১২:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সম্পর্কের পর্যালোচনায় ভারত-কানাডার কূটনীতিকগণ

বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সার্বিক অবস্থার পর্যালোচনা পূর্বক তা এগিয়ে নেয়ার এবং সম্ভবপর বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত ও কানাডা। ১১ এপ্রিল, মঙ্গলবার, ওটোয়াতে দু দেশের পররাষ্ট্র কর্তাদের মধ্যকার পরামর্শ সভায় এ বিষয়ে নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। বিশেষভাবে, উভয় রাষ্ট্রের বাণিজ্য সম্পর্ক এগিয়ে নেয়ার বিষয়ে আগ্রহ দেখিয়েছেন প্রতিনিধিগণ।

পরবর্তীতে বুধবার, ভারতীয় পররাষ্ট্র দপ্তরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, শক্তি, শিক্ষা, কনস্যুলার সমস্যা, সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধ এবং গতিশীলতার ক্ষেত্রে সহযোগিতা জোরদার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত ও কানাডা।

বৈঠকে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন পররাষ্ট্র দপ্তরের সচিব (পূর্ব) সৌরভ কুমার; অন্যদিকে, কানাডার প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন দেশটির পররাষ্ট্র বিষয়ক উপমন্ত্রী, গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স ডেভিড মরিসন।

উল্লেখ্য, গভীর ও দৃঢ় সম্পর্ক রয়েছে ভারত ও কানাডার মধ্যে। কানাডায় ব্যাপক সংখ্যক ভারতীয় প্রবাসীর বাস রয়েছে। উভয় পক্ষ ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলসহ সমসাময়িক আঞ্চলিক ইস্যু এবং বহুপাক্ষিক সংস্থাগুলিতে সহযোগিতার বিষয়েও আলোচনায় জড়িত।

পররাষ্ট্র দপ্তর সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, ভারতের চলমান জি২০ প্রেসিডেন্সির প্রেক্ষাপটে কানাডা ভারতের নেতৃত্বের প্রতি পূর্ণ সমর্থন প্রকাশ করেছে এবং উভয় পক্ষই জি২০ -এর সাফল্য নিশ্চিত করতে একসঙ্গে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

পরবর্তী পরামর্শ সভা সুবিধাজনক সময়ে নয়াদিল্লীতে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানানো হয়েছে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

সম্পর্কের পর্যালোচনায় ভারত-কানাডার কূটনীতিকগণ

প্রকাশ: ০৬:৩১:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১২ এপ্রিল ২০২৩

বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সার্বিক অবস্থার পর্যালোচনা পূর্বক তা এগিয়ে নেয়ার এবং সম্ভবপর বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত ও কানাডা। ১১ এপ্রিল, মঙ্গলবার, ওটোয়াতে দু দেশের পররাষ্ট্র কর্তাদের মধ্যকার পরামর্শ সভায় এ বিষয়ে নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। বিশেষভাবে, উভয় রাষ্ট্রের বাণিজ্য সম্পর্ক এগিয়ে নেয়ার বিষয়ে আগ্রহ দেখিয়েছেন প্রতিনিধিগণ।

পরবর্তীতে বুধবার, ভারতীয় পররাষ্ট্র দপ্তরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, শক্তি, শিক্ষা, কনস্যুলার সমস্যা, সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধ এবং গতিশীলতার ক্ষেত্রে সহযোগিতা জোরদার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত ও কানাডা।

বৈঠকে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন পররাষ্ট্র দপ্তরের সচিব (পূর্ব) সৌরভ কুমার; অন্যদিকে, কানাডার প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন দেশটির পররাষ্ট্র বিষয়ক উপমন্ত্রী, গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স ডেভিড মরিসন।

উল্লেখ্য, গভীর ও দৃঢ় সম্পর্ক রয়েছে ভারত ও কানাডার মধ্যে। কানাডায় ব্যাপক সংখ্যক ভারতীয় প্রবাসীর বাস রয়েছে। উভয় পক্ষ ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলসহ সমসাময়িক আঞ্চলিক ইস্যু এবং বহুপাক্ষিক সংস্থাগুলিতে সহযোগিতার বিষয়েও আলোচনায় জড়িত।

পররাষ্ট্র দপ্তর সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, ভারতের চলমান জি২০ প্রেসিডেন্সির প্রেক্ষাপটে কানাডা ভারতের নেতৃত্বের প্রতি পূর্ণ সমর্থন প্রকাশ করেছে এবং উভয় পক্ষই জি২০ -এর সাফল্য নিশ্চিত করতে একসঙ্গে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

পরবর্তী পরামর্শ সভা সুবিধাজনক সময়ে নয়াদিল্লীতে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানানো হয়েছে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক