০৪:০১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

এলাকাভিত্তিক “ব্লাডজোন” তৈরীর নির্দেশনা দিলো সঞ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের প্রথম ব্লাডজোন তৈরীর লক্ষ্যে আওতাধীন এলাকাসমূহে রক্তদাতাদের তালিকা নিবন্ধনের নির্দেশ দিয়েছে সমাজসেবামূলক সংগঠন সঞ্জীবন। শুক্রবার (০৫ জুলাই, ২০১৯) সঞ্জীবন কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পর্ষদ সভাপতি ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল ও সাধারণ সম্পাদক নূর হোসেন হৃদয় স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

ব্লাডজোন তৈরীর লক্ষ্যে প্রেরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সঞ্জীবনের প্রত্যেক শাখা-উপশাখা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের উদ্দেশ্য করে ০৬ জুলাই, ২০১৯ ইং হতে পরবর্তী ১৪ কার্যদিবসের মধ্যে কেন্দ্রে কমপক্ষে ১০০ জন করে রক্তদাতাদের তালিকা জমা দিতে বলা হয়েছে। রক্তদাতাদের এ তালিকা জমা দিতে হবে সঞ্জীবন, আইটি সেল প্রধান এসএমকে ইশতিয়াক বরাবর।

এ ব্যাপারে সঞ্জীবন সভাপতি ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল দৈনিক নবযুগকে বলেন,

“দেশে হাজারো সংগঠন প্রতিদিন রক্ত সংগ্রহের কাজ করে যাচ্ছে। তবুও রক্ত সমস্যার কোনো সমাধান হচ্ছে না। তাই আমরা সঞ্জীবন এর পক্ষ থেকে ব্লাডজোন থিওরি নিয়ে এসেছি  এবং আমরাই এর বাস্তবায়নে কাজ শুরু করেছি। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন যেনো আমরা আমাদের কার্যক্রমে সফল হতে পারি। সকলের সহায়তা ও সমর্থন পেলে ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতে দেশে রক্ত নিয়ে কাউকে ভোগান্তি পোহাতে হবেনা।”

সঞ্জীবন, নির্বাহী পর্ষদ সদস্য নুসরাত মীম বলেন,

“এলাকাভিত্তিক ব্লাড ডোনেশন সংগঠনের কোনো অভাব আমাদের দেশে নেই। অভাব রয়েছে তো কার্যকর রক্তদাতার। প্রয়োজনের সময় এখনও আমাদের সবাইকে হন্যে হয়ে রক্তদাতা খুজতে হয়। শুধুমাত্র পদ-পদবীর জন্য এখন সমানে সংগঠন প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। এই অবস্থার উন্নতি ঘটানোর জন্যেই আমরা মূলত ব্লাডজোন থিওরি নিয়ে এসেছি যেখানে প্রশাসন এবং রাজনৈতিক-সামাজিক ব্যক্তিত্বদের সবার সম্মিলিত প্রয়াসে স্ব স্ব এলাকার জন্য প্রয়োজনীয় রক্ত ওই এলাকাতেই ম্যানেজ করা সম্ভব হবে। তাই সবার নিকট আবেদন থাকবে আমাদেরকে সহায়তা করুন এবং দোয়া করবেন যেনো আমরা সফল হতে পারি।”

উল্লেখ্য, সঞ্জীবন ঘোষিত বর্ষব্যাপি কর্ম পরিকল্পনায় তৃতীয় স্থানে ছিলো ব্লাডজোন তৈরীর ব্যাপারে কর্মসূচী পরিচালনার অঙ্গীকার।

এলাকাভিত্তিক “ব্লাডজোন” তৈরীর নির্দেশনা দিলো সঞ্জীবন

প্রকাশ: ০৯:১২:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জুলাই ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের প্রথম ব্লাডজোন তৈরীর লক্ষ্যে আওতাধীন এলাকাসমূহে রক্তদাতাদের তালিকা নিবন্ধনের নির্দেশ দিয়েছে সমাজসেবামূলক সংগঠন সঞ্জীবন। শুক্রবার (০৫ জুলাই, ২০১৯) সঞ্জীবন কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পর্ষদ সভাপতি ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল ও সাধারণ সম্পাদক নূর হোসেন হৃদয় স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

ব্লাডজোন তৈরীর লক্ষ্যে প্রেরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সঞ্জীবনের প্রত্যেক শাখা-উপশাখা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের উদ্দেশ্য করে ০৬ জুলাই, ২০১৯ ইং হতে পরবর্তী ১৪ কার্যদিবসের মধ্যে কেন্দ্রে কমপক্ষে ১০০ জন করে রক্তদাতাদের তালিকা জমা দিতে বলা হয়েছে। রক্তদাতাদের এ তালিকা জমা দিতে হবে সঞ্জীবন, আইটি সেল প্রধান এসএমকে ইশতিয়াক বরাবর।

এ ব্যাপারে সঞ্জীবন সভাপতি ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল দৈনিক নবযুগকে বলেন,

“দেশে হাজারো সংগঠন প্রতিদিন রক্ত সংগ্রহের কাজ করে যাচ্ছে। তবুও রক্ত সমস্যার কোনো সমাধান হচ্ছে না। তাই আমরা সঞ্জীবন এর পক্ষ থেকে ব্লাডজোন থিওরি নিয়ে এসেছি  এবং আমরাই এর বাস্তবায়নে কাজ শুরু করেছি। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন যেনো আমরা আমাদের কার্যক্রমে সফল হতে পারি। সকলের সহায়তা ও সমর্থন পেলে ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতে দেশে রক্ত নিয়ে কাউকে ভোগান্তি পোহাতে হবেনা।”

সঞ্জীবন, নির্বাহী পর্ষদ সদস্য নুসরাত মীম বলেন,

“এলাকাভিত্তিক ব্লাড ডোনেশন সংগঠনের কোনো অভাব আমাদের দেশে নেই। অভাব রয়েছে তো কার্যকর রক্তদাতার। প্রয়োজনের সময় এখনও আমাদের সবাইকে হন্যে হয়ে রক্তদাতা খুজতে হয়। শুধুমাত্র পদ-পদবীর জন্য এখন সমানে সংগঠন প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। এই অবস্থার উন্নতি ঘটানোর জন্যেই আমরা মূলত ব্লাডজোন থিওরি নিয়ে এসেছি যেখানে প্রশাসন এবং রাজনৈতিক-সামাজিক ব্যক্তিত্বদের সবার সম্মিলিত প্রয়াসে স্ব স্ব এলাকার জন্য প্রয়োজনীয় রক্ত ওই এলাকাতেই ম্যানেজ করা সম্ভব হবে। তাই সবার নিকট আবেদন থাকবে আমাদেরকে সহায়তা করুন এবং দোয়া করবেন যেনো আমরা সফল হতে পারি।”

উল্লেখ্য, সঞ্জীবন ঘোষিত বর্ষব্যাপি কর্ম পরিকল্পনায় তৃতীয় স্থানে ছিলো ব্লাডজোন তৈরীর ব্যাপারে কর্মসূচী পরিচালনার অঙ্গীকার।