০২:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভারত-আফ্রিকার সম্পর্ক উন্নয়নভিত্তিক

কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্প, ক্রেতা সুরক্ষা, খাদ্য ও গণবন্টন এবং বস্ত্রমন্ত্রী মন্ত্রী শ্রী পীযুষ গোয়েল বলেছেন, ভারত ও আফ্রিকা ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক মেলবন্ধনের স্বাভাবিক অংশীদার। ‘ভারত-আফ্রিকা সমৃদ্ধ অংশীদার’ শীর্ষক বিষয়ের ওপর ১৮ তম সিআইআই-এক্সিম ব্যাঙ্ক কনক্লেভের মূল ভাষণে একথা জানান তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, মহাত্মাগান্ধী দক্ষিণ আফ্রিকায় সত্য ও অহিংসার নীতি তুলে ধরেছিলেন যা নেলসন ম্যান্ডেলা এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আফ্রিকা অঞ্চলে ১৫ জন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সাম্প্রতিক আলাপচারিতার কথা উল্লেখ করেন, যা এই সম্পর্ককে আরও জোরদার করার পক্ষে এক দৃঢ় পদক্ষেপ। তিনি বলেন, আফ্রিকার সঙ্গে ভারতের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে ৯ দশমিক দুই-ছয় শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ১০ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে। ২০৩০ সালে এই বাণিজ্যের পরিমাণ দ্বিগুণ হয়ে ২০ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে পৌঁছবে বলে আশাপ্রকাশ করেন তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, তরুণ উচ্চাকাঙ্খী সাধারণ মানুষ এই লক্ষ্য অর্জনে সাহায্য করতে পারে।

শ্রী গোয়েল বলেন আফ্রিকার ২৭ টি স্বল্প উন্নত দেশ ইতিমধ্যেই শুল্ক মুক্ত কর সুবিধা থেকে উপকৃত হয়েছে। তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী বিগত ৯ বছরে যেভাবে একক অংশীদার হিসেবে পথ চলার দিশা দেখিয়েছেন তারই অঙ্গ হিসেবে ভারত ও আফ্রিকার সম্পর্ক মজবুত হয়েছে। এই প্রসঙ্গে তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্ধৃতি তুলে ধরে বলেন “আফ্রিকা আমাদের অগ্রাধিকারের শীর্ষে থাকবে। আমরা আফ্রিকার সঙ্গে আমাদের সম্পৃক্তাকে নিবিড় ও গভীর করবো। আমরা যে পথ অবলম্বন করেছি, সেটি সুস্থায়ী ও নিয়মিত ভিত্তিতে চলতে থাকবে। “

শ্রী গোয়েল বলেন ভারত ও আফ্রিকার সম্পর্ক বিশ্বের জনসংখ্যার প্রায় এক তৃতীয়াশ মানুষের স্বপ্ন এবং আকাঙ্খাপূরণে সহায়তা করবে। কীভাবে ভারত গ্লোবাল সাউথের কন্ঠস্বর হয়ে উঠতে পারেন তার ওপর জোর দেন তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন আফ্রিকার প্রয়োজনে ও কাজের বন্ধু দেশ ভারত। বসুধৈব কুটুম্বকমের চিন্তা-ভাবনাকে সামনে রেখে কোভিড-১৯ মহামারি চলাকালীন ভারত আফ্রিকার ভাই-বোনদের জন্য ওষুধ, টিকা এবং অন্যান্য সরঞ্জামের সহায়তা দিয়েছে।

শ্রী গোয়েল “এক বিশ্ব, এক গ্রিড “-এর স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে পুনর্নবীকরণ যোগ্য শক্তি ক্ষেত্রে ভারত ও আফ্রিকার মধ্যে সহযোগিতার ওপর জোর দেন। আন্তর্জাতিক সৌর জোটের ২০-টিরও বেশি আফ্রিকা দেশের অংশগ্রহণের প্রশংসা করেন তিনি।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান ভারত দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে যে বর্তমান সময়ে বিশ্বে আফ্রিকার উত্থান খুব প্রয়োজন। ভারতের স্টার্টআপ বিপ্লব, কোউইন, ইউপিআই, এক দেশ এক রেশন কার্ড-এর মতো ডিজিটাল পাবলিক ইনফ্রাস্ট্রাকচার মানুষের জীবনযাত্রা ও ব্যবসা সহজ করতে সাহায্য করেছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভারত ও আফ্রিকার মধ্যে অংশীদারিত্ব আরও মজবুত করার ওপর জোর দেন। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

ভারত-আফ্রিকার সম্পর্ক উন্নয়নভিত্তিক

প্রকাশ: ০২:৫৮:০৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ জুন ২০২৩

কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্প, ক্রেতা সুরক্ষা, খাদ্য ও গণবন্টন এবং বস্ত্রমন্ত্রী মন্ত্রী শ্রী পীযুষ গোয়েল বলেছেন, ভারত ও আফ্রিকা ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক মেলবন্ধনের স্বাভাবিক অংশীদার। ‘ভারত-আফ্রিকা সমৃদ্ধ অংশীদার’ শীর্ষক বিষয়ের ওপর ১৮ তম সিআইআই-এক্সিম ব্যাঙ্ক কনক্লেভের মূল ভাষণে একথা জানান তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, মহাত্মাগান্ধী দক্ষিণ আফ্রিকায় সত্য ও অহিংসার নীতি তুলে ধরেছিলেন যা নেলসন ম্যান্ডেলা এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আফ্রিকা অঞ্চলে ১৫ জন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সাম্প্রতিক আলাপচারিতার কথা উল্লেখ করেন, যা এই সম্পর্ককে আরও জোরদার করার পক্ষে এক দৃঢ় পদক্ষেপ। তিনি বলেন, আফ্রিকার সঙ্গে ভারতের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে ৯ দশমিক দুই-ছয় শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ১০ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে। ২০৩০ সালে এই বাণিজ্যের পরিমাণ দ্বিগুণ হয়ে ২০ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে পৌঁছবে বলে আশাপ্রকাশ করেন তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, তরুণ উচ্চাকাঙ্খী সাধারণ মানুষ এই লক্ষ্য অর্জনে সাহায্য করতে পারে।

শ্রী গোয়েল বলেন আফ্রিকার ২৭ টি স্বল্প উন্নত দেশ ইতিমধ্যেই শুল্ক মুক্ত কর সুবিধা থেকে উপকৃত হয়েছে। তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী বিগত ৯ বছরে যেভাবে একক অংশীদার হিসেবে পথ চলার দিশা দেখিয়েছেন তারই অঙ্গ হিসেবে ভারত ও আফ্রিকার সম্পর্ক মজবুত হয়েছে। এই প্রসঙ্গে তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্ধৃতি তুলে ধরে বলেন “আফ্রিকা আমাদের অগ্রাধিকারের শীর্ষে থাকবে। আমরা আফ্রিকার সঙ্গে আমাদের সম্পৃক্তাকে নিবিড় ও গভীর করবো। আমরা যে পথ অবলম্বন করেছি, সেটি সুস্থায়ী ও নিয়মিত ভিত্তিতে চলতে থাকবে। “

শ্রী গোয়েল বলেন ভারত ও আফ্রিকার সম্পর্ক বিশ্বের জনসংখ্যার প্রায় এক তৃতীয়াশ মানুষের স্বপ্ন এবং আকাঙ্খাপূরণে সহায়তা করবে। কীভাবে ভারত গ্লোবাল সাউথের কন্ঠস্বর হয়ে উঠতে পারেন তার ওপর জোর দেন তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন আফ্রিকার প্রয়োজনে ও কাজের বন্ধু দেশ ভারত। বসুধৈব কুটুম্বকমের চিন্তা-ভাবনাকে সামনে রেখে কোভিড-১৯ মহামারি চলাকালীন ভারত আফ্রিকার ভাই-বোনদের জন্য ওষুধ, টিকা এবং অন্যান্য সরঞ্জামের সহায়তা দিয়েছে।

শ্রী গোয়েল “এক বিশ্ব, এক গ্রিড “-এর স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে পুনর্নবীকরণ যোগ্য শক্তি ক্ষেত্রে ভারত ও আফ্রিকার মধ্যে সহযোগিতার ওপর জোর দেন। আন্তর্জাতিক সৌর জোটের ২০-টিরও বেশি আফ্রিকা দেশের অংশগ্রহণের প্রশংসা করেন তিনি।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান ভারত দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে যে বর্তমান সময়ে বিশ্বে আফ্রিকার উত্থান খুব প্রয়োজন। ভারতের স্টার্টআপ বিপ্লব, কোউইন, ইউপিআই, এক দেশ এক রেশন কার্ড-এর মতো ডিজিটাল পাবলিক ইনফ্রাস্ট্রাকচার মানুষের জীবনযাত্রা ও ব্যবসা সহজ করতে সাহায্য করেছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভারত ও আফ্রিকার মধ্যে অংশীদারিত্ব আরও মজবুত করার ওপর জোর দেন। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক