০১:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জি-২০: বিশ্বে ভারতের সক্ষমতা তুলে ধরার সুযোগ

সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনে ভারতের জি-২০ প্রেসিডেন্সি নিয়ে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, আজাদি কা অমৃত মহোৎসবের বছরেই ভারতের জি-২০ প্রেসিডেন্সি। সেই কারণেই এবারের এই শীতকালীন অধিবেশন যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ।

রাজ্যসভায় উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়ের প্রথম দিনে রাজ্যসভার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করলেন তিনি। তাঁকে ধন্যবাদ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, “এমন একটা সময়ে এই সংসদের অধিবেশন হচ্ছে যখন ভারত একইসঙ্গে স্বাধীনতার ৭৫ বছর এবং জি-২০ এর প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করেছে।”

সংসদে পা রাখার আগে প্রথা মাফিক সংবাদমাধ্যমের সামনে তিনি বলেন, জি ২০ প্রেসিডেন্সি ভারতের সামনে একটি বড় সুযোগ। তাঁর কথায়, “আজ শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিন। এই অধিবেশন গুরুত্ব পূর্ণ। কারণ আর আগে আমাদের দেখা হয়েছিল ১৫ আগস্টের আগে। গত ১৫ আগস্ট স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্ণ হয়েছে এবং আমরা আজাদি কা অমৃত কালের দিকে এগিয়ে চলেছি। এমন একটা সময়ে আমাদের দেখা হয়েছে যখন ভারত জি ২০ এর প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করেছে।”

ভাষণে এদিন ভারতের জি-২০ প্রেসিডেন্সির ওপরেই জোর দেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, “যেভাবে আন্তর্জাতিক সমাজে ভারত জায়গা তৈরি করেছে, যেভাবে ভারতের প্রতি প্রত্যাশা বেড়েছে এবং এই আমায় যেভাবে ভারত আন্তর্জাতিক মঞ্চে অংশ নিয়েছে, সেই সময় ভারতের জি ২০ প্রেসিডেন্সি একটি বড় সুযোগ।”

তাঁর কথায়, জি-২০ শুধু একটি কূটনৈতিক অনুষ্ঠান নয়, বিশ্বের দরবারে ভারতের ক্ষমতা তুলে ধরার সুযোগ । এমন একটি বড় দেশে যা গণতন্ত্রের মাতৃভূমি, এত বৈচিত্র্যময়, সারা বিশ্বের কাছেও ভারত সম্পর্কে জানার এটি একটি সুবর্ণ সুযোগ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ১ ডিসেম্বর জি ২০ এর প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করেছে ভারত। লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লাও এদিন জি ২০ এর ভারতের প্রেসিডেন্সি নিয়ে অভিনন্দন জানান।

তিনি সভার শুরুতেই বলেন, “ভারত জি ২০ প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করেছে ১ ডিসেম্বর। আজাদির অমৃত মহোৎসবে এই দায়িত্বভার গ্রহণ ভারতের কাছে অত্যন্ত গর্বের। লোকসভার তরফে আমি কেন্দ্রীয় সরকার এবং দেশবাসীকে অভিনন্দন জানাই। আমি আশা রাখি ২০২৩ সালে জি-২০ সম্মেলনের সঙ্গে সঙ্গে গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির স্পিকারদের পি ২০ সম্মেলন স্বাধীনতার পর এক ঐতিহাসিক মুহূর্ত হিসেবে থাকবে।” খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

জি-২০: বিশ্বে ভারতের সক্ষমতা তুলে ধরার সুযোগ

প্রকাশ: ০৯:৩৬:৪৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২

সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনে ভারতের জি-২০ প্রেসিডেন্সি নিয়ে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, আজাদি কা অমৃত মহোৎসবের বছরেই ভারতের জি-২০ প্রেসিডেন্সি। সেই কারণেই এবারের এই শীতকালীন অধিবেশন যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ।

রাজ্যসভায় উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়ের প্রথম দিনে রাজ্যসভার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করলেন তিনি। তাঁকে ধন্যবাদ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, “এমন একটা সময়ে এই সংসদের অধিবেশন হচ্ছে যখন ভারত একইসঙ্গে স্বাধীনতার ৭৫ বছর এবং জি-২০ এর প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করেছে।”

সংসদে পা রাখার আগে প্রথা মাফিক সংবাদমাধ্যমের সামনে তিনি বলেন, জি ২০ প্রেসিডেন্সি ভারতের সামনে একটি বড় সুযোগ। তাঁর কথায়, “আজ শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিন। এই অধিবেশন গুরুত্ব পূর্ণ। কারণ আর আগে আমাদের দেখা হয়েছিল ১৫ আগস্টের আগে। গত ১৫ আগস্ট স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্ণ হয়েছে এবং আমরা আজাদি কা অমৃত কালের দিকে এগিয়ে চলেছি। এমন একটা সময়ে আমাদের দেখা হয়েছে যখন ভারত জি ২০ এর প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করেছে।”

ভাষণে এদিন ভারতের জি-২০ প্রেসিডেন্সির ওপরেই জোর দেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, “যেভাবে আন্তর্জাতিক সমাজে ভারত জায়গা তৈরি করেছে, যেভাবে ভারতের প্রতি প্রত্যাশা বেড়েছে এবং এই আমায় যেভাবে ভারত আন্তর্জাতিক মঞ্চে অংশ নিয়েছে, সেই সময় ভারতের জি ২০ প্রেসিডেন্সি একটি বড় সুযোগ।”

তাঁর কথায়, জি-২০ শুধু একটি কূটনৈতিক অনুষ্ঠান নয়, বিশ্বের দরবারে ভারতের ক্ষমতা তুলে ধরার সুযোগ । এমন একটি বড় দেশে যা গণতন্ত্রের মাতৃভূমি, এত বৈচিত্র্যময়, সারা বিশ্বের কাছেও ভারত সম্পর্কে জানার এটি একটি সুবর্ণ সুযোগ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ১ ডিসেম্বর জি ২০ এর প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করেছে ভারত। লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লাও এদিন জি ২০ এর ভারতের প্রেসিডেন্সি নিয়ে অভিনন্দন জানান।

তিনি সভার শুরুতেই বলেন, “ভারত জি ২০ প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করেছে ১ ডিসেম্বর। আজাদির অমৃত মহোৎসবে এই দায়িত্বভার গ্রহণ ভারতের কাছে অত্যন্ত গর্বের। লোকসভার তরফে আমি কেন্দ্রীয় সরকার এবং দেশবাসীকে অভিনন্দন জানাই। আমি আশা রাখি ২০২৩ সালে জি-২০ সম্মেলনের সঙ্গে সঙ্গে গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির স্পিকারদের পি ২০ সম্মেলন স্বাধীনতার পর এক ঐতিহাসিক মুহূর্ত হিসেবে থাকবে।” খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক