রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৩:০৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম
স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র দিবসে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের মোমবাতি প্রজ্বলন আনন্দমোহন কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগে নতুন ক্লাব প্রতিষ্ঠা অসহায় ক্ষুর্ধাতদে মাঝে ২ টাকার খাবার বিতরণ বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস ২০২০ এর ভারোত্তোলন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ মসিক মেয়রের ২য় ডোজ গ্রহণের মাধ্যমে করোনা ভ্যাক্সিনের ২য় ডোজের উদ্বোধন ময়মনসিংহে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে জেলা প্রশাসনে ১৫১টি মামলায় ১,১৪,৪৫০ টাকা জরিমানা আন্তঃ বর্ষ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট -২০২১ এর ফাইনাল অনুষ্ঠিত ময়মনসিংহে লকডাউনে কঠোর প্রশাসন ২৬৩ মামলায় ২,১৪,৭১৫ টাকা জরিমানা গৌরীপুরে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিকসহ তাঁর ছোট বোন আহত জাগ্রত আছিম গ্রন্থাগারে বুক রিভিউ প্রতিযোগিতার পুরষ্কার

ভাইরাল হওয়া মা-ছেলের সঙ্গে দেখা করলেন মুশফিক

ভাইরাল হওয়া মা-ছেলের সঙ্গে দেখা করলেন মুশফিক

রাজধানী ঢাকার পল্টন ময়দানে মা ও ছেলের ক্রিকেট খেলার ছবি সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এরপর শুরু হয় নানা আলোচনা-সমালোচনা। অনেকেই মায়ের উদ্যম আর সাহসিকতার প্রশংসা করছেন। অনেকে আবার বাঁকা চোখে দেখছেন বিষয়টিকে।

যা দৃষ্টি এড়ায়নি জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমের। বুধবার দুপুরে বনানী মাঠে তাদের আমন্ত্রণ জানান টাইগার তারকা। ১১ বছর বয়সী মাদ্রাসা ছাত্র শেখ ইয়ামিন সিনানকে উপহার হিসেবে মুশফিক দেন নিজের ব্যাটিং গ্লাভস, বাংলাদেশ দলের রঙিন জার্সি ও অটোগ্রাফযুক্ত স্মারক ব্যাট।

ভাইরাল হওয়া মা-ছেলের সঙ্গে দেখা করলেন মুশফিক

ভাইরাল হওয়া মা-ছেলের সঙ্গে দেখা করলেন মুশফিক

মুশফিকের সেই ছবিগুলো এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

জানা গেছে, আরামবাগের একটি মাদ্রাসার ছাত্র ইয়ামিন সিনান। পড়াশোনার পাশাপাশি কবি নজরুল ক্রিকেট একাডেমিতে অনুশীলন করে সে। তবে সেদিন তার সতীর্থ কিংবা কোচ নির্ধারিত সময়ে না পৌঁছানোয় মায়ের সঙ্গেই অনুশীলনে নেমে পড়েছিল ছোট্ট ইয়ামিন।

তবে মা-ছেলের ক্রিকেট খেলার সেই ছবি নিয়ে হয়েছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। সন্তানের আবদার রক্ষা করে তাকে আনন্দ দেওয়ার জন্য বোরকা পরা অবস্থায়ও ক্রিকেট খেলেছেন বলে সব সমালোচনাকে উড়িয়ে দিয়েছেন মা ঝর্ণা আক্তার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© ২০১৯ দৈনিক নবযুগ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Designed and developed by Smk Ishtiak