ঢাকা ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

স্থিতিশীল সীমান্তে নির্ভর চীন-ভারত সম্পর্ক: জয়শঙ্কর

ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখতে গেলে সীমান্ত শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে হবে৷ বৃহস্পতিবার চিনকে এই ভাবেই কড়া বার্তা দিলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর৷ তিনি বলেন, ‘‘ভারতও চায় চিনের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি করতে, কিন্তু তা তখনই সম্ভব যখন সীমান্ত এলাকায় শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় থাকবে। ভারত চিনকে স্পষ্ট করে বলেছে যে সীমান্ত এলাকায় শান্তি না আসা পর্যন্ত দুই দেশের সম্পর্ক এগোতে পারবে না।’’

মূলত, পূর্ব লাদাখে সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়েই এ দিন নয়াদিল্লিতে এক সাংবাদিক বৈঠক থেকে জয়শঙ্কর এই বার্তা দিয়েছেন বেজিংকে৷ একই সঙ্গে তিনি উল্লেখ করেছেন, ‘‘যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে এমন নয় । মোদ্দা কথা হল চিনের সঙ্গে, গালওয়ান হওয়ার আগেই, আমরা চিনাদের সঙ্গে কথা বলেছিলাম যে দেখুন আমরা আপনার বাহিনীর গতিবিধি দেখছি, যা আমাদের দৃষ্টিতে আমাদের বোঝাপড়ার লঙ্ঘন বলে মনে হচ্ছে । গালওয়ানের ঘটনার পরদিন সকালেও আমি চিনের বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলি৷’’

বিদেশমন্ত্রীর আরও বক্তব্য, ভারত জবরদস্তি, প্রলোভন ও মিথ্যা বর্ণনায় প্রভাবিত হয় না । এই ক্ষেত্রে তিনি দেশের উত্তর সীমান্তের পরিস্থিতির প্রতি নয়াদিল্লির দৃষ্টিভঙ্গিকে উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরেন৷ একই সঙ্গে চিনের বেল্ট অ্যান্ড রোড উদ্যোগের যে ভারত বিরোধী, তা আরও একবার মনে করিয়ে দেন৷

ভারত ও চিনা সেনা পূর্ব লাদাখের কিছু নির্দিষ্ট জায়হায় তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে রয়েছে৷ যদিও উভয়পক্ষ ব্যাপক কূটনৈতিক ও সামরিক আলোচনার পরে বেশ কয়েকটি স্থিতাবস্থা ফিরে এসেছে৷ এই নিয়ে জয়শঙ্করের বক্তব্য, উভয় পক্ষকে সৈন্যদের বিচ্ছিন্ন করার উপায় খুঁজে বের করতে হবে৷ বর্তমান অচলাবস্থা চিনের স্বার্থের জন্যও ভালো নয় ।

তবে ২০২০ সালের মে মাসে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল, সেই সময় ভারতের কোনও অংশ কি চিন দখল করেছে? এ দিনের সাংবাদিক বৈঠকে এই প্রশ্নও ওঠে৷ তবে কৌশলে উত্তর এড়িয়ে যান তিনি৷ তাঁর কথায়, মূল সমস্যা সীমান্তের ফরওয়ার্ড পয়েন্টগুলিতে চিনের সেনা মোতায়েন নিয়ে৷ খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

Tag :

Notice: Trying to access array offset on value of type int in /home/nabajugc/public_html/wp-content/themes/NewsFlash-Pro/template-parts/common/single_two.php on line 182

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

Popular Post

স্থিতিশীল সীমান্তে নির্ভর চীন-ভারত সম্পর্ক: জয়শঙ্কর

Update Time : ০২:৪৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩

ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখতে গেলে সীমান্ত শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে হবে৷ বৃহস্পতিবার চিনকে এই ভাবেই কড়া বার্তা দিলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর৷ তিনি বলেন, ‘‘ভারতও চায় চিনের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি করতে, কিন্তু তা তখনই সম্ভব যখন সীমান্ত এলাকায় শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় থাকবে। ভারত চিনকে স্পষ্ট করে বলেছে যে সীমান্ত এলাকায় শান্তি না আসা পর্যন্ত দুই দেশের সম্পর্ক এগোতে পারবে না।’’

মূলত, পূর্ব লাদাখে সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়েই এ দিন নয়াদিল্লিতে এক সাংবাদিক বৈঠক থেকে জয়শঙ্কর এই বার্তা দিয়েছেন বেজিংকে৷ একই সঙ্গে তিনি উল্লেখ করেছেন, ‘‘যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে এমন নয় । মোদ্দা কথা হল চিনের সঙ্গে, গালওয়ান হওয়ার আগেই, আমরা চিনাদের সঙ্গে কথা বলেছিলাম যে দেখুন আমরা আপনার বাহিনীর গতিবিধি দেখছি, যা আমাদের দৃষ্টিতে আমাদের বোঝাপড়ার লঙ্ঘন বলে মনে হচ্ছে । গালওয়ানের ঘটনার পরদিন সকালেও আমি চিনের বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলি৷’’

বিদেশমন্ত্রীর আরও বক্তব্য, ভারত জবরদস্তি, প্রলোভন ও মিথ্যা বর্ণনায় প্রভাবিত হয় না । এই ক্ষেত্রে তিনি দেশের উত্তর সীমান্তের পরিস্থিতির প্রতি নয়াদিল্লির দৃষ্টিভঙ্গিকে উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরেন৷ একই সঙ্গে চিনের বেল্ট অ্যান্ড রোড উদ্যোগের যে ভারত বিরোধী, তা আরও একবার মনে করিয়ে দেন৷

ভারত ও চিনা সেনা পূর্ব লাদাখের কিছু নির্দিষ্ট জায়হায় তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে রয়েছে৷ যদিও উভয়পক্ষ ব্যাপক কূটনৈতিক ও সামরিক আলোচনার পরে বেশ কয়েকটি স্থিতাবস্থা ফিরে এসেছে৷ এই নিয়ে জয়শঙ্করের বক্তব্য, উভয় পক্ষকে সৈন্যদের বিচ্ছিন্ন করার উপায় খুঁজে বের করতে হবে৷ বর্তমান অচলাবস্থা চিনের স্বার্থের জন্যও ভালো নয় ।

তবে ২০২০ সালের মে মাসে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল, সেই সময় ভারতের কোনও অংশ কি চিন দখল করেছে? এ দিনের সাংবাদিক বৈঠকে এই প্রশ্নও ওঠে৷ তবে কৌশলে উত্তর এড়িয়ে যান তিনি৷ তাঁর কথায়, মূল সমস্যা সীমান্তের ফরওয়ার্ড পয়েন্টগুলিতে চিনের সেনা মোতায়েন নিয়ে৷ খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক