০১:১৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সম্পর্কের নয়া যুগে ভারত-ইতালী

বিশ্বের সমস্ত নেতাদের মধ্যে সবচেয়ে প্রিয় হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রথমবার ভারত সফরে এসে এমনই মন্তব্য করলেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি। কেবল ‘নাম-কে-ওয়াস্তে’ তিনি এই মন্তব্য করেননি, একথা প্রমাণিত দাবি জানিয়ে নরেন্দ্র মোদীকে শুভেচ্ছাও জানান ইতালির প্রধানমন্ত্রী। শুধু তাই নয়, ভারত-ইতালির দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ৭৫ তম বর্ষ উদযাপন করে বিশেষ কয়েকটি ক্ষেত্রে নতুন করে চুক্তিও করেন জর্জিয়া মেলোনি।

জানা গিয়েছে, ভারত সফরে এসে এদিন নয়া দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি। মূলত, ভারত-ইতালি দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে এই বৈঠকে আলোচনা হয়। সেই বৈঠকের পরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী।

ঠিক কী বলেছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি? প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করে ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি বলেন, “বিশ্বের সমস্ত নেতাদের মধ্যে সবচেয়ে প্রিয় হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি এক বড় নেতা বলে সত্যই প্রমাণিত এবং এর জন্য তাঁকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।”

জর্জিয়া মেলোনির উষ্ণ অভ্যর্থনা পেয়ে আপ্লুত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও ইতালির প্রথম মহিলা ও কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে তাঁকে অভিননন্দন জানিয়েছেন। নমো বলেন, “ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনিকে প্রথম ভারত সফরের জন্য অভিনন্দন জানাচ্ছি। গত বছর নির্বাচনে ইতালির জনগণ তাঁকে ভোট দিয়েছে এবং তিনিই ইতালির প্রথম মহিলা ও কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। এই ঐতিহাসিক কৃতিত্বের জন্য ভারতীয়দের পক্ষ থেকে আমি তাঁকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।”

জর্জিয়া মেলোনির সঙ্গে এদিনের বৈঠকে ভারত-ইতালির মধ্যে নতুন ‘সেতু স্থাপন’ হল বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ইতালির কাউন্টারপার্টের সঙ্গে যৌথ বিবৃতি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আরও বলেন, “পুনর্নবীকরণ শক্তি, হাইড্রোজেন, তথ্য-প্রযুক্তি টেলিকম, সেমিকন্ডাক্টর এবং মহাকাশ বিষয়ে ইতালির সঙ্গে ভারতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে। আমরা ঘোষণা করছি যে, ভারত ও ইতালির মধ্যে স্টার্টআপ ব্রিজ প্রতিষ্ঠিত হল। সন্ত্রাসবাদ ও বিচ্ছিন্নতাবাদের বিরুদ্ধে ভারত ও ইতালি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একসঙ্গে কাজ করবে।”

এছাড়া প্রতিরক্ষা রাষ্ট্রপতি ভবনে ক্ষেত্রে ভারত-ইতালি একসঙ্গে কাজ করবে বলেও জানান তিনি। এদিন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি দিল্লিতে আসার পরই রাষ্ট্রপতি ভবনে তাঁকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয়। ‘ট্রাই-সার্ভিসের গার্ড অফ অনার’ দেওয়া হয় মেলোনিকে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

সম্পর্কের নয়া যুগে ভারত-ইতালী

প্রকাশ: ০১:৫৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ ২০২৩

বিশ্বের সমস্ত নেতাদের মধ্যে সবচেয়ে প্রিয় হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রথমবার ভারত সফরে এসে এমনই মন্তব্য করলেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি। কেবল ‘নাম-কে-ওয়াস্তে’ তিনি এই মন্তব্য করেননি, একথা প্রমাণিত দাবি জানিয়ে নরেন্দ্র মোদীকে শুভেচ্ছাও জানান ইতালির প্রধানমন্ত্রী। শুধু তাই নয়, ভারত-ইতালির দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ৭৫ তম বর্ষ উদযাপন করে বিশেষ কয়েকটি ক্ষেত্রে নতুন করে চুক্তিও করেন জর্জিয়া মেলোনি।

জানা গিয়েছে, ভারত সফরে এসে এদিন নয়া দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি। মূলত, ভারত-ইতালি দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে এই বৈঠকে আলোচনা হয়। সেই বৈঠকের পরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী।

ঠিক কী বলেছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি? প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করে ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি বলেন, “বিশ্বের সমস্ত নেতাদের মধ্যে সবচেয়ে প্রিয় হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি এক বড় নেতা বলে সত্যই প্রমাণিত এবং এর জন্য তাঁকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।”

জর্জিয়া মেলোনির উষ্ণ অভ্যর্থনা পেয়ে আপ্লুত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও ইতালির প্রথম মহিলা ও কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে তাঁকে অভিননন্দন জানিয়েছেন। নমো বলেন, “ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনিকে প্রথম ভারত সফরের জন্য অভিনন্দন জানাচ্ছি। গত বছর নির্বাচনে ইতালির জনগণ তাঁকে ভোট দিয়েছে এবং তিনিই ইতালির প্রথম মহিলা ও কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। এই ঐতিহাসিক কৃতিত্বের জন্য ভারতীয়দের পক্ষ থেকে আমি তাঁকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।”

জর্জিয়া মেলোনির সঙ্গে এদিনের বৈঠকে ভারত-ইতালির মধ্যে নতুন ‘সেতু স্থাপন’ হল বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ইতালির কাউন্টারপার্টের সঙ্গে যৌথ বিবৃতি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আরও বলেন, “পুনর্নবীকরণ শক্তি, হাইড্রোজেন, তথ্য-প্রযুক্তি টেলিকম, সেমিকন্ডাক্টর এবং মহাকাশ বিষয়ে ইতালির সঙ্গে ভারতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে। আমরা ঘোষণা করছি যে, ভারত ও ইতালির মধ্যে স্টার্টআপ ব্রিজ প্রতিষ্ঠিত হল। সন্ত্রাসবাদ ও বিচ্ছিন্নতাবাদের বিরুদ্ধে ভারত ও ইতালি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একসঙ্গে কাজ করবে।”

এছাড়া প্রতিরক্ষা রাষ্ট্রপতি ভবনে ক্ষেত্রে ভারত-ইতালি একসঙ্গে কাজ করবে বলেও জানান তিনি। এদিন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি দিল্লিতে আসার পরই রাষ্ট্রপতি ভবনে তাঁকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয়। ‘ট্রাই-সার্ভিসের গার্ড অফ অনার’ দেওয়া হয় মেলোনিকে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক