০৮:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পরিবার প্রতি ৩ লাখ ইয়েন দেবে জাপান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনাভাইরাসের আর্থিক ক্ষতি মোকাবেলায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রতি পরিবারকে ৩ লাখ ইয়েন দেবে জাপান। সংক্রমণ ও মৃত্যুর বাড়বাড়ন্তের মধ্যে বিশাল এ আর্থিক প্রণোদনা দিতে সম্মত হয় ক্ষমতাসীন লিবারেল ডেমোক্রেটিক (এলডিপি) সরকার। শুক্রবার মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকের পর এ ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। এলডিপির নীতিপ্রণয়নবিষয়ক কমিটির প্রধান ফুমিও কিশিদা জানান, জাপানের ৫ কোটি ৮০ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে ১ কোটিই এ আর্থিক প্রকল্পের সুবিধা পাবে। খবর জাপান টাইমসের।

পৃথিবীর তৃতীয় শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ জাপান শুরুতে শুধু ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে প্রায় আড়াই লাখ টাকা করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। পরে সাধারণ মানুষের সমালোচনার মুখে এ সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে প্রত্যেক নাগরিককে আর্থিকভাবে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে জাপানের টোকিওসহ মোট সাতটি শহরে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। দেশটিতে ৯ হাজার মানুষ আক্রান্ত হওয়ার পাশাপাশি ২০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। অর্থনৈতিক ক্ষতি মোকাবেলায় ব্যাংক অব জাপান চলতি অর্থবছরের জন্য বড় একটি প্রজেক্ট হাতে নিচ্ছে। এ মাসের শেষ দিকে সেটি চালু হতে পারে।

ট্যাগ:

পরিবার প্রতি ৩ লাখ ইয়েন দেবে জাপান

প্রকাশ: ০৫:৪৮:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনাভাইরাসের আর্থিক ক্ষতি মোকাবেলায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রতি পরিবারকে ৩ লাখ ইয়েন দেবে জাপান। সংক্রমণ ও মৃত্যুর বাড়বাড়ন্তের মধ্যে বিশাল এ আর্থিক প্রণোদনা দিতে সম্মত হয় ক্ষমতাসীন লিবারেল ডেমোক্রেটিক (এলডিপি) সরকার। শুক্রবার মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকের পর এ ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। এলডিপির নীতিপ্রণয়নবিষয়ক কমিটির প্রধান ফুমিও কিশিদা জানান, জাপানের ৫ কোটি ৮০ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে ১ কোটিই এ আর্থিক প্রকল্পের সুবিধা পাবে। খবর জাপান টাইমসের।

পৃথিবীর তৃতীয় শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ জাপান শুরুতে শুধু ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে প্রায় আড়াই লাখ টাকা করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। পরে সাধারণ মানুষের সমালোচনার মুখে এ সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে প্রত্যেক নাগরিককে আর্থিকভাবে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে জাপানের টোকিওসহ মোট সাতটি শহরে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। দেশটিতে ৯ হাজার মানুষ আক্রান্ত হওয়ার পাশাপাশি ২০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। অর্থনৈতিক ক্ষতি মোকাবেলায় ব্যাংক অব জাপান চলতি অর্থবছরের জন্য বড় একটি প্রজেক্ট হাতে নিচ্ছে। এ মাসের শেষ দিকে সেটি চালু হতে পারে।