোগান কে সামনে রেখে ‘ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস অব একডালা’ আয়োজন করে ‘১ম একডালা গণিত উৎসব – ২০২০’।

উৎসবে অংশগ্রহণ কারী সকলের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে, তাদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করে উৎসবে অংশ নেয়ার অনুমতি প্রদান ডা. রুবেল হোসাইনের নেতৃত্বাধীন মেডিকেল টিম। তিন টি ক্যটাগরিতে শুরু হয় গণিতের লড়াই।

গান্ধাইল রতনকান্দি ইউনিয়ন আলী আহমেদ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শ্রী সাধন কুমার রায়ের সভাপতিত্বে শুরু হয় উৎসব পরবর্তী পুরস্কার বিতরণী ও সংবর্ধনা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আমিনুল ইসলাম আকাশ ও রাসেল রানা।

অনুষ্টানের সূচনালগ্নে উৎসবের আহবায়ক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আব্দুল মান্নান আয়োজকদের সংক্ষিপ্ত পরিচয় তুলে ধরে বলেন, ‘ গণিতকে ভালবেসেই আমাদের আজকের এ আয়োজন। আমরা বিশ্বাস করি গণিত উৎসবের মাধ্যমেই শিক্ষার্থীদের গণিতভীতি দূর হবে’। উৎসবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ডেসকো লিমিটেডের সহকারী প্রকৌশলী ও সাবেক বুয়েটিয়ান আরিফুল ইসলাম সামগ্রিক বিষয়ের উপর একটি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন।

উৎসবের উপদেষ্টা স্ট্রাকচারাল ডিজাইন কনসাল্টেন্টের সিইও ইমরুল মহশিন বলেন, ‘ তুমি যদি পথ ভুলে যাও, তাহলে গণিত করা শুরু করে দাও। পৃথিবীর যে কোনো কাজ করতে গেলে গণিতকে জানতে হবে। আমি বিশ্বাস করি আমার সামনেই বসে আসে আগামী দিনের পীথাগোরাস, হিপ্পাসাস, চমক হাসানেরা।’

সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য গোলাম রব্বানী তালুকলার আয়োজকদের এ আয়োজনকে স্বাধুবাদ জানান ও উৎসাহ প্রদান করেন।

পুরস্কার বিতরণী ও মধ্যাহ্ন ভোজের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘটে গণিতের এ মহারনণের।

ট্যাগ:

সিরাজগঞ্জে অন্যরকম গণিত উৎসব

প্রকাশ: ১০:১০:২৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ অগাস্ট ২০২০

আব্দুল মান্নানঃ শোকাবহ আগষ্টের (২ আগষ্ট) শুরুতে ক্ষুদে গণিতবিদদের পদচারণায় মুখরিত হয় সিরাজগঞ্জের একডালা (বাহির) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। ‘If you want to know the earth, start solving the math’ – স্লোগান কে সামনে রেখে ‘ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস অব একডালা’ আয়োজন করে ‘১ম একডালা গণিত উৎসব – ২০২০’।

উৎসবে অংশগ্রহণ কারী সকলের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে, তাদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করে উৎসবে অংশ নেয়ার অনুমতি প্রদান ডা. রুবেল হোসাইনের নেতৃত্বাধীন মেডিকেল টিম। তিন টি ক্যটাগরিতে শুরু হয় গণিতের লড়াই।

গান্ধাইল রতনকান্দি ইউনিয়ন আলী আহমেদ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শ্রী সাধন কুমার রায়ের সভাপতিত্বে শুরু হয় উৎসব পরবর্তী পুরস্কার বিতরণী ও সংবর্ধনা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আমিনুল ইসলাম আকাশ ও রাসেল রানা।

অনুষ্টানের সূচনালগ্নে উৎসবের আহবায়ক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আব্দুল মান্নান আয়োজকদের সংক্ষিপ্ত পরিচয় তুলে ধরে বলেন, ‘ গণিতকে ভালবেসেই আমাদের আজকের এ আয়োজন। আমরা বিশ্বাস করি গণিত উৎসবের মাধ্যমেই শিক্ষার্থীদের গণিতভীতি দূর হবে’। উৎসবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ডেসকো লিমিটেডের সহকারী প্রকৌশলী ও সাবেক বুয়েটিয়ান আরিফুল ইসলাম সামগ্রিক বিষয়ের উপর একটি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন।

উৎসবের উপদেষ্টা স্ট্রাকচারাল ডিজাইন কনসাল্টেন্টের সিইও ইমরুল মহশিন বলেন, ‘ তুমি যদি পথ ভুলে যাও, তাহলে গণিত করা শুরু করে দাও। পৃথিবীর যে কোনো কাজ করতে গেলে গণিতকে জানতে হবে। আমি বিশ্বাস করি আমার সামনেই বসে আসে আগামী দিনের পীথাগোরাস, হিপ্পাসাস, চমক হাসানেরা।’

সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য গোলাম রব্বানী তালুকলার আয়োজকদের এ আয়োজনকে স্বাধুবাদ জানান ও উৎসাহ প্রদান করেন।

পুরস্কার বিতরণী ও মধ্যাহ্ন ভোজের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘটে গণিতের এ মহারনণের।