১১:৩৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

৮৫ হাজার কোটি রুপীর অস্ত্র কিনবে ভারত

অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র কিনতে প্রায় ৮৫ হাজার কোটি টাকার বরাদ্দ অনুমোদন করল কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহের নেতৃত্বে এক বিশেষ উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র কেনার প্রস্তাব মঞ্জুর করা হয়। ‘ইনফ্যান্ট্রি কমব্যাট ভেহিকল’, লাইট ট্যাঙ্কস এবং মিসাইল সিস্টেম-সহ প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি ও অস্ত্র কিনতে ওই অর্থের অনুমোদন করা হয়েছে।

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, চিনের সময়ে ভারতের উত্তেজনার পারদ সাম্প্রতিক সময়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। গালওয়ান সংঘর্ষের পরে কিছুদিন আগেও অরুণাচল সীমান্তে আরেক দফা চিন-ভারত সংঘর্ষ হয়েছে।

তাই এই পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে সামরিক অস্ত্রভাণ্ডারকে সজ্জিত করে চীনকে বিশেষ বার্তা দিতে চাইছে কেন্দ্র। এক প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞের কথায়, ‘‘যা কিছু হোক, আমরা তৈরি রয়েছি। এই সমরাস্ত্র কেনার অনুমোদন এই বার্তাই দিচ্ছে। বলা যেতে পারে, একটা চাপ সৃষ্টি করা গেল শত্রুশিবিরে।’’

প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সূত্রের খবর, ‘ডিফেন্স অ্যাকুইজিশন কাউন্সিল’ সমরাস্ত্র কেনার মোট ২৪ টি প্রস্তাব নিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের নেতৃত্বে বৈঠকে বসেছিল বৃহস্পতিবার। এই ২৪ টি প্রস্তাবের মধ্যে ৬ টি করে প্রস্তাব ছিল ভারতীয় বিমান বাহিনী ও ভারতীয় সেনাবাহিনীর, ১০ টি প্রস্তাব ছিল ভারতীয় নৌ বাহিনীর ও ২ টি প্রস্তাব ছিল ভারতীয় উপকূলরক্ষী বাহিনীর।

উল্লেখ্য, ২৪ টি প্রস্তাবের মধ্যে ২১ টি প্রস্তাবের ক্ষেত্রেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে সেই অস্ত্রশস্ত্রগুলো দেশীয় সংস্থার কাছ থেকে নেওয়া হবে। অঙ্কের মূল্যে দেশীয় সংস্থার কাছ থেকে নেওয়া মোট অস্ত্রের প্রস্তাবিত অর্থমূল্য হল ৮২,১২৭ কোটি টাকা (মোট বরাদ্দের ৯৭.৪%)। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

৮৫ হাজার কোটি রুপীর অস্ত্র কিনবে ভারত

প্রকাশ: ০৯:০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২২

অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র কিনতে প্রায় ৮৫ হাজার কোটি টাকার বরাদ্দ অনুমোদন করল কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহের নেতৃত্বে এক বিশেষ উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র কেনার প্রস্তাব মঞ্জুর করা হয়। ‘ইনফ্যান্ট্রি কমব্যাট ভেহিকল’, লাইট ট্যাঙ্কস এবং মিসাইল সিস্টেম-সহ প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি ও অস্ত্র কিনতে ওই অর্থের অনুমোদন করা হয়েছে।

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, চিনের সময়ে ভারতের উত্তেজনার পারদ সাম্প্রতিক সময়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। গালওয়ান সংঘর্ষের পরে কিছুদিন আগেও অরুণাচল সীমান্তে আরেক দফা চিন-ভারত সংঘর্ষ হয়েছে।

তাই এই পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে সামরিক অস্ত্রভাণ্ডারকে সজ্জিত করে চীনকে বিশেষ বার্তা দিতে চাইছে কেন্দ্র। এক প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞের কথায়, ‘‘যা কিছু হোক, আমরা তৈরি রয়েছি। এই সমরাস্ত্র কেনার অনুমোদন এই বার্তাই দিচ্ছে। বলা যেতে পারে, একটা চাপ সৃষ্টি করা গেল শত্রুশিবিরে।’’

প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সূত্রের খবর, ‘ডিফেন্স অ্যাকুইজিশন কাউন্সিল’ সমরাস্ত্র কেনার মোট ২৪ টি প্রস্তাব নিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের নেতৃত্বে বৈঠকে বসেছিল বৃহস্পতিবার। এই ২৪ টি প্রস্তাবের মধ্যে ৬ টি করে প্রস্তাব ছিল ভারতীয় বিমান বাহিনী ও ভারতীয় সেনাবাহিনীর, ১০ টি প্রস্তাব ছিল ভারতীয় নৌ বাহিনীর ও ২ টি প্রস্তাব ছিল ভারতীয় উপকূলরক্ষী বাহিনীর।

উল্লেখ্য, ২৪ টি প্রস্তাবের মধ্যে ২১ টি প্রস্তাবের ক্ষেত্রেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে সেই অস্ত্রশস্ত্রগুলো দেশীয় সংস্থার কাছ থেকে নেওয়া হবে। অঙ্কের মূল্যে দেশীয় সংস্থার কাছ থেকে নেওয়া মোট অস্ত্রের প্রস্তাবিত অর্থমূল্য হল ৮২,১২৭ কোটি টাকা (মোট বরাদ্দের ৯৭.৪%)। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক