০২:১৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভূটান-ভারত স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ ইসরোর

ফের একবার ইতিহাস গড়লো ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো! OceanSat-3 সহ ৯টি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করল ইসরো। আজ শনিবার সকালে শ্রীহরি কোটা থেকে এই রকেট মহাকাশের উদ্দেশ্যে উৎক্ষেপণ করা হয়। আর তা সাফল্যের সঙ্গে মহাকাশের উদ্দেশ্যে উড়ে গিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এতে ভারতের শক্তিশালী রকেট PSLV-XL -এর সাহায্য নেওয়া হয়েছে। ইসরোর তরফে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, রিমোট সেন্সিং স্যাটেলাইটসহ আটটি ন্যানো স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠানো হয়েছে। যার সাহায্যে ঝড়ের মতো প্রাকৃতিক বিপর্যয়, আবহাওয়া সহ একাধিক তথ্য সঠিক পাওয়া যাবে। এছাড়াও এর মাধ্যমে সমুদ্রপৃষ্ঠে নজরদারি চালানোর জন্য কে ইউ ব্যান্ড স্ক্যারোমিটার রয়েছে।

স্পেস এজেন্সি সূত্রে জানা যাচ্ছে, আজ শনিবার সকাল ১১ টা ৫৬ মিনিটে শ্রীহরিকোটার সতীশ ধবন স্পেস সেন্টার থেকে এই রকেট উৎক্ষেপণ করা হয়। আপাতত শুরুতেই সফল ভাবে নিজস্ব পথ ধরেই রকেটটি এগিয়ে যাচ্ছে বলে মহাকাশ গবেষণা সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে। শুধু তাই নয়, বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন এই উৎক্ষেপণ কার্যত ইতিহাস ভারতের কাছে। কারণ সামুদ্রিক গবেষণা এবং আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য পাওয়ার ক্ষেত্রে আরও একধাপ এগিয়ে গেল ভারত। এমনটাই মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

অন্যদিকে এর মধ্যে একটি স্যাটেলাইট BhutanSat aka INS-2B রয়েছে। এটিকে ভারত এবং ভুটান একযোগে তৈরি করেছে বলে প্রকাশিত খবরে দাবি করেছে। ইসরোর তরফে দেওয়া এক বার্তাতে জানানো হয়েছে, BhutanSat-এ একাধিক সেন্সর ক্যামেরা লাগানো রয়েছে। যা মাটিতে মনিটারিংয়ের কাজে সাফল্য এনে দেবে। এর সাহায্যে ব্রিজ, রোড সহ একাধিক কাজ খুব সহজেই করা যাবে। আর এজন্যেই ভুটান এবং ভারত একে অপরকে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি শেয়ার করেছে। আর স্যাটেলাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য যা সোজা বিজ্ঞানীদের কাছে আসবে।

জানা যাচ্ছে, এই কাজ করতে ভারত এবং ভুটান একটি ডেটা সেন্টার তৈরি করছে। যেখানে সমস্ত তথ্য স্টোর হবে। বলে রাখা প্রয়োজন, এই বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছে ভারত এবং ভুটান। অন্যদিকে OceanSat-3 হাজার কিলোর স্যাটেলাইট। যেটিকে কিনা EOS-6-এর নামেও চিহ্নিত করা যায়। এর মাধ্যমে সামুদ্রিক সীমান্ত সংক্রান্ত তথ্য খুব সহজে পাওয়া যাবে। জানা যাচ্ছে, sun-synchronous orbit-এ স্যাটেলাইটটিকে বসানো হবে বলে জানা যাচ্ছে। বলে রাখা প্রয়োজন, এই সিরিজের প্রথম স্যাটেলাইট Oceansat -1 ২৬ মে ১৯৯৯ সালে প্রথম লঞ্চ করা হয়। Oceansat 2 ২০০৯ সালে লঞ্চ করা হয়। এবার একেবারে থার্ড জেনারেশনের অত্যাধুনিক স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হল। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:
জনপ্রিয়

