১০:৫৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

করোনা পরবর্তী ভারতে বড় উন্নতি পর্যটনে

দেশের শীর্ষ পর্যটন গন্তব্য কেন্দ্র হিসেবে উত্তরপূর্বের রাজ্যগুলির উত্থানে আনন্দিত প্রধানমন্ত্রী মোদী। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডির একটি টুইটের উত্তর দিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদী লিখেছেন, “আনন্দজনক প্রবণতা। পর্যটন বৃদ্ধি মানে এই অঞ্চলে সমৃদ্ধি বৃদ্ধি।” উল্লেখ্য, মন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি ২০২২ সালে উত্তর পূর্বে অভ্যন্তরীণ এবং আন্তর্জাতিক উভয় ক্ষেত্রের পর্যটকদের আগমনকে অভূতপূর্ব বলে টুইট করেছিলেন। তাঁর এই টুইটের প্রত্যুত্তরে প্রধানমন্ত্রী জানালেন আনন্দের সংবাদ।

মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি আরও বলেছেন যে উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ১১.৮ মিলিয়নেরও বেশি অভ্যন্তরীণ দর্শনার্থী এবং এক লাখের বেশি বিদেশি পর্যটক এসেছেন। তিনি লিখেছেন, এই অঞ্চলটিকে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত করার জন্য সরকারের ব্যাপক প্রচেষ্টার কারণে উত্তর-পূর্ব এখন পর্যটকের কাছে বিশেষ আকর্ষণের জায়গা। উন্নয়নশীল পরিকাঠামো বৃদ্ধি থেকে শুরু করে এই অঞ্চলটিকে বাণিজ্যিক এবং সাংস্কৃতিকভাবে স্বীকৃত করার জন্য, কেন্দ্র সরকীর পর্যটনের ক্ষেত্রে দেশের সর্বাঙ্গীণ বৃদ্ধির জন্য বড় উন্নয়ন প্রকল্পগুলিকে এগিয়ে নিয়ে চলেছে৷

এদিকে বিহু উপলক্ষে অসম জুড়ে বিশেষ প্রস্তুতি চলছে। অসম স্বরাষ্ট্র দফতর জানাচ্ছে, রাজ্যে আসবেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু, প্রধানত নরেন্দ্র মোদী সহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও কূটনৈতিক প্রতিনিধিরা। এবারই বিহু উৎসবকে বৃহত্তম আকার দিতে চলেছে অসম সরকার।

মুখ্যমন্ত্রী ড.হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন, গিনেস বুকে নাম তুলতে বৃহত্তম বিহু নাচের আয়োজন করা হয়েছে। এর ফলে অসম সহ উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণ আরও বাড়বে। তিনি বলেছেন, বিহু উৎসব অসমের বৈশিষ্ট্য। এই উৎসবের কথা আরও বেশি করে বিশ্বের সামনে আনার জন্য চেষ্টা চলছে।

রেলমন্ত্রক ও অসম স্বরাষ্ট্র দফতর সূত্রে জানা যাচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগামী ১৪ এপ্রিল গুয়াহাটি এবং নিউ জলপাইগুড়িকে সংযুক্ত করবে এমন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস যাত্রার সূচনা করবেন। উত্তর-পূর্ব থেকে এটিই প্রথম বন্দে ভারত যাত্রা।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানাচ্ছে, উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে ইতিমধ্যেই ট্রেনটির আনুষ্ঠানিক যাত্রার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে। এনএফআর আধিকারিক জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী যখন গুয়াহাটি সফর করবেন তখন আমরা ১৪ এপ্রিল এই বিশেষ ট্রেনটি চালু করার চেষ্টা করছি। অসমে শুরু হচ্ছে হস্তি উৎসব।

কাজিরাঙ্গা অভয়ারণ্যে এই হস্তি উৎসব দর্শকদের কাছে বিশেষ পছন্দের। কারণ হাতি নিয়ে হরেক খেলা ও অনুষ্ঠান হয়। হস্তি উৎসবে অংশ নিতে কাজিরাঙ্গা আসছেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। অসম পর্যটন বিভাগ জানাচ্ছে, রাষ্ট্রপতির সফরের জন্য দু’দিন বন্ধ থাকবে কাজিরাঙ্গার সাফারি। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

