১০:১৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উৎসবমূখর জাবিসাস, নির্বাচন ১৪ মার্চ

আব্দুল মান্নান, জাবি প্রতিনিধি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যকরী পরিষদের নির্বাচন ১৪ মার্চ অনলাইন প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে।

৪ মার্চ, বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ ঘটিকায় জাবিসাস কার্যালয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যকরী পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও প্রভোস্ট কমিটির সভাপতি ড. মোঃ মোতাহার হোসেন। এ সময় অনলাইনে যুক্ত ছিলেন অপর দুই নির্বাচন কমিশনার প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. বোরহান উদ্দিন এবং, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক, ড. উম্মে সায়কা।

তফসিল অনুযায়ী –
১. চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ- ৫ মার্চ, বিকাল ৫ টা।
২. মনোনয়ন সংগ্রহ ও জমাদান- ৬ মার্চ থেকে ৯ মার্চ বিকাল ৫ টা পর্যন্ত।
৩. চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ- ১৩ মার্চ।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, “নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পর থেকে কোন প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠলে তদন্ত সাপেক্ষে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিল করা হবে এবং একই পদে একাধিক প্রার্থী সমান ভোট পেলে লটারির মাধ্যমে নিস্পত্তি করা হবে। ”

উল্লেখ্য, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল বিষয় সতিমির নোটিশ বোর্ড এবং জাবিসাসের ফেসবুক পেইজে পাওয়া যাবে ।

ট্যাগ:

উৎসবমূখর জাবিসাস, নির্বাচন ১৪ মার্চ

প্রকাশ: ১২:৪২:০৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ মার্চ ২০২১

আব্দুল মান্নান, জাবি প্রতিনিধি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যকরী পরিষদের নির্বাচন ১৪ মার্চ অনলাইন প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে।

৪ মার্চ, বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ ঘটিকায় জাবিসাস কার্যালয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যকরী পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও প্রভোস্ট কমিটির সভাপতি ড. মোঃ মোতাহার হোসেন। এ সময় অনলাইনে যুক্ত ছিলেন অপর দুই নির্বাচন কমিশনার প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. বোরহান উদ্দিন এবং, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক, ড. উম্মে সায়কা।

তফসিল অনুযায়ী –
১. চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ- ৫ মার্চ, বিকাল ৫ টা।
২. মনোনয়ন সংগ্রহ ও জমাদান- ৬ মার্চ থেকে ৯ মার্চ বিকাল ৫ টা পর্যন্ত।
৩. চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ- ১৩ মার্চ।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, “নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পর থেকে কোন প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠলে তদন্ত সাপেক্ষে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিল করা হবে এবং একই পদে একাধিক প্রার্থী সমান ভোট পেলে লটারির মাধ্যমে নিস্পত্তি করা হবে। ”

উল্লেখ্য, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল বিষয় সতিমির নোটিশ বোর্ড এবং জাবিসাসের ফেসবুক পেইজে পাওয়া যাবে ।