০৬:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঐতিহাসিক ঘোষণাপত্রে সই ভারত-এন্ডোরার

দ্বিপাক্ষিক অংশীদারিত্ব ও সহযোগিতার বন্ধন দৃঢ় করতে এক ঐতিহাসিক পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত ও এন্ডোরা। গত সোমবার, নয়াদিল্লীতে উভয় রাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে এক যুগান্তকারী ঘোষণাপত্র স্বাক্ষরিত হয়। এসময়, দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসতে এবং বৈশ্বিক ও আঞ্চলিক নানা ইস্যুতে মতবিনিময় করতেও দেখা যায় দুই নেতাকে।

পরবর্তীতে তথ্যটি নিশ্চিত করে এক বিবৃতি দিয়েছে ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর। তারা জানায়, ১৯৯৪ সালে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হওয়ার পর দু দেশের মধ্যে এটিই প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের দ্বিপাক্ষিক সফর। এসময়, শিক্ষা, সংস্কৃতি, বিজ্ঞান, তথ্য, যুব, ক্রীড়া, পর্যটন, কূটনীতি, স্বাস্থ্য এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতার কাঠামো তৈরি করে, এমন একটি যৌথ ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং এন্ডোরার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মারিয়া উবাচ ফন্ট। উভয় দেশই ভবিষ্যতে পারস্পরিক স্বার্থের নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে চুক্তি করতে ভবিষ্যতেও এঁকে অন্যের পাশে থাকবে।”

জানা গিয়েছে, বহুপাক্ষিক ফোরামগুলোতে, বিশেষ করে জাতিসংঘে ভারতের অবস্থান এবং প্রার্থীদের সমর্থনের জন্য এন্ডোরার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। ইউএন মাউন্টেন পার্টনারশিপ উদ্যোগ এবং আইএমএফ-এ সদস্য হওয়ার জন্য তিনি এন্ডোরার সরকার ও নেতৃত্বকে অভিনন্দিত করেন।

এছাড়া, এসডিজি এজেন্ডা বাস্তবায়ন ও কার্বন মুক্ত বিশ্ব গড়তে একে অন্যকে কীভাবে সাহায্য ও সহযোগিতা করতে পারে, এসব বিষয়ে বিশদ আলোচনা করেন দুই নেতা। পাশাপাশি ভারতকে স্বাধীনতার ৭৫ বছরে পদার্পণের জন্য শুভকামনা জানান এন্ডোরার পররাষ্ট্রমন্ত্রী। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

ঐতিহাসিক ঘোষণাপত্রে সই ভারত-এন্ডোরার

প্রকাশ: ০১:৪৬:১৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২

দ্বিপাক্ষিক অংশীদারিত্ব ও সহযোগিতার বন্ধন দৃঢ় করতে এক ঐতিহাসিক পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত ও এন্ডোরা। গত সোমবার, নয়াদিল্লীতে উভয় রাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে এক যুগান্তকারী ঘোষণাপত্র স্বাক্ষরিত হয়। এসময়, দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসতে এবং বৈশ্বিক ও আঞ্চলিক নানা ইস্যুতে মতবিনিময় করতেও দেখা যায় দুই নেতাকে।

পরবর্তীতে তথ্যটি নিশ্চিত করে এক বিবৃতি দিয়েছে ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর। তারা জানায়, ১৯৯৪ সালে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হওয়ার পর দু দেশের মধ্যে এটিই প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের দ্বিপাক্ষিক সফর। এসময়, শিক্ষা, সংস্কৃতি, বিজ্ঞান, তথ্য, যুব, ক্রীড়া, পর্যটন, কূটনীতি, স্বাস্থ্য এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতার কাঠামো তৈরি করে, এমন একটি যৌথ ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং এন্ডোরার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মারিয়া উবাচ ফন্ট। উভয় দেশই ভবিষ্যতে পারস্পরিক স্বার্থের নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে চুক্তি করতে ভবিষ্যতেও এঁকে অন্যের পাশে থাকবে।”

জানা গিয়েছে, বহুপাক্ষিক ফোরামগুলোতে, বিশেষ করে জাতিসংঘে ভারতের অবস্থান এবং প্রার্থীদের সমর্থনের জন্য এন্ডোরার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। ইউএন মাউন্টেন পার্টনারশিপ উদ্যোগ এবং আইএমএফ-এ সদস্য হওয়ার জন্য তিনি এন্ডোরার সরকার ও নেতৃত্বকে অভিনন্দিত করেন।

এছাড়া, এসডিজি এজেন্ডা বাস্তবায়ন ও কার্বন মুক্ত বিশ্ব গড়তে একে অন্যকে কীভাবে সাহায্য ও সহযোগিতা করতে পারে, এসব বিষয়ে বিশদ আলোচনা করেন দুই নেতা। পাশাপাশি ভারতকে স্বাধীনতার ৭৫ বছরে পদার্পণের জন্য শুভকামনা জানান এন্ডোরার পররাষ্ট্রমন্ত্রী। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক