মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ০২:৫০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
কর্মকর্তারা গরিব মানুষকে আঘাত বা লাঞ্ছিত করে কি আশায়? ভালুকায় অসহায় মানুষের পাশে রয়েছে “তারুণ্যের আলো” iflixVIP সাবস্ক্রিপশন একমাস সম্পূর্ণ ফ্রি করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় ভালুকাতে ভূমিকা রেখে চলেছে “তারুণ্যের আলো” “নির্বাসন” আমাদের অনিশ্চিত জীবনেরই গল্প কর্মকর্তারা গরিব মানুষকে আঘাত বা লাঞ্ছিত করে কি আশায়? ত্রিশালে ‘করোনা’ মোকাবেলায় কাজ করছে দ্যা স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ভালুকায় হাত ধোয়া কার্যক্রম জনপ্রিয় করতে এগিয়ে এলো ‘তারুণ্যের আলো’ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে র‍্যাব -১৪ বিভিন্ন কার্যক্রম করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে জেলা ছাত্রলীগ নেতা হুমায়ুন কবির

ট্রেনে করোনা রোগী থাকার গুজব, মুহূর্তেই খালি প্ল্যাটফর্ম

ট্রেনে করোনা রোগী থাকার গুজব, মুহূর্তেই খালি প্ল্যাটফর্ম

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস আতঙ্কে কাঁপছে পুরো বিশ্ব। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো এ আতঙ্কে ভুগছে ভারতও। আসামের মারিয়ানি স্টেশনে সম্প্রতি এক ট্রেনে করোনায় আক্রান্ত দুই যাত্রী রয়েছেন, এমন গুজবে মুহূর্তেই খালি হয়ে যায় পুরো প্ল্যাটফর্ম। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম নিউজ ১৮’র খবরে বলা হয়েছে, ট্রেনটি আসছিল চেন্নাই থেকে। প্ল্যাটফর্মে ঢুকতেই কোথায় আরও ভিড় বাড়বে! উল্টো মুহূর্তের মধ্যেই সব ফাঁকা! রেলের পক্ষ থেকেই দায়িত্ব নিয়েই খালি করিয়ে দেওয়া হল পুরো প্ল্যাটফর্ম।আসলে ওই চেন্নাই এক্সপ্রেসের চার যাত্রীর মধ্যে করোনাভাইরাসে উপসর্গ মেলার খবর পেয়েই সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। কোনও ঝুঁকি না নিয়ে তাই তড়িঘড়ি প্ল্যাটফর্ম খালি করে দেওয়া হয়। স্টেশন ফাঁকা করে গোটা ট্রেনের যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়। দুই ব্যক্তির সর্দি-কাশি থাকলেও তা করোনার মতো ছিল না। রেলের ডাক্তাররা ছাড়পত্র দেওয়ার পরই ফের গন্তব্যের উদ্দেশে ছেড়ে যায় ট্রেনটি।

এর আগে কেরালার কোচি বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের কিছুক্ষণ আগে দুবাইগামী একটি প্লেন থেকে ২৭০ জন যাত্রীকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। উড্ডয়নের আগ মুহূর্তেই জানা যায়, ওই ফ্লাইটের একজন ব্রিটিশ যাত্রীর শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ড ওমিটারস ডট ইনফো’র হিসাব অনুযায়ী, বাংলাদেশ সময় ১৬ মার্চ দুপুর পর্যন্ত ভারতে এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১১৫। এর মধ্যে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসা গ্রহণের পর সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৩ জন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, দেশটিতে এ ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে। সেখানে সরকারি হিসাবেই আক্রান্তের সংখ্যা ৩১। এর পরের অবস্থানে রয়েছে কেরালা। রাজ্যটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ২২। হরিয়ানায় আক্রান্ত ১৪ জনের সবাই বিদেশি। দিল্লিতে আক্রান্ত হয়েছেন সাত জন। তাদের মধ্যে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। অধিকাংশ স্কুল-কলেজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বহু অফিসেই ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ করছেন কর্মীরা। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সিনেমা হলগুলো।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© ২০১৯ দৈনিক নবযুগ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Designed and developed by Smk Ishtiak