১১:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভারত সর্বদাই প্রস্তুত রয়েছে: রাজনাথ

গালওয়ান উপত্যকা ও অরুণাচল প্রদেশের তাওয়াং সেক্টরে ভারত ও চীনা সেনার মুখোমুখি সংঘর্ষের সময় ভারতের সশস্ত্র বাহিনী প্রশংসনীয় সাহসিকতা দেখিয়েছে ৷ শনিবার এই কথা জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং।

তিনি এই ইস্যুতে তোপ দেগেছেন রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে৷ তিনি বলেন, “সশস্ত্র বাহিনী যেভাবে বীরত্ব প্রদর্শন করেছে, তার জন্য কোনও পরিমাণ প্রশংসাই যথেষ্ট নয়, তা গালওয়ান হোক বা তাওয়াং ৷ সমাজকে সঠিক পথে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াকে বলা হয় ‘রাজনীতি’। সব সময় কারও উদ্দেশ্য নিয়ে সন্দেহ করার পেছনের কারণ বুঝি না৷’’

এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন, ২০২০ সালের জুনে গালওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চীনের সেনার মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। সেই নিয়ে দীর্ঘদিন দুই দেশের মধ্যে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর উত্তেজনা ছিল৷ সেই নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে একাধিক বৈঠক হয়৷ তার পর আবার গত ০৯ ডিসেম্বর অরুণাচল প্রদেশের তাওয়াং সেক্টরের ইয়াংটসে এলাকায় ভারত ও চীনা পিএলএ-র মধ্যে সংঘর্ষ হয়

এই নিয়ে হইচই শুরু হয়েছে৷ বিরোধীরা তোপ দেগেছে কেন্দ্রের মোদি সরকারের বিরুদ্ধে৷ সংসদও উত্তাল হয়েছে৷ সংসদে বিবৃতি দিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং৷ তার পরও বিরোধীরা এই নিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনায় সরব৷ শুক্রবার রাজস্থানের জয়পুর থেকে এই ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী৷

তিনি বলেন, “চীনের পক্ষ থেকে একটি স্পষ্ট হুমকি রয়েছে। সরকার এটাকে আড়াল করার চেষ্টা করছে। কিন্তু সেই হুমকি উপেক্ষা করা বা লুকানো যাবে না। চীন লাদাখ এবং অরুণাচল প্রদেশের দিকে আক্রমণাত্মক প্রস্তুতি নিচ্ছে। ভারত সরকার ঘুমিয়ে রয়েছে। এটা শুনতে চায় না। চীন যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে৷ শুধু অনুপ্রবেশ করতে চায় না।’’ ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এদিন সেনার বীরত্বের কথা তুলে ধরে আসলে রাহুলকেই পালটা জবাব দিলেন রাজনাথ৷ খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

ভারত সর্বদাই প্রস্তুত রয়েছে: রাজনাথ

প্রকাশ: ১১:৫৯:৫৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০২২

গালওয়ান উপত্যকা ও অরুণাচল প্রদেশের তাওয়াং সেক্টরে ভারত ও চীনা সেনার মুখোমুখি সংঘর্ষের সময় ভারতের সশস্ত্র বাহিনী প্রশংসনীয় সাহসিকতা দেখিয়েছে ৷ শনিবার এই কথা জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং।

তিনি এই ইস্যুতে তোপ দেগেছেন রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে৷ তিনি বলেন, “সশস্ত্র বাহিনী যেভাবে বীরত্ব প্রদর্শন করেছে, তার জন্য কোনও পরিমাণ প্রশংসাই যথেষ্ট নয়, তা গালওয়ান হোক বা তাওয়াং ৷ সমাজকে সঠিক পথে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াকে বলা হয় ‘রাজনীতি’। সব সময় কারও উদ্দেশ্য নিয়ে সন্দেহ করার পেছনের কারণ বুঝি না৷’’

এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন, ২০২০ সালের জুনে গালওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চীনের সেনার মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। সেই নিয়ে দীর্ঘদিন দুই দেশের মধ্যে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর উত্তেজনা ছিল৷ সেই নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে একাধিক বৈঠক হয়৷ তার পর আবার গত ০৯ ডিসেম্বর অরুণাচল প্রদেশের তাওয়াং সেক্টরের ইয়াংটসে এলাকায় ভারত ও চীনা পিএলএ-র মধ্যে সংঘর্ষ হয়

এই নিয়ে হইচই শুরু হয়েছে৷ বিরোধীরা তোপ দেগেছে কেন্দ্রের মোদি সরকারের বিরুদ্ধে৷ সংসদও উত্তাল হয়েছে৷ সংসদে বিবৃতি দিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং৷ তার পরও বিরোধীরা এই নিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনায় সরব৷ শুক্রবার রাজস্থানের জয়পুর থেকে এই ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী৷

তিনি বলেন, “চীনের পক্ষ থেকে একটি স্পষ্ট হুমকি রয়েছে। সরকার এটাকে আড়াল করার চেষ্টা করছে। কিন্তু সেই হুমকি উপেক্ষা করা বা লুকানো যাবে না। চীন লাদাখ এবং অরুণাচল প্রদেশের দিকে আক্রমণাত্মক প্রস্তুতি নিচ্ছে। ভারত সরকার ঘুমিয়ে রয়েছে। এটা শুনতে চায় না। চীন যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে৷ শুধু অনুপ্রবেশ করতে চায় না।’’ ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এদিন সেনার বীরত্বের কথা তুলে ধরে আসলে রাহুলকেই পালটা জবাব দিলেন রাজনাথ৷ খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক