১২:৩৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

৩১ মে ভারতে আসছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী

নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কমল দাহাল ‘প্রচন্ড’ আগামী ৩১ মে থেকে ৩ জুন ভারত সফরে আসছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে ভারত সফরে আসছেন সাবেক এই গেরিলা নেতা। ভারতে অবস্থানকালে বেশ কিছু কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার কথা রয়েছে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর।

শনিবার সকালে ভারতের বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে ৩১ মে থেকে ৩ জুন পর্যন্ত ভারত সফরে আসছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কমল দাহাল ‘প্রচন্ড’। ২০২২ সালের ডিসেম্বরে দায়িত্ব নেওয়ার পর এটিই হবে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর প্রথম দ্বিপাক্ষিক বিদেশ সফর। তাঁর সঙ্গে একটি উচ্চ-পর্যায়ের প্রতিনিধি দল থাকবে ভারতে।

উল্লেখ্য, গত বছরের একদম শেষে তৃতীয়বারের মতো নেপালের প্রধানমন্ত্রী হন রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে দশকব্যাপী লড়াই করা সাবেক মাওবাদী নেতা পুষ্প কমল দাহাল প্রচণ্ড। হিমালয়কন্যা হিসেবে পরিচিত দেশটিতে গত মাসের নির্বাচনে ঝুলন্ত পার্লামেন্ট ফেরার পর প্রধান বিরোধী দল কমিউনিস্ট পার্টি অফ নেপাল (ইউনিফায়েড মার্ক্সসিস্ট-লেনিনিস্ট) বা ইউএমএলের সঙ্গে জোট বেঁধে সরকারপ্রধান হন তিনি।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিলো, ইউএমএল ও ছোট কয়েকটি সংগঠনের সমর্থনে নতুন সরকারের পাঁচ বছরের মধ্যে অর্ধেক সময় প্রধান হিসেবে থাকবেন প্রচণ্ড। নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভান্ডারির সহকারী টিকা ধাকাল বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে সে সময় বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত প্রচণ্ড পার্লামেন্টে বড় সমর্থন পেয়েছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদন অনুযায়ী, তিনি ২০২৫ সালে জোটসঙ্গী ইউএমএলের কোনো নেতার কাছে পদ ছেড়ে দেবেন। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

৩১ মে ভারতে আসছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ১১:৫০:৪৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৭ মে ২০২৩

নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কমল দাহাল ‘প্রচন্ড’ আগামী ৩১ মে থেকে ৩ জুন ভারত সফরে আসছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে ভারত সফরে আসছেন সাবেক এই গেরিলা নেতা। ভারতে অবস্থানকালে বেশ কিছু কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার কথা রয়েছে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর।

শনিবার সকালে ভারতের বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে ৩১ মে থেকে ৩ জুন পর্যন্ত ভারত সফরে আসছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কমল দাহাল ‘প্রচন্ড’। ২০২২ সালের ডিসেম্বরে দায়িত্ব নেওয়ার পর এটিই হবে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর প্রথম দ্বিপাক্ষিক বিদেশ সফর। তাঁর সঙ্গে একটি উচ্চ-পর্যায়ের প্রতিনিধি দল থাকবে ভারতে।

উল্লেখ্য, গত বছরের একদম শেষে তৃতীয়বারের মতো নেপালের প্রধানমন্ত্রী হন রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে দশকব্যাপী লড়াই করা সাবেক মাওবাদী নেতা পুষ্প কমল দাহাল প্রচণ্ড। হিমালয়কন্যা হিসেবে পরিচিত দেশটিতে গত মাসের নির্বাচনে ঝুলন্ত পার্লামেন্ট ফেরার পর প্রধান বিরোধী দল কমিউনিস্ট পার্টি অফ নেপাল (ইউনিফায়েড মার্ক্সসিস্ট-লেনিনিস্ট) বা ইউএমএলের সঙ্গে জোট বেঁধে সরকারপ্রধান হন তিনি।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিলো, ইউএমএল ও ছোট কয়েকটি সংগঠনের সমর্থনে নতুন সরকারের পাঁচ বছরের মধ্যে অর্ধেক সময় প্রধান হিসেবে থাকবেন প্রচণ্ড। নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভান্ডারির সহকারী টিকা ধাকাল বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে সে সময় বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত প্রচণ্ড পার্লামেন্টে বড় সমর্থন পেয়েছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদন অনুযায়ী, তিনি ২০২৫ সালে জোটসঙ্গী ইউএমএলের কোনো নেতার কাছে পদ ছেড়ে দেবেন। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক