১১:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জি-৭ সম্মেলন সর্বদাই গুরুত্ববহ: মোদী

কর্মব্যস্ততায় পরিপূর্ণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ডায়েরি। একটানা পরপর কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। আজই জাপানের উদ্দেশে রওনা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জি-৭ সামিটে যোগ দিতেই জাপানের হিরোশিমা শহরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। জি-৭ বৈঠকে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা-র সঙ্গেও সাক্ষাতের পরিকল্পনা রয়েছে। সেখান থেকে তিনি পাপুয়া নিউ গিনি এবং অস্ট্রেলিয়ায় যাবেন।

চার দিনের সফরে মোট তিনটি দেশে সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মোট ৪০টিরও বেশি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। শীর্ষ সম্মেলনগুলির পাশাপাশি কমপক্ষে ২৪ জনে রাষ্ট্রনেতার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হওয়ার কথা রয়েছে।

জাপান সফরে যাওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। ওই বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী নিজের সফরসূচি নিয়ে কথা বলেছেন। প্রধানমন্ত্রী জানান, জাপানের সভাপতিত্বে জি-৭ সামিটে যোগ দিতে যাচ্ছেন তিনি। সম্প্রতিই ভারত সফরে এসেছিলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা। জি-৭ সামিটের দৌলতে ফের একবার সাক্ষাৎ হতে চলেছে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে।

প্রধানমন্ত্রী জানান, এবারের জি-৭ সামিটে তাঁর উপস্থিতি অত্য়ন্ত তাৎপর্যপূর্ণ কারণ এই বছরে জি-২০-র সভাপতিত্বের দায়িত্ব পেয়েছে ভারত। জি-৭ সদস্য দেশগুলির প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ ও তাদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা নিয়েও আশাবাদী বলে জানান প্রধানমন্ত্রী মোদী।

জাপানে জি-৭ সামিটে যোগ দেওয়ার পর, সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী মোদী পাপুয়া নিউগিনির পোর্ট মোরেসবিতে যাবেন। এটি পাপুয়া নিউগিনিতে প্রধানমন্ত্রী মোদীর প্রথম সফর। একইসঙ্গে ভারতের কোনও প্রধানমন্ত্রী এই প্রথম দ্বীপরাষ্ট্র পাপুয়া নিউগিনির সফরে যাচ্ছেন। সেখানে আগামী ২২ মে প্রধানমন্ত্রী মোদী ফোরাম ফর ইন্ডিয়া-প্যাসিফিক আইল্যান্ডস কো-অপারেশন সামিটে যোগ দেবেন। পাপুয়া নিউগিনির প্রধানমন্ত্রী জেমস মারাপের সঙ্গেও দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন তিনি। এই সামিটে জলবায়ু পরিবর্তন, উন্নয়ন, ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি, প্রশিক্ষণ, স্বাস্থ্য, পরিকাঠামো ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করা হবে বলেই জানান প্রধানমন্ত্রী মোদী।

পাপুয়া নিউগিনির সফর সেরে প্রধানমন্ত্রী মোদী যাবেন অস্ট্রেলিয়ায়। সে দেশের প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজের আমন্ত্রণেই তিনি সিডনিতে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে যোগ দেবেন। একটি বিশেষ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মোদী অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সংস্থার সিইও ও ব্যবসায়ীদের আলোচনাটয় বসবেন। দেখা করবেন অনাবাসী ভারতীয়দের সঙ্গেও। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

জি-৭ সম্মেলন সর্বদাই গুরুত্ববহ: মোদী

প্রকাশ: ০৮:৪৭:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ মে ২০২৩

কর্মব্যস্ততায় পরিপূর্ণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ডায়েরি। একটানা পরপর কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। আজই জাপানের উদ্দেশে রওনা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জি-৭ সামিটে যোগ দিতেই জাপানের হিরোশিমা শহরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। জি-৭ বৈঠকে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা-র সঙ্গেও সাক্ষাতের পরিকল্পনা রয়েছে। সেখান থেকে তিনি পাপুয়া নিউ গিনি এবং অস্ট্রেলিয়ায় যাবেন।

চার দিনের সফরে মোট তিনটি দেশে সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মোট ৪০টিরও বেশি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। শীর্ষ সম্মেলনগুলির পাশাপাশি কমপক্ষে ২৪ জনে রাষ্ট্রনেতার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হওয়ার কথা রয়েছে।

জাপান সফরে যাওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। ওই বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী নিজের সফরসূচি নিয়ে কথা বলেছেন। প্রধানমন্ত্রী জানান, জাপানের সভাপতিত্বে জি-৭ সামিটে যোগ দিতে যাচ্ছেন তিনি। সম্প্রতিই ভারত সফরে এসেছিলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা। জি-৭ সামিটের দৌলতে ফের একবার সাক্ষাৎ হতে চলেছে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে।

প্রধানমন্ত্রী জানান, এবারের জি-৭ সামিটে তাঁর উপস্থিতি অত্য়ন্ত তাৎপর্যপূর্ণ কারণ এই বছরে জি-২০-র সভাপতিত্বের দায়িত্ব পেয়েছে ভারত। জি-৭ সদস্য দেশগুলির প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ ও তাদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা নিয়েও আশাবাদী বলে জানান প্রধানমন্ত্রী মোদী।

জাপানে জি-৭ সামিটে যোগ দেওয়ার পর, সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী মোদী পাপুয়া নিউগিনির পোর্ট মোরেসবিতে যাবেন। এটি পাপুয়া নিউগিনিতে প্রধানমন্ত্রী মোদীর প্রথম সফর। একইসঙ্গে ভারতের কোনও প্রধানমন্ত্রী এই প্রথম দ্বীপরাষ্ট্র পাপুয়া নিউগিনির সফরে যাচ্ছেন। সেখানে আগামী ২২ মে প্রধানমন্ত্রী মোদী ফোরাম ফর ইন্ডিয়া-প্যাসিফিক আইল্যান্ডস কো-অপারেশন সামিটে যোগ দেবেন। পাপুয়া নিউগিনির প্রধানমন্ত্রী জেমস মারাপের সঙ্গেও দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন তিনি। এই সামিটে জলবায়ু পরিবর্তন, উন্নয়ন, ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি, প্রশিক্ষণ, স্বাস্থ্য, পরিকাঠামো ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করা হবে বলেই জানান প্রধানমন্ত্রী মোদী।

পাপুয়া নিউগিনির সফর সেরে প্রধানমন্ত্রী মোদী যাবেন অস্ট্রেলিয়ায়। সে দেশের প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজের আমন্ত্রণেই তিনি সিডনিতে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে যোগ দেবেন। একটি বিশেষ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মোদী অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সংস্থার সিইও ও ব্যবসায়ীদের আলোচনাটয় বসবেন। দেখা করবেন অনাবাসী ভারতীয়দের সঙ্গেও। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক