০৬:৪১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২য় বিশ্বযুদ্ধে ভারতীয়দের অবদান স্মরণ ইতালির

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ভারতীয় সেনার বলিদানকে স্মরণ করল ইতালি। সেদেশের পেরুজিয়া শহরের মনোটোন অঞ্চলে ভারতীয় সেনার চূড়ান্ত বলিদানকে শ্রদ্ধা জানাতে তৈরি হল স্মৃতিসৌধ। সেখানে বসানো হলো সান-ডায়াল বা সূর্য-ঘড়ি। যার যৌথ উদ্যোক্তা হলো মনোটোন সম্প্রদায় ও ইতালীয় সামরিক ইতিহাসবিদদের সংগঠন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ভারতীয় সেনার অংশগ্রহণকে স্বীকৃতি দিয়ে সম্প্রতি মনোটোনে উদ্বোধন করা হলো ভি সি যশবন্ত ঘাড়গে সানডায়াল মেমোরিয়াল-এর। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইতালির যুদ্ধে অংশ নিয়ে আপার টিবার উপত্যকার লড়াইয়ে শহিদ হয়েছিলেন তৎকালীন ব্রিটিশ শাসনাধীন ভারতীয় সেনার নায়েক যশবন্ত ঘাড়গে। পরবর্তীকালে, তাঁর বীরত্বের জন্য তাঁকে ভিক্টোরিয়া ক্রস দিয়ে মরণোত্তর সম্মান প্রদান করা হয়েছিল।

বর্তমানে ইতালিতে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত নীনা মানহোত্রা এবং ভারতীয় ডিফেন্স অ্যাটাশের পৌরহিত্যে এই স্মৃতিসৌধের উদ্বোধন করা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন সেদেশের সামরিক বাহিনী ও নাগরিক সমাজের গণ্যমান্য প্রতিনিধিরা।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইতালির হয়ে লড়াই করেছিলেন ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অধীনস্থ ভারতীয় সেনার প্রায় ৫০ হাজারের বেশি জওয়ান। সেই সময় বীরত্বের জন্য ২০ জনকে ভিক্টোরিয়া ক্রস প্রদান করা হয়েছিল, যার মধ্যে ৬টি পেয়েছিলেন ভারতীয় সেনা জওয়ানরা।

ওই যুদ্ধে ২৩ হাজার ৭২২ জন ভারতীয় জওয়ান আহত হয়েছিলেন। মৃত্যু বরণ করেছিলেন ৫ হাজার ৭৮২ জন। ইতালি জুড়ে ৪০টির বেশি জায়গায় তাঁদের সমাধি রয়েছে। ঘটনাকে স্মরণ করতে ভারতীয় সেনার একটি ফলক ওই সৌধে রাখা হয়েছে। সেখানে ইতালির যুদ্ধে অংশ নেওয়া প্রতিটি ভারতীয় সেনা জওয়ানকে শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে।

স্মৃতিসৌধটি একটি সান ডায়াল বা সূর্য-ঘড়ির আকারে তৈরি করা হয়েছে। সৌধের মোটো হলো ‘‘ওমিনেস সাব এওডেম সোল’’। যার অর্থ, আমরা সকলে এক সূর্যের নিচে বাস করি। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে তাদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করা ভারতীয় সেনাকে এভাবেই কুর্নিশ জানাল ইতালি।

 

ট্যাগ:

২য় বিশ্বযুদ্ধে ভারতীয়দের অবদান স্মরণ ইতালির

প্রকাশ: ০৫:১২:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুলাই ২০২৩

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ভারতীয় সেনার বলিদানকে স্মরণ করল ইতালি। সেদেশের পেরুজিয়া শহরের মনোটোন অঞ্চলে ভারতীয় সেনার চূড়ান্ত বলিদানকে শ্রদ্ধা জানাতে তৈরি হল স্মৃতিসৌধ। সেখানে বসানো হলো সান-ডায়াল বা সূর্য-ঘড়ি। যার যৌথ উদ্যোক্তা হলো মনোটোন সম্প্রদায় ও ইতালীয় সামরিক ইতিহাসবিদদের সংগঠন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ভারতীয় সেনার অংশগ্রহণকে স্বীকৃতি দিয়ে সম্প্রতি মনোটোনে উদ্বোধন করা হলো ভি সি যশবন্ত ঘাড়গে সানডায়াল মেমোরিয়াল-এর। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইতালির যুদ্ধে অংশ নিয়ে আপার টিবার উপত্যকার লড়াইয়ে শহিদ হয়েছিলেন তৎকালীন ব্রিটিশ শাসনাধীন ভারতীয় সেনার নায়েক যশবন্ত ঘাড়গে। পরবর্তীকালে, তাঁর বীরত্বের জন্য তাঁকে ভিক্টোরিয়া ক্রস দিয়ে মরণোত্তর সম্মান প্রদান করা হয়েছিল।

বর্তমানে ইতালিতে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত নীনা মানহোত্রা এবং ভারতীয় ডিফেন্স অ্যাটাশের পৌরহিত্যে এই স্মৃতিসৌধের উদ্বোধন করা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন সেদেশের সামরিক বাহিনী ও নাগরিক সমাজের গণ্যমান্য প্রতিনিধিরা।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইতালির হয়ে লড়াই করেছিলেন ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অধীনস্থ ভারতীয় সেনার প্রায় ৫০ হাজারের বেশি জওয়ান। সেই সময় বীরত্বের জন্য ২০ জনকে ভিক্টোরিয়া ক্রস প্রদান করা হয়েছিল, যার মধ্যে ৬টি পেয়েছিলেন ভারতীয় সেনা জওয়ানরা।

ওই যুদ্ধে ২৩ হাজার ৭২২ জন ভারতীয় জওয়ান আহত হয়েছিলেন। মৃত্যু বরণ করেছিলেন ৫ হাজার ৭৮২ জন। ইতালি জুড়ে ৪০টির বেশি জায়গায় তাঁদের সমাধি রয়েছে। ঘটনাকে স্মরণ করতে ভারতীয় সেনার একটি ফলক ওই সৌধে রাখা হয়েছে। সেখানে ইতালির যুদ্ধে অংশ নেওয়া প্রতিটি ভারতীয় সেনা জওয়ানকে শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে।

স্মৃতিসৌধটি একটি সান ডায়াল বা সূর্য-ঘড়ির আকারে তৈরি করা হয়েছে। সৌধের মোটো হলো ‘‘ওমিনেস সাব এওডেম সোল’’। যার অর্থ, আমরা সকলে এক সূর্যের নিচে বাস করি। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে তাদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করা ভারতীয় সেনাকে এভাবেই কুর্নিশ জানাল ইতালি।