ভূটান-ভারত স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ ইসরোর

প্রকাশ: ০১:৪৩:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২

ফের একবার ইতিহাস গড়লো ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো! OceanSat-3 সহ ৯টি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করল ইসরো। আজ শনিবার সকালে শ্রীহরি কোটা থেকে এই রকেট মহাকাশের উদ্দেশ্যে উৎক্ষেপণ করা হয়। আর তা সাফল্যের সঙ্গে মহাকাশের উদ্দেশ্যে উড়ে গিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এতে ভারতের শক্তিশালী রকেট PSLV-XL -এর সাহায্য নেওয়া হয়েছে। ইসরোর তরফে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, রিমোট সেন্সিং স্যাটেলাইটসহ আটটি ন্যানো স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠানো হয়েছে। যার সাহায্যে ঝড়ের মতো প্রাকৃতিক বিপর্যয়, আবহাওয়া সহ একাধিক তথ্য সঠিক পাওয়া যাবে। এছাড়াও এর মাধ্যমে সমুদ্রপৃষ্ঠে নজরদারি চালানোর জন্য কে ইউ ব্যান্ড স্ক্যারোমিটার রয়েছে।

স্পেস এজেন্সি সূত্রে জানা যাচ্ছে, আজ শনিবার সকাল ১১ টা ৫৬ মিনিটে শ্রীহরিকোটার সতীশ ধবন স্পেস সেন্টার থেকে এই রকেট উৎক্ষেপণ করা হয়। আপাতত শুরুতেই সফল ভাবে নিজস্ব পথ ধরেই রকেটটি এগিয়ে যাচ্ছে বলে মহাকাশ গবেষণা সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে। শুধু তাই নয়, বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন এই উৎক্ষেপণ কার্যত ইতিহাস ভারতের কাছে। কারণ সামুদ্রিক গবেষণা এবং আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য পাওয়ার ক্ষেত্রে আরও একধাপ এগিয়ে গেল ভারত। এমনটাই মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

অন্যদিকে এর মধ্যে একটি স্যাটেলাইট BhutanSat aka INS-2B রয়েছে। এটিকে ভারত এবং ভুটান একযোগে তৈরি করেছে বলে প্রকাশিত খবরে দাবি করেছে। ইসরোর তরফে দেওয়া এক বার্তাতে জানানো হয়েছে, BhutanSat-এ একাধিক সেন্সর ক্যামেরা লাগানো রয়েছে। যা মাটিতে মনিটারিংয়ের কাজে সাফল্য এনে দেবে। এর সাহায্যে ব্রিজ, রোড সহ একাধিক কাজ খুব সহজেই করা যাবে। আর এজন্যেই ভুটান এবং ভারত একে অপরকে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি শেয়ার করেছে। আর স্যাটেলাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য যা সোজা বিজ্ঞানীদের কাছে আসবে।

জানা যাচ্ছে, এই কাজ করতে ভারত এবং ভুটান একটি ডেটা সেন্টার তৈরি করছে। যেখানে সমস্ত তথ্য স্টোর হবে। বলে রাখা প্রয়োজন, এই বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছে ভারত এবং ভুটান। অন্যদিকে OceanSat-3 হাজার কিলোর স্যাটেলাইট। যেটিকে কিনা EOS-6-এর নামেও চিহ্নিত করা যায়। এর মাধ্যমে সামুদ্রিক সীমান্ত সংক্রান্ত তথ্য খুব সহজে পাওয়া যাবে। জানা যাচ্ছে, sun-synchronous orbit-এ স্যাটেলাইটটিকে বসানো হবে বলে জানা যাচ্ছে। বলে রাখা প্রয়োজন, এই সিরিজের প্রথম স্যাটেলাইট Oceansat -1 ২৬ মে ১৯৯৯ সালে প্রথম লঞ্চ করা হয়। Oceansat 2 ২০০৯ সালে লঞ্চ করা হয়। এবার একেবারে থার্ড জেনারেশনের অত্যাধুনিক স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হল। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক