ঢাকা ০১:৪১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ময়লাকান্দার ময়লার খনি সোনার খনিতে পরিণত হবে -মসিক মেয়র ইকরামুল হক টিটু

  • Choton Mia
  • আপডেট: ০৫:৩৭:৪৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ জানুয়ারী ২০২২

 এনামুল হক ছোটনঃ ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ( মসিক) এর ২টি ওয়ার্ডে ৪৯ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০টি সড়কের নির্মাণ কাজ উদ্বোধনকালে ময়লাকান্দার ময়লা আবর্জনা সম্পর্কে এ কথা বলেছেন মসিক মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। গতকাল রবিবার সকালে ৩২ ও ৩৩ নং (মসিক) ওয়ার্ডে বিভিন্ন উন্নয়ন নির্মাণকাজ উদ্বোধন করা হয়েছে। চরকালীবাড়ি ময়লাকান্দা থেকে চৌধুরীবাড়ী পর্যন্ত বিসি সড়ক সহ চরকালীবাড়ি অঞ্চলে ৭ টি সড়ক, চর তিনগাও মসজিদ থেকে শম্ভুগঞ্জ রেলস্টেশন পর্যন্ত আরসিসি রাস্তা, চর নীলক্ষিয়া পাকা রাস্তা থেকে চর গোবদিয়া খ্রিস্টানপাড়া পর্যন্ত বিসি রাস্তা ইত্যাদি উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন মেয়র। এসব সড়কের মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ২৫ কিলোমিটার।

উদ্বোধনকালে মেয়র বলেন, আমরা সমৃদ্ধি ও কাঙ্খিত লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি ক্রমাগত। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অন্তর্ভুক্ত হওয়া ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের নতুন ওয়ার্ডসমূহের অবকাঠামো ছিল অত্যন্ত নাজুক। এখন এই সব ওয়ার্ডসমূহে ব্যাপক উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ময়মনসিংহবাসীকে সিটি কর্পোরেশন উপহার দিয়েছেন বলেই। আপনারা যারা ময়লা নিয়ে কথা বলেছেন, তাদের উদ্দেশ্য আমি বলতে চাই ,ময়লাকান্দার ময়লা আবর্জনা আর থাকবে না। আবর্জনাকে সম্পদে রূপান্তরের চেষ্টা করছি আমরা। আপনাদের এই ময়লাখনি সোনার খনিতে পরিণত হবে। এই ময়লা আবর্জনা থেকেই বিদ্যুৎ উৎপাদন মাধ্যমে সম্পদে রুপান্তরিত করা হবে। তিনি আরও বলেন, সম্প্রসারিত ওয়ার্ডসমূহে ইতোমধ্যে প্রায় ৪০০ কোটি টাকার কাজের টেন্ডার সম্পন্ন হয়েছে।

শুধুমাত্র ৩২ নং ওয়ার্ডের উন্নয়নেই ৮০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এসব সড়ক ও ড্রেন ওয়ার্ডের নাগরিকদের জীবনমান ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে। এ সময় মেয়র রাস্তা, ড্রেন ও সড়কবাতি স্থাপনে প্রয়োজনীয় ছাড় দেওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি বলেন, নতুন এ ওয়ার্ডসমূহ পরিকল্পিতভাবে গড়ে তোলার সুযোগ আছে। ছাড়ের মানসিকতাই এ প্রচেষ্টাকে সফল করে তুলতে পারে। উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন ৩২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এমদাদুল হক মন্ডল, ৩৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ শাহজাহান মিয়া, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর ফারজানা ববি কাকলী, প্রধান প্রকৌশলী মোঃ রফিকুল ইসলাম মিঞা, নির্বাহী প্রকৌশলী জহুরুল হক, সহকারী প্রকৌশলী মোঃ আজহারুল হক, প্রধান প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) জিল্লুর রহমান, জনসংযোগ কর্মকর্তা শেখ মহাবুল হোসেন রাজীব ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সহ প্রমুখ।

Tag :

Notice: Trying to access array offset on value of type int in /home/nabajugc/public_html/wp-content/themes/NewsFlash-Pro/template-parts/common/single_two.php on line 182

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Choton Mia

Popular Post

ময়লাকান্দার ময়লার খনি সোনার খনিতে পরিণত হবে -মসিক মেয়র ইকরামুল হক টিটু

Update Time : ০৫:৩৭:৪৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ জানুয়ারী ২০২২

 এনামুল হক ছোটনঃ ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ( মসিক) এর ২টি ওয়ার্ডে ৪৯ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০টি সড়কের নির্মাণ কাজ উদ্বোধনকালে ময়লাকান্দার ময়লা আবর্জনা সম্পর্কে এ কথা বলেছেন মসিক মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। গতকাল রবিবার সকালে ৩২ ও ৩৩ নং (মসিক) ওয়ার্ডে বিভিন্ন উন্নয়ন নির্মাণকাজ উদ্বোধন করা হয়েছে। চরকালীবাড়ি ময়লাকান্দা থেকে চৌধুরীবাড়ী পর্যন্ত বিসি সড়ক সহ চরকালীবাড়ি অঞ্চলে ৭ টি সড়ক, চর তিনগাও মসজিদ থেকে শম্ভুগঞ্জ রেলস্টেশন পর্যন্ত আরসিসি রাস্তা, চর নীলক্ষিয়া পাকা রাস্তা থেকে চর গোবদিয়া খ্রিস্টানপাড়া পর্যন্ত বিসি রাস্তা ইত্যাদি উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন মেয়র। এসব সড়কের মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ২৫ কিলোমিটার।

উদ্বোধনকালে মেয়র বলেন, আমরা সমৃদ্ধি ও কাঙ্খিত লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি ক্রমাগত। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অন্তর্ভুক্ত হওয়া ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের নতুন ওয়ার্ডসমূহের অবকাঠামো ছিল অত্যন্ত নাজুক। এখন এই সব ওয়ার্ডসমূহে ব্যাপক উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ময়মনসিংহবাসীকে সিটি কর্পোরেশন উপহার দিয়েছেন বলেই। আপনারা যারা ময়লা নিয়ে কথা বলেছেন, তাদের উদ্দেশ্য আমি বলতে চাই ,ময়লাকান্দার ময়লা আবর্জনা আর থাকবে না। আবর্জনাকে সম্পদে রূপান্তরের চেষ্টা করছি আমরা। আপনাদের এই ময়লাখনি সোনার খনিতে পরিণত হবে। এই ময়লা আবর্জনা থেকেই বিদ্যুৎ উৎপাদন মাধ্যমে সম্পদে রুপান্তরিত করা হবে। তিনি আরও বলেন, সম্প্রসারিত ওয়ার্ডসমূহে ইতোমধ্যে প্রায় ৪০০ কোটি টাকার কাজের টেন্ডার সম্পন্ন হয়েছে।

শুধুমাত্র ৩২ নং ওয়ার্ডের উন্নয়নেই ৮০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এসব সড়ক ও ড্রেন ওয়ার্ডের নাগরিকদের জীবনমান ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে। এ সময় মেয়র রাস্তা, ড্রেন ও সড়কবাতি স্থাপনে প্রয়োজনীয় ছাড় দেওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি বলেন, নতুন এ ওয়ার্ডসমূহ পরিকল্পিতভাবে গড়ে তোলার সুযোগ আছে। ছাড়ের মানসিকতাই এ প্রচেষ্টাকে সফল করে তুলতে পারে। উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন ৩২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এমদাদুল হক মন্ডল, ৩৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ শাহজাহান মিয়া, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর ফারজানা ববি কাকলী, প্রধান প্রকৌশলী মোঃ রফিকুল ইসলাম মিঞা, নির্বাহী প্রকৌশলী জহুরুল হক, সহকারী প্রকৌশলী মোঃ আজহারুল হক, প্রধান প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) জিল্লুর রহমান, জনসংযোগ কর্মকর্তা শেখ মহাবুল হোসেন রাজীব ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সহ প্রমুখ।