১০:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ট্রলের শিকার কারিনা, শুনতে হচ্ছে আন্টি ডাক!

বিনোদন ডেস্ক: আরবাজ খান একটি ওয়েব শো করছেন। নাম ‘পিঞ্চ’। এই অনুষ্ঠানে এসে সেলিব্রিটিরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁদের ছবি আর ভিডিওর ট্রলিং নিয়ে কথা বলবেন। এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে করণ জোহর, সোনম কাপুর, সোনাক্ষী সিনহা, নওয়াজউদ্দীন সিদ্দিকী, কপিল শর্মাসহ আরও কয়েকজন তারকাকে। এরই মধ্যে এই অনুষ্ঠানে এসেছেন কারিনা কাপুর খান। জানা গেছে, পোশাক নির্বাচন কিংবা ছবিতে অভিনয় নিয়ে তিনি বেশির ভাগ সময় ট্রলিংয়ের শিকার হয়েছেন।

কারিনা কাপুর খানকে বেশির ভাগ ট্রলে ‘আন্টি’ বলে সম্বোধন করা হয়। এই যেমন এবার একজন ট্রলে লিখেছেন, ‘আপনি তো আন্টি হয়ে গেছেন। টিনএজারদের মতো আচরণ করবেন না।’ তা দেখে কারিনা কাপুর খান কিছুক্ষণ চুপ করে থাকলেন। এরপর হাসলেন। বলিউডের এই জনপ্রিয় তারকার বয়স এখন ৩৮।

ট্রল দেখেছেন, এবার মন্তব্য করতে হবে। কী বলবেন তিনি? ট্রল তো তাঁর পিছু ছাড়ছে না! একটা ট্রল দেখে মন্তব্য করলে তা নিয়ে আরও দশটা ট্রল তৈরি হবে। এই যেমন কিছুদিন আগে কারিনা কাপুর খানের একটি ছবি খুব সমালোচিত হয়। ছবি দেখে অনেকেই প্রশ্ন করেছেন, তিনি আবার মা হচ্ছেন? তা দেখে খুব খেপে যান। বললেন, ‘যাকে যেটা পরে ভালো দেখাবে, সেটাই পরা উচিত। আমি জানি না মায়ের পোশাক বলে আলাদা কিছু হয় কি না!’ আরও বললেন, ‘যখন গর্ভবতী ছিলাম, তখনো আমাকে নিয়ে অনেক কথা হয়েছে।’

ছেলে তৈমুর আলী খানের জন্মের পর কারিনা কাপুর খান আবার পর্দায় ফেরার জন্য প্রস্তুতি নেন। এ সময় ছেলেকে বাসায় রেখে প্রায়ই তাঁকে জিমে যেতে হয়েছে। জিরো ফিগারে ফিরে যাওয়ার জন্য জান-প্রাণ দিয়ে খেটেছেন। আবার দাওয়াত আর সামাজিক যোগাযোগ রক্ষা করার জন্য যেতে হয়েছে বিভিন্ন পার্টিতে। শুরু হলো ট্রল। আপত্তিকর ভাষায় আক্রমণ করা হয় তাঁকে। এ ব্যাপারে কারিনা কাপুর খান বললেন, ‘বন্ধুদের সঙ্গে বের হওয়ায় খারাপ মা কিংবা ভালো মায়ের যোগ কী! মা হওয়ার অর্থ এই নয় যে, তাকে নিজের সবকিছু ত্যাগ করতে হবে।’

আর এবার ‘পিঞ্চ’ অনুষ্ঠানে কারিনা কাপুর খান বললেন, ‘সবাই মনে করেন সেলিব্রিটিদের আবেগ কিংবা অনুভূতি বলে কিছু থাকতে নেই। যে যা বলবে, আমাদের সবকিছুই মেনে নিতে হবে।’

ট্যাগ:

ট্রলের শিকার কারিনা, শুনতে হচ্ছে আন্টি ডাক!

প্রকাশ: ০৮:২৪:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ মার্চ ২০১৯

বিনোদন ডেস্ক: আরবাজ খান একটি ওয়েব শো করছেন। নাম ‘পিঞ্চ’। এই অনুষ্ঠানে এসে সেলিব্রিটিরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁদের ছবি আর ভিডিওর ট্রলিং নিয়ে কথা বলবেন। এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে করণ জোহর, সোনম কাপুর, সোনাক্ষী সিনহা, নওয়াজউদ্দীন সিদ্দিকী, কপিল শর্মাসহ আরও কয়েকজন তারকাকে। এরই মধ্যে এই অনুষ্ঠানে এসেছেন কারিনা কাপুর খান। জানা গেছে, পোশাক নির্বাচন কিংবা ছবিতে অভিনয় নিয়ে তিনি বেশির ভাগ সময় ট্রলিংয়ের শিকার হয়েছেন।

কারিনা কাপুর খানকে বেশির ভাগ ট্রলে ‘আন্টি’ বলে সম্বোধন করা হয়। এই যেমন এবার একজন ট্রলে লিখেছেন, ‘আপনি তো আন্টি হয়ে গেছেন। টিনএজারদের মতো আচরণ করবেন না।’ তা দেখে কারিনা কাপুর খান কিছুক্ষণ চুপ করে থাকলেন। এরপর হাসলেন। বলিউডের এই জনপ্রিয় তারকার বয়স এখন ৩৮।

ট্রল দেখেছেন, এবার মন্তব্য করতে হবে। কী বলবেন তিনি? ট্রল তো তাঁর পিছু ছাড়ছে না! একটা ট্রল দেখে মন্তব্য করলে তা নিয়ে আরও দশটা ট্রল তৈরি হবে। এই যেমন কিছুদিন আগে কারিনা কাপুর খানের একটি ছবি খুব সমালোচিত হয়। ছবি দেখে অনেকেই প্রশ্ন করেছেন, তিনি আবার মা হচ্ছেন? তা দেখে খুব খেপে যান। বললেন, ‘যাকে যেটা পরে ভালো দেখাবে, সেটাই পরা উচিত। আমি জানি না মায়ের পোশাক বলে আলাদা কিছু হয় কি না!’ আরও বললেন, ‘যখন গর্ভবতী ছিলাম, তখনো আমাকে নিয়ে অনেক কথা হয়েছে।’

ছেলে তৈমুর আলী খানের জন্মের পর কারিনা কাপুর খান আবার পর্দায় ফেরার জন্য প্রস্তুতি নেন। এ সময় ছেলেকে বাসায় রেখে প্রায়ই তাঁকে জিমে যেতে হয়েছে। জিরো ফিগারে ফিরে যাওয়ার জন্য জান-প্রাণ দিয়ে খেটেছেন। আবার দাওয়াত আর সামাজিক যোগাযোগ রক্ষা করার জন্য যেতে হয়েছে বিভিন্ন পার্টিতে। শুরু হলো ট্রল। আপত্তিকর ভাষায় আক্রমণ করা হয় তাঁকে। এ ব্যাপারে কারিনা কাপুর খান বললেন, ‘বন্ধুদের সঙ্গে বের হওয়ায় খারাপ মা কিংবা ভালো মায়ের যোগ কী! মা হওয়ার অর্থ এই নয় যে, তাকে নিজের সবকিছু ত্যাগ করতে হবে।’

আর এবার ‘পিঞ্চ’ অনুষ্ঠানে কারিনা কাপুর খান বললেন, ‘সবাই মনে করেন সেলিব্রিটিদের আবেগ কিংবা অনুভূতি বলে কিছু থাকতে নেই। যে যা বলবে, আমাদের সবকিছুই মেনে নিতে হবে।’