করোনা পরবর্তী ভারতে বড় উন্নতি পর্যটনে

প্রকাশ: ০৫:৩১:১৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৭ এপ্রিল ২০২৩

দেশের শীর্ষ পর্যটন গন্তব্য কেন্দ্র হিসেবে উত্তরপূর্বের রাজ্যগুলির উত্থানে আনন্দিত প্রধানমন্ত্রী মোদী। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডির একটি টুইটের উত্তর দিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদী লিখেছেন, “আনন্দজনক প্রবণতা। পর্যটন বৃদ্ধি মানে এই অঞ্চলে সমৃদ্ধি বৃদ্ধি।” উল্লেখ্য, মন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি ২০২২ সালে উত্তর পূর্বে অভ্যন্তরীণ এবং আন্তর্জাতিক উভয় ক্ষেত্রের পর্যটকদের আগমনকে অভূতপূর্ব বলে টুইট করেছিলেন। তাঁর এই টুইটের প্রত্যুত্তরে প্রধানমন্ত্রী জানালেন আনন্দের সংবাদ।

মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি আরও বলেছেন যে উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ১১.৮ মিলিয়নেরও বেশি অভ্যন্তরীণ দর্শনার্থী এবং এক লাখের বেশি বিদেশি পর্যটক এসেছেন। তিনি লিখেছেন, এই অঞ্চলটিকে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত করার জন্য সরকারের ব্যাপক প্রচেষ্টার কারণে উত্তর-পূর্ব এখন পর্যটকের কাছে বিশেষ আকর্ষণের জায়গা। উন্নয়নশীল পরিকাঠামো বৃদ্ধি থেকে শুরু করে এই অঞ্চলটিকে বাণিজ্যিক এবং সাংস্কৃতিকভাবে স্বীকৃত করার জন্য, কেন্দ্র সরকীর পর্যটনের ক্ষেত্রে দেশের সর্বাঙ্গীণ বৃদ্ধির জন্য বড় উন্নয়ন প্রকল্পগুলিকে এগিয়ে নিয়ে চলেছে৷

এদিকে বিহু উপলক্ষে অসম জুড়ে বিশেষ প্রস্তুতি চলছে। অসম স্বরাষ্ট্র দফতর জানাচ্ছে, রাজ্যে আসবেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু, প্রধানত নরেন্দ্র মোদী সহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও কূটনৈতিক প্রতিনিধিরা। এবারই বিহু উৎসবকে বৃহত্তম আকার দিতে চলেছে অসম সরকার।

মুখ্যমন্ত্রী ড.হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন, গিনেস বুকে নাম তুলতে বৃহত্তম বিহু নাচের আয়োজন করা হয়েছে। এর ফলে অসম সহ উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণ আরও বাড়বে। তিনি বলেছেন, বিহু উৎসব অসমের বৈশিষ্ট্য। এই উৎসবের কথা আরও বেশি করে বিশ্বের সামনে আনার জন্য চেষ্টা চলছে।

রেলমন্ত্রক ও অসম স্বরাষ্ট্র দফতর সূত্রে জানা যাচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগামী ১৪ এপ্রিল গুয়াহাটি এবং নিউ জলপাইগুড়িকে সংযুক্ত করবে এমন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস যাত্রার সূচনা করবেন। উত্তর-পূর্ব থেকে এটিই প্রথম বন্দে ভারত যাত্রা।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানাচ্ছে, উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে ইতিমধ্যেই ট্রেনটির আনুষ্ঠানিক যাত্রার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে। এনএফআর আধিকারিক জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী যখন গুয়াহাটি সফর করবেন তখন আমরা ১৪ এপ্রিল এই বিশেষ ট্রেনটি চালু করার চেষ্টা করছি। অসমে শুরু হচ্ছে হস্তি উৎসব।

কাজিরাঙ্গা অভয়ারণ্যে এই হস্তি উৎসব দর্শকদের কাছে বিশেষ পছন্দের। কারণ হাতি নিয়ে হরেক খেলা ও অনুষ্ঠান হয়। হস্তি উৎসবে অংশ নিতে কাজিরাঙ্গা আসছেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। অসম পর্যটন বিভাগ জানাচ্ছে, রাষ্ট্রপতির সফরের জন্য দু’দিন বন্ধ থাকবে কাজিরাঙ্গার সাফারি। